উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের অ্যাম্বুলেন্স বিকল, স্বাস্থ্যসেবা ব্যাহত
jugantor
উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের অ্যাম্বুলেন্স বিকল, স্বাস্থ্যসেবা ব্যাহত

  কালাই (জয়পুরহাট) প্রতিনিধি  

১৫ মে ২০২১, ১৫:৫৪:১৮  |  অনলাইন সংস্করণ

জয়পুরহাটের কালাই উপজেলার ৫০ শয্যার স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের একমাত্র অ্যাম্বুলেন্স গত দুই সপ্তাহের বেশি সময় ধরে বিকল হয়ে পড়ায় ভোগান্তিতে পড়েছে সেবা প্রত্যাশী রোগীরা।

এটি এখনও মেরামত না হওয়ায় উদ্বিগ্ন রোগী ও তাদের স্বজনরা। তবে অ্যাম্বুলেন্সটি দ্রুত মেরামত করার জন্য গ্যারেজে পাঠানো হয়েছে বলে জানিয়েছেন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্তৃপক্ষ।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে সূত্রে জানা গেছে, ২০০২ সালে সরকারের স্বাস্থ্য বিভাগ উপজেলার ৩১ শয্যা হাসপাতালটির জন্য এই অ্যাম্বুলেন্সটি প্রদান করে। সর্বশেষ ২০১১ সালের আদমশুমারি মতে এ উপজেলায় মোট জনসংখ্যা ১ লাখ ৪৩ হাজার ১৯৭, যা বর্তমানে ২ লাখের বেশী হবে।

এক যুগের বেশি সময় আগে তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী নিজে এসে ৩১ শয্যার কালাই স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সটিকে ৫০ শয্যায় উন্নীত করলেও হাসপাতালটিতে আর কোনো অ্যাম্বুলেন্স সংযুক্ত করা হয়নি। এ দিকে ওই পুরাতন অ্যাম্বুলেন্স যান্ত্রিক সমস্যার কারণে কখনো বন্ধ আবার কখনো চালু রেখে এত দিন কোন রকমে চালানো হলেও গত ২ সপ্তাহ ধরে একেবারেই বিকল হয়ে পরছে। এ অবস্থায় রোগী ও তাদের অভিভাবকরা পরেছেন বিপাকে।

উপজেলার পাঁচগ্রামের বাবলু মিয়ার ছেলে বায়েজীদ হোসেন ও পাঁচশিরা বাজারের নৃপেন্দ্রনাথ কুমারের ছেলে সুদেব কুমার জানান, ঈদের দিন বিকালে কালাই পৌরসভার ঠুসিগাড়ী এলাকায় সড়ক দুর্ঘটনায় তারা মারাত্মক আহত হন। তখন স্থানীয়রা কালাই স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করান। সেখান থেকে বগুড়া শজিমেক হাসপাতালে স্থানান্তর করা হলেও সরকারি অ্যাম্বুলেন্সটি বিকল বলে জানানো হলে বাধ্য হয়ে অনেক বেশী টাকায় তিন চাকার সিএনজি মোটরযান ভাড়া করে বগুড়া নিয়ে যায়।

কালাই উপজেলার পরিষদের চেয়ারম্যান মিনফুজুর রহমান মিলন জানান, এলাকাবাসীদের দাবির প্রতি সম্মান জানিয়ে স্বাস্থ্যবিভাগকে বিষয়টি জানানো হয়েছে। আশা করি স্বাস্থ্য বিভাগের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ অচিরেই এ সমস্যা নিরসনে পদক্ষেপ গ্রহণ করবেন।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের দায়িত্বপ্রাপ্ত স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. আবু তাহের মো. তানভীর হোসেন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, পুরাতন অ্যাম্বুলেন্সটি মেরামত করা হচ্ছে, এছাড়া নতুন অ্যাম্বুলেন্সের জন্যও আবেদন করা হয়েছে।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের অ্যাম্বুলেন্স বিকল, স্বাস্থ্যসেবা ব্যাহত

 কালাই (জয়পুরহাট) প্রতিনিধি 
১৫ মে ২০২১, ০৩:৫৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

জয়পুরহাটের কালাই উপজেলার ৫০ শয্যার স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের একমাত্র অ্যাম্বুলেন্স গত দুই সপ্তাহের বেশি সময় ধরে বিকল হয়ে পড়ায় ভোগান্তিতে পড়েছে সেবা প্রত্যাশী রোগীরা। 

এটি এখনও মেরামত না হওয়ায় উদ্বিগ্ন রোগী ও তাদের স্বজনরা। তবে অ্যাম্বুলেন্সটি দ্রুত মেরামত করার জন্য গ্যারেজে পাঠানো হয়েছে বলে জানিয়েছেন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্তৃপক্ষ। 

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে সূত্রে জানা গেছে, ২০০২ সালে সরকারের স্বাস্থ্য বিভাগ উপজেলার ৩১ শয্যা হাসপাতালটির জন্য এই অ্যাম্বুলেন্সটি প্রদান করে। সর্বশেষ ২০১১ সালের আদমশুমারি মতে এ উপজেলায় মোট জনসংখ্যা ১ লাখ ৪৩ হাজার ১৯৭, যা বর্তমানে ২ লাখের বেশী হবে।

এক যুগের বেশি সময় আগে তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী নিজে এসে ৩১ শয্যার কালাই স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সটিকে ৫০ শয্যায় উন্নীত করলেও হাসপাতালটিতে আর কোনো অ্যাম্বুলেন্স সংযুক্ত করা হয়নি। এ দিকে ওই পুরাতন অ্যাম্বুলেন্স যান্ত্রিক সমস্যার কারণে কখনো বন্ধ আবার কখনো চালু রেখে এত দিন কোন রকমে চালানো হলেও গত ২ সপ্তাহ ধরে একেবারেই বিকল হয়ে পরছে। এ অবস্থায় রোগী ও তাদের অভিভাবকরা পরেছেন বিপাকে।

উপজেলার পাঁচগ্রামের বাবলু মিয়ার ছেলে বায়েজীদ হোসেন ও পাঁচশিরা বাজারের নৃপেন্দ্রনাথ কুমারের ছেলে সুদেব কুমার জানান, ঈদের দিন বিকালে কালাই পৌরসভার ঠুসিগাড়ী এলাকায় সড়ক দুর্ঘটনায় তারা মারাত্মক আহত হন। তখন স্থানীয়রা কালাই স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করান। সেখান থেকে বগুড়া শজিমেক হাসপাতালে স্থানান্তর করা হলেও সরকারি অ্যাম্বুলেন্সটি বিকল বলে জানানো হলে বাধ্য হয়ে অনেক বেশী টাকায় তিন চাকার সিএনজি মোটরযান ভাড়া করে বগুড়া নিয়ে যায়।

কালাই উপজেলার পরিষদের চেয়ারম্যান মিনফুজুর রহমান মিলন জানান, এলাকাবাসীদের দাবির প্রতি সম্মান জানিয়ে স্বাস্থ্যবিভাগকে বিষয়টি জানানো হয়েছে। আশা করি স্বাস্থ্য বিভাগের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ অচিরেই এ সমস্যা নিরসনে পদক্ষেপ গ্রহণ করবেন।

 উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের দায়িত্বপ্রাপ্ত স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. আবু তাহের মো. তানভীর হোসেন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, পুরাতন অ্যাম্বুলেন্সটি মেরামত করা হচ্ছে, এছাড়া নতুন অ্যাম্বুলেন্সের জন্যও আবেদন করা হয়েছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন