ঈদে আত্মীয়ের বাড়ি বেড়াতে যাওয়া গার্মেন্টস কর্মীকে ধর্ষণ
jugantor
ঈদে আত্মীয়ের বাড়ি বেড়াতে যাওয়া গার্মেন্টস কর্মীকে ধর্ষণ

  বাঁশখালী (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি  

১৭ মে ২০২১, ০২:০০:৩৬  |  অনলাইন সংস্করণ

চট্টগ্রামের বাঁশখালী উপজেলার সাধনপুর এলাকায় ঈদের ছুটিতে বেড়াতে গিয়ে ধর্ষণের শিকার হয়েছেন এক গার্মেন্টস কর্মী (২২)। শনিবার বিকাল সাড়ে ৫টার দিকে উপজেলার সাধনপুর ইউপির লটমনি পাহাড়ি এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ঈদের ছুটিতে শনিবার বিকেলে এক আত্মীয়সহ বাঁশখালী উপজেলার সাধনপুরের লটমনি পাহাড়ে বেড়াতে আসে এক গার্মেন্টস কর্মী। ওই সময় তরুণী পাহাড়ি এলাকায় ঘুরতে গেলে স্থানীয় বখাটে দলের সদস্যরা তাকে আটকে রেখে ধর্ষণ করে। এক পর্যায়ে তিনি রাত ১১টার দিকে পালিয়ে গিয়ে এক আত্মীয়ের সহযোগিতায় বিষয়টি রামদাশ হাট পুলিশ উপকেন্দ্রে জানান বলে নিশ্চিত করেন ওই উপকেন্দ্রে কর্তব্যরত পুলিশ কর্মকর্তা।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে রামদাস মুন্সীর হাট তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশ এসআই রাকিবুল ইসলাম বলেন, রোববার ওই তরুণী ফাঁড়িতে এসেছেন। ভিকটিমের পক্ষে এখনো থানায় মামলার এজাহার না দেওয়ায় এখনো মামলা রুজু করা হয়নি। তবে ভিকটিমের বর্ণনামতে আমরা দায়ী ব্যক্তিকে আটকের চেষ্টা চালাচ্ছি।

ঈদে আত্মীয়ের বাড়ি বেড়াতে যাওয়া গার্মেন্টস কর্মীকে ধর্ষণ

 বাঁশখালী (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি 
১৭ মে ২০২১, ০২:০০ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

চট্টগ্রামের বাঁশখালী উপজেলার সাধনপুর এলাকায় ঈদের ছুটিতে বেড়াতে গিয়ে ধর্ষণের শিকার হয়েছেন এক গার্মেন্টস কর্মী (২২)। শনিবার বিকাল সাড়ে ৫টার দিকে উপজেলার সাধনপুর ইউপির লটমনি পাহাড়ি এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ঈদের ছুটিতে শনিবার বিকেলে এক আত্মীয়সহ বাঁশখালী উপজেলার সাধনপুরের লটমনি পাহাড়ে বেড়াতে আসে এক গার্মেন্টস কর্মী। ওই সময় তরুণী পাহাড়ি এলাকায় ঘুরতে গেলে স্থানীয় বখাটে দলের সদস্যরা তাকে আটকে রেখে ধর্ষণ করে। এক পর্যায়ে তিনি রাত ১১টার দিকে পালিয়ে গিয়ে এক আত্মীয়ের সহযোগিতায় বিষয়টি রামদাশ হাট পুলিশ উপকেন্দ্রে জানান বলে নিশ্চিত করেন ওই উপকেন্দ্রে কর্তব্যরত পুলিশ কর্মকর্তা।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে রামদাস মুন্সীর হাট তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশ এসআই রাকিবুল ইসলাম বলেন, রোববার ওই তরুণী ফাঁড়িতে এসেছেন। ভিকটিমের পক্ষে এখনো থানায় মামলার এজাহার না দেওয়ায় এখনো মামলা রুজু করা হয়নি। তবে ভিকটিমের বর্ণনামতে আমরা দায়ী ব্যক্তিকে আটকের চেষ্টা চালাচ্ছি।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন