স্বামীর পরকীয়া নিয়ে ঝগড়ায় প্রাণ দিলেন গৃহবধূ
jugantor
স্বামীর পরকীয়া নিয়ে ঝগড়ায় প্রাণ দিলেন গৃহবধূ

  ভাঙ্গুড়া (পাবনা) প্রতিনিধি  

১৮ মে ২০২১, ১৪:২১:২৬  |  অনলাইন সংস্করণ

স্বামীর পরকীয়া নিয়ে ঝগড়ায় প্রাণ দিলেন গৃহবধূ

পাবনার ভাঙ্গুড়া উপজেলায় স্বামীর পরকীয়া নিয়ে ঝগড়ায় রেখা খাতুন (৩০) নামে এক গৃহবধূ আত্মহত্যা করেছেন।

সোমবার দুপুরে পরকীয়া নিয়ে স্বামীর সঙ্গে ঝগড়া শেষে কীটনাশক পান করে আত্মহত্যা করেন তিনি।

নিহত রেখা উপজেলার উত্তর সারুটিয়া গ্রামের হাসিনুর রহমানের স্ত্রী।

নিহতের স্বজনরা জানান, রেখা তার স্বামীর পরকীয়ার বিষয়টি একাধিকবার জানিয়েছিলেন। এ বিষয়টি নিয়ে তাদের মধ্যে ঝগড়া হতো। এমনকি স্বামীর সঙ্গে থাকা পরকীয়া প্রেমিকার পরিচয় রেখা তার বাবাকে জানায়।

রেখার প্রতিবেশীদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, প্রায় ১৬ বছর আগে রেখা ও হাসিনুর রহমানের বিয়ে হয়। সংসারে তাদের তিন সন্তান রয়েছে।

গত প্রায় এক বছর আগে হাসিনুর পরকীয়ায় জড়িয়ে পড়ে। এ নিয়ে প্রায়ই তাদের ঝগড়া হতো। ঘটনার দিনেও হাসিনুর এ বিষয় নিয়ে রেখাকে মারধর করে। ক্ষোভে রেখা খাতুন ঘরে রাখা কীটনাশক পান করেন।

হাসিনুর স্ত্রীর অসুস্থতা দেখেও তাকে প্রায় ২ ঘণ্টা পর হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখানে দায়িত্বরত চিকিৎসক রেখাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।

ভাঙ্গুড়া থানার ওসি মুহম্মদ আনোয়ার হোসেন জানান, পারিবারিক কলহের জেরে রেখা খাতুন কীটনাশক পান করেছিল। কীটনাশক পানে তার মৃত্যু হয়েছে। বিষয়টি অধিকতর তদন্তের জন্য মঙ্গলবার ময়নাতদন্ত শেষে মরদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। এ বিষয়ে কোনো অভিযোগ না থাকায় একটি অপমৃত্যু মামলা নথিভুক্ত করা হয়েছে।

স্বামীর পরকীয়া নিয়ে ঝগড়ায় প্রাণ দিলেন গৃহবধূ

 ভাঙ্গুড়া (পাবনা) প্রতিনিধি 
১৮ মে ২০২১, ০২:২১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
স্বামীর পরকীয়া নিয়ে ঝগড়ায় প্রাণ দিলেন গৃহবধূ
ফাইল ছবি

পাবনার ভাঙ্গুড়া উপজেলায় স্বামীর পরকীয়া নিয়ে ঝগড়ায় রেখা খাতুন (৩০) নামে এক গৃহবধূ আত্মহত্যা করেছেন।

সোমবার দুপুরে পরকীয়া নিয়ে স্বামীর সঙ্গে ঝগড়া শেষে কীটনাশক পান করে আত্মহত্যা করেন তিনি।

নিহত রেখা উপজেলার উত্তর সারুটিয়া গ্রামের হাসিনুর রহমানের স্ত্রী।

নিহতের স্বজনরা জানান, রেখা তার স্বামীর পরকীয়ার বিষয়টি একাধিকবার জানিয়েছিলেন।  এ বিষয়টি নিয়ে তাদের মধ্যে ঝগড়া হতো। এমনকি স্বামীর সঙ্গে থাকা পরকীয়া প্রেমিকার পরিচয় রেখা তার বাবাকে জানায়।

রেখার প্রতিবেশীদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, প্রায় ১৬ বছর আগে রেখা ও হাসিনুর রহমানের বিয়ে হয়।  সংসারে তাদের তিন সন্তান রয়েছে।

গত প্রায় এক বছর আগে হাসিনুর পরকীয়ায় জড়িয়ে পড়ে। এ নিয়ে প্রায়ই তাদের ঝগড়া হতো। ঘটনার দিনেও হাসিনুর এ বিষয় নিয়ে রেখাকে মারধর করে। ক্ষোভে রেখা খাতুন ঘরে রাখা কীটনাশক পান করেন।

হাসিনুর স্ত্রীর অসুস্থতা দেখেও তাকে প্রায় ২ ঘণ্টা পর হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখানে দায়িত্বরত চিকিৎসক রেখাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।

ভাঙ্গুড়া থানার ওসি মুহম্মদ আনোয়ার হোসেন জানান, পারিবারিক কলহের জেরে রেখা খাতুন কীটনাশক পান করেছিল। কীটনাশক পানে তার মৃত্যু হয়েছে। বিষয়টি অধিকতর তদন্তের জন্য মঙ্গলবার ময়নাতদন্ত শেষে মরদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। এ বিষয়ে কোনো অভিযোগ না থাকায় একটি অপমৃত্যু মামলা নথিভুক্ত করা হয়েছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন