ভোলায় প্রতিপক্ষের হামলায় ৪ জন আহত
jugantor
ভোলায় প্রতিপক্ষের হামলায় ৪ জন আহত

  যুগান্তর প্রতিবেদন, ভোলা  

১৬ মে ২০২১, ১৫:১০:২৪  |  অনলাইন সংস্করণ

ভোলার লালমোহন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আহত রোগীকে দেখতে যাওয়ায় চারজনকে পিটিয়ে জখম করা হয়েছে।

রোববার ভোরে ভোলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

আহতরা হলেন— মো. রায়হান (৩৫), জাকির হোসেন (৪০), নার্গিস (২৫) ও বশির উল্লাহ মুন্সি (৫৫)। আহতরা সবাই ভোলার লালমোহন উপজেলার বদরপুর ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের রায়রাবাদ গ্রামের বাসিন্দা।

এর আগে শনিবার রাতে লালমোহন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এ ঘটনা ঘটে।

আহত রায়হান ও জাকির হোসেন বলেন, শনিবার রাতে পার্শ্ববর্তী বাড়ির প্রতিপক্ষ আব্দুল বারেক ও তার ছেলে আল আমিন, জহিরুল ইসলাম, মেহেদী, নুরুল আমিন তাদের বাড়ির চারপাশ কি কারণে যেন ঘুরতে থাকে। এ সময় মো. মাসুম বাথরুমের জন্য ঘর থেকে বের হলে তাদের দেখে ফেলায় তাকে মারধর শুরু করে তারা।

আহত মাসুদের চিৎকারে আমরাসহ, সুমন, বসু মুন্সি, নজরুর এলে আমাদেরও মারধর করে পালিয়ে যায় তারা। এ সময় আমাদের মধ্যে সুমনের অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তাকে রাতেই লালমোহন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

পরে প্রতিপক্ষরা আমাদের ওপর চড়াও হয়ে প্রকাশ্যে মারধর করে আহত করে পালিয়ে যায়। ওই সময় স্থানীয়দের সহযোগিতায় আমাদের উদ্ধার করে লালমোহন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ভর্তি করে। পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য রোবাবর ভোরে ভোলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

অভিযুক্তরা অভিযোগ অস্বীকার করে জানান, প্রতিপক্ষরা আমাদের লালমোহন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে দেখে হামলা চালালে আমরাও তাদের ওপর হামলা চালাই।

লালমোহন থানার ওসি মো. মাকসুদুর রহমান মুরাদ জানান, লালমোহন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে দুগ্রুপের মারামারির ঘটনা শুনে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করে। তবে এ বিষয়ে কেউ এখন পর্যন্ত থানায় লিখিত অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

ভোলায় প্রতিপক্ষের হামলায় ৪ জন আহত

 যুগান্তর প্রতিবেদন, ভোলা 
১৬ মে ২০২১, ০৩:১০ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ভোলার লালমোহন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আহত রোগীকে দেখতে যাওয়ায় চারজনকে পিটিয়ে জখম করা হয়েছে।

রোববার ভোরে ভোলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

আহতরা হলেন— মো. রায়হান (৩৫), জাকির হোসেন (৪০), নার্গিস (২৫) ও বশির উল্লাহ মুন্সি (৫৫)। আহতরা সবাই ভোলার লালমোহন উপজেলার বদরপুর ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের রায়রাবাদ গ্রামের বাসিন্দা।

এর আগে শনিবার রাতে লালমোহন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এ ঘটনা ঘটে।

আহত রায়হান ও জাকির হোসেন বলেন, শনিবার রাতে পার্শ্ববর্তী বাড়ির প্রতিপক্ষ আব্দুল বারেক ও তার ছেলে আল আমিন, জহিরুল ইসলাম, মেহেদী, নুরুল আমিন তাদের বাড়ির চারপাশ কি কারণে যেন ঘুরতে থাকে। এ সময় মো. মাসুম বাথরুমের জন্য ঘর থেকে বের হলে তাদের দেখে ফেলায় তাকে মারধর শুরু করে তারা।

 আহত মাসুদের চিৎকারে আমরাসহ, সুমন, বসু মুন্সি, নজরুর এলে আমাদেরও মারধর করে পালিয়ে যায় তারা। এ সময় আমাদের মধ্যে সুমনের অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তাকে রাতেই লালমোহন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।  

পরে প্রতিপক্ষরা আমাদের ওপর চড়াও হয়ে প্রকাশ্যে মারধর করে আহত করে পালিয়ে যায়। ওই সময় স্থানীয়দের সহযোগিতায় আমাদের উদ্ধার করে লালমোহন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ভর্তি করে। পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য রোবাবর ভোরে ভোলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

অভিযুক্তরা অভিযোগ অস্বীকার করে জানান, প্রতিপক্ষরা আমাদের লালমোহন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে দেখে হামলা চালালে আমরাও তাদের ওপর হামলা চালাই।

লালমোহন থানার ওসি মো. মাকসুদুর রহমান মুরাদ জানান, লালমোহন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে দুগ্রুপের মারামারির ঘটনা শুনে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করে। তবে এ বিষয়ে কেউ এখন পর্যন্ত থানায় লিখিত অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন