শ্রমিক লীগ নেতার ওপর হামলায় ভাইস চেয়ারম্যান আটক
jugantor
শ্রমিক লীগ নেতার ওপর হামলায় ভাইস চেয়ারম্যান আটক

  নওগাঁ প্রতিনিধি  

১৭ মে ২০২১, ১৩:৩৫:২৮  |  অনলাইন সংস্করণ

মমতাজ বেগম

নওগাঁর আত্রাই উপজেলা জাতীয় শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক সরদার শোয়েবের (৪২) ওপর অতর্কিত হামলার ঘটনায় ১২ জনকে আসামি করে মামলা করা হয়েছে।

সোমবার সকালে আহতের স্ত্রী সাবরিনা সুলতানা বাদী হয়ে মামলা করেন। মামলার এক নম্বর আসামি আত্রাই উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মমতাজ বেগমকে আটক করা হয়েছে।

এর আগে রোববার দুপুরে উপজেলা নিউমার্কেটের দ্বিতীয় তলায় সরদার শোয়েবের অফিসে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মমতাজ বেগমের ছেলে ক্যাডার বাহিনী মির্জা রাব্বীর বিরুদ্ধে হামলার অভিযোগ ওঠে। এতে তার শরীরের বিভিন্ন জায়গায় গুরুতর জখম হয়েছে। তার উন্নত চিকিৎসার জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে।

জানা গেছে, সরদার শোয়েব প্রতিদিনের ন্যায় রোববার দুপুরে উপজেলা নিউমার্কেটে ঠিকাদারি কাজে ব্যক্তিগত অফিসে যান। হঠাৎ মির্জা রাব্বী তার দলবল নিয়ে সরদার শোয়েবের ওপর অতর্কিত হামলা চালিয়ে শরীরের বিভিন্ন জায়গায় ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করে ফেলে রেখে চলে যায়।

বাজারের লোকজন জানতে পেয়ে তাকে উদ্ধার করে প্রথমে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়। অবস্থা গুরুতর হওয়ায় উন্নত চিকিৎসার জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে। হামলার পর জড়িত থাকার অভিযোগে মমতাজ বেগমকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় নেওয়া হয়েছিল। অবশেষে তাকে আটক দেখিয়ে মামলা হয়েছে।

আত্রাই থানার ওসি আবুল কালাম আজাদ বলেন, সরদার শোয়েবের সঙ্গে তাদের ব্যবসা নিয়ে আর্থিক লেনদেন ছিল। এর সূত্র ধরেই তার ওপর হামলা হয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য মমতাজ বেগমকে থানায় নেওয়া হয়েছে। আহতের স্ত্রী বাদী হয়ে মমতাজ বেগমের নির্দেশে হামলা হয়েছে মর্মে তাকেসহ ১২ জনকে আসামি করে মামলা করেছেন।

মামলার পর সোমবার তাকে নওগাঁ আদালতে পাঠানো হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে তদন্ত করা হচ্ছে। বাকি আসামিদের আটকের চেষ্টা চলছে।

শ্রমিক লীগ নেতার ওপর হামলায় ভাইস চেয়ারম্যান আটক

 নওগাঁ প্রতিনিধি 
১৭ মে ২০২১, ০১:৩৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
মমতাজ বেগম
মমতাজ বেগম। ছবি: যুগান্তর

নওগাঁর আত্রাই উপজেলা জাতীয় শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক সরদার শোয়েবের (৪২) ওপর অতর্কিত হামলার ঘটনায় ১২ জনকে আসামি করে মামলা করা হয়েছে।

সোমবার সকালে আহতের স্ত্রী সাবরিনা সুলতানা বাদী হয়ে মামলা করেন। মামলার এক নম্বর আসামি আত্রাই উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মমতাজ বেগমকে আটক করা হয়েছে।

এর আগে রোববার দুপুরে উপজেলা নিউমার্কেটের দ্বিতীয় তলায় সরদার শোয়েবের অফিসে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মমতাজ বেগমের ছেলে ক্যাডার বাহিনী মির্জা রাব্বীর বিরুদ্ধে হামলার অভিযোগ ওঠে।  এতে তার শরীরের বিভিন্ন জায়গায় গুরুতর জখম হয়েছে। তার উন্নত চিকিৎসার জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে।

জানা গেছে, সরদার শোয়েব প্রতিদিনের ন্যায় রোববার দুপুরে উপজেলা নিউমার্কেটে ঠিকাদারি কাজে ব্যক্তিগত অফিসে যান। হঠাৎ মির্জা রাব্বী তার দলবল নিয়ে সরদার শোয়েবের ওপর অতর্কিত হামলা চালিয়ে শরীরের বিভিন্ন জায়গায় ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করে ফেলে রেখে চলে যায়।

বাজারের লোকজন জানতে পেয়ে তাকে উদ্ধার করে প্রথমে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়। অবস্থা গুরুতর হওয়ায় উন্নত চিকিৎসার জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে। হামলার পর জড়িত থাকার অভিযোগে মমতাজ বেগমকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় নেওয়া হয়েছিল। অবশেষে তাকে আটক দেখিয়ে মামলা হয়েছে।

আত্রাই থানার ওসি আবুল কালাম আজাদ বলেন, সরদার শোয়েবের সঙ্গে তাদের ব্যবসা নিয়ে আর্থিক লেনদেন ছিল। এর সূত্র ধরেই তার ওপর হামলা হয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য মমতাজ বেগমকে থানায় নেওয়া হয়েছে। আহতের স্ত্রী বাদী হয়ে মমতাজ বেগমের নির্দেশে হামলা হয়েছে মর্মে তাকেসহ ১২ জনকে আসামি করে মামলা করেছেন।

মামলার পর সোমবার তাকে নওগাঁ আদালতে পাঠানো হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে তদন্ত করা হচ্ছে। বাকি আসামিদের আটকের চেষ্টা চলছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন