স্ত্রীকে গলা কেটে হত্যার পর বিছানায় শুইয়ে রাখে স্বামী
jugantor
স্ত্রীকে গলা কেটে হত্যার পর বিছানায় শুইয়ে রাখে স্বামী

  বুড়িচং (কুমিল্লা) প্রতিনিধি  

১৯ মে ২০২১, ০২:৩০:২৫  |  অনলাইন সংস্করণ

কুমিল্লার বুড়িচং উপজেলার জগতপুর গ্রামে স্ত্রীকে গলা কেটে হত্যা করল পাষণ্ড স্বামী। হত্যার পর স্ত্রী রিমা আক্তারের নিথর দেহ বিছানায় শুইয়ে রেখে বাড়ি থেকে পালিয়েছেন স্বামী রমজান আলী সোহাগ।

মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে আলামত সংগ্রহের জন্য ঘটনাস্থলে পৌঁছায় পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)। আলামত সংগ্রহ শেষে ময়নাতদন্তের জন্য লাশ কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

স্থানীয় ও পরিবারের লোকজন জানান, জেলার বুড়িচং উপজেলা সদর ইউনিয়নের জগতপুর গ্রামের রমজান আলীর সঙ্গে ১০ বছর পূর্বে বিয়ে হয় জেলার আদর্শ সদরের কাপ্তান বাজার এলাকার জাহাঙ্গীর আলমের কন্যা রিমা আক্তারের। তাদের সাত বছরের একটি কন্যা রয়েছে।

রমজান সীতাকুণ্ডের একটি শিপইয়ার্ডে শ্রমিক হিসেবে কাজ করেন। ঈদের ছুটিতে বাড়িতে বাড়িতে এসেছেন। স্ত্রী রিমার সঙ্গে তার দাম্পত্য কলহ চলছিল।

পুলিশ জানায়, মঙ্গলবার দুপুর দিকে রমজানের মা, মেয়ে তাকিয়া, ছোট ভাই ও তার স্ত্রী কোটবাড়ী বিনোদন কেন্দ্রে বেড়াতে যায়। বাড়িতে তখন রমজান ও রিমা ছিল। বিকাল ৩টার দিকে রমজানের এক আত্মীয় ওই বাড়িতে যান। ঘরের দরজা খোলা দেখে ভেতরে গিয়ে দেখেন- খাটের বিছানার ওপর রিমার গলাকাটা দেহ পড়ে আছে। খবর পেয়ে বুড়িচং থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হন।

বুড়িচং থানার ওসি মোজাম্মেল হক জানান, ঘটনাস্থলে পৌঁছার পর তারা সিআইডিকে আলামত সংগ্রহের জন্য খবর দেন। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। রিমার স্বামী পলাতক। রিমার গলাকাটা লাশ বিছানায় ওপর শোয়ানো অবস্থায় পাওয়া যায়। নিহত রিমা আক্তারের স্বামী রমজানকে আটকের চেষ্টা চলছে বলেও জানান।

স্ত্রীকে গলা কেটে হত্যার পর বিছানায় শুইয়ে রাখে স্বামী

 বুড়িচং (কুমিল্লা) প্রতিনিধি 
১৯ মে ২০২১, ০২:৩০ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

কুমিল্লার বুড়িচং উপজেলার জগতপুর গ্রামে স্ত্রীকে গলা কেটে হত্যা করল পাষণ্ড  স্বামী। হত্যার পর স্ত্রী রিমা আক্তারের নিথর দেহ বিছানায় শুইয়ে রেখে বাড়ি থেকে পালিয়েছেন স্বামী রমজান আলী সোহাগ।

মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে আলামত সংগ্রহের জন্য ঘটনাস্থলে পৌঁছায় পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)। আলামত সংগ্রহ শেষে ময়নাতদন্তের জন্য লাশ কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। 

স্থানীয় ও পরিবারের লোকজন জানান, জেলার বুড়িচং উপজেলা সদর ইউনিয়নের জগতপুর গ্রামের রমজান আলীর সঙ্গে ১০ বছর পূর্বে বিয়ে হয় জেলার আদর্শ সদরের কাপ্তান বাজার এলাকার জাহাঙ্গীর আলমের কন্যা রিমা আক্তারের। তাদের সাত বছরের একটি কন্যা রয়েছে।

রমজান সীতাকুণ্ডের একটি শিপইয়ার্ডে শ্রমিক হিসেবে কাজ করেন। ঈদের ছুটিতে বাড়িতে বাড়িতে এসেছেন। স্ত্রী রিমার সঙ্গে তার দাম্পত্য কলহ চলছিল।

পুলিশ জানায়, মঙ্গলবার দুপুর দিকে রমজানের মা, মেয়ে তাকিয়া, ছোট ভাই ও তার স্ত্রী কোটবাড়ী বিনোদন কেন্দ্রে বেড়াতে যায়। বাড়িতে তখন রমজান ও রিমা ছিল। বিকাল ৩টার দিকে রমজানের এক আত্মীয় ওই বাড়িতে যান। ঘরের দরজা খোলা দেখে ভেতরে গিয়ে দেখেন- খাটের বিছানার ওপর রিমার গলাকাটা দেহ পড়ে আছে। খবর পেয়ে বুড়িচং থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হন।

বুড়িচং থানার ওসি মোজাম্মেল হক জানান, ঘটনাস্থলে পৌঁছার পর তারা সিআইডিকে আলামত সংগ্রহের জন্য খবর দেন। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। রিমার স্বামী পলাতক। রিমার গলাকাটা লাশ বিছানায় ওপর শোয়ানো অবস্থায় পাওয়া যায়। নিহত রিমা আক্তারের স্বামী রমজানকে আটকের চেষ্টা চলছে বলেও জানান।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন