জগন্নাথপুরে সংঘর্ষে আহত যুবকের মৃত্যু, গ্রেফতার ৩
jugantor
জগন্নাথপুরে সংঘর্ষে আহত যুবকের মৃত্যু, গ্রেফতার ৩

  জগন্নাথপুর (সুনামগঞ্জ) প্রতিনিধি  

১৯ মে ২০২১, ১৫:০৩:৫৭  |  অনলাইন সংস্করণ

উজ্জ্বল চৌধুরী

সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলায় সংঘর্ষে আহত উজ্জ্বল চৌধুরী (২৯) নামে এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে।

মঙ্গলবার রাতে রাজধানীর ধানমণ্ডির নিউ গ্রিনলাইফ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থেকে তিনি মারা যান।

নিহত উজ্জ্বল চৌধুরী ছাতক উপজেলার পূর্ব বসন্তপুর গ্রামের মৃত আকলু মিয়ার ছেলে।

এদিকে এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে তিনজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তারা হলো— জগন্নাথপুরের কচুরকান্দি গ্রামের আশিক আলী, আ. হাশিম ও আতিবুল হক। তবে হাশিম ও আতিবুল হকের পুলিশি প্রহরায় হাসপাতালে চিকিৎসা চলছে।

এলাকাবাসী সূত্র জানায়, সোমবার বিকালে জগন্নাথপুর উপজেলার মোহাম্মদগঞ্জ বাজারে কচুরকান্দি গ্রামে ফজিজুল ইসলাম ও ছাতক উপজেলার পূর্ব বসন্তপুর গ্রামের খালিছ মিয়ার মধ্যে সরকারি জায়গা নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল।
সম্প্রতি খালিছ মিয়ার লোকজন সরকারি জায়গায় দোকানঘর নির্মাণ করলে উভয়পক্ষের মধ্যে বিরোধ দেখা দেয়।

এ সময় উভয়পক্ষের লোকজন সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়লে এতে কমপক্ষে ২০ জন আহত হন। তার মধ্যে খালিছ মিয়ার ভাতিজা উজ্জ্বল চৌধুরীর (২৮) অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় সোমবার রাতে তাকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে ঢাকায় স্থানান্তর করা হয়।

সেখানে একটি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থেকে মঙ্গলবার রাতে তিনি মারা যান।

এ ঘটনায় আহত অপর চারজনকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এদিকে ওই যুবকের মৃত্যুর সংবাদ ছড়িয়ে পড়লে এলাকায় দুপক্ষের মধ্যে আবারও উত্তেজনা বিরাজ করে। খবর পেয়ে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়।

বুধবার সুনামগঞ্জের সহকারী পুলিশ সুপার সার্কেল কামরুল ইসলাম যুগান্তরকে বলেন, আর কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা যাতে না ঘটে, সে জন্য আমরা তৎপর রয়েছি এবং ঘটনার সঙ্গে জড়িত তিনজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

জগন্নাথপুর থানার ওসি ইখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরী জানান, ঘটনার সঙ্গে জড়িত তিনজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাদীপক্ষ মরদেহ দাফনে ব্যস্ত থাকায় এখনও মামলা রেকর্ড হয়নি; তবে প্রক্রিয়া চলছে।

জগন্নাথপুরে সংঘর্ষে আহত যুবকের মৃত্যু, গ্রেফতার ৩

 জগন্নাথপুর (সুনামগঞ্জ) প্রতিনিধি 
১৯ মে ২০২১, ০৩:০৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
উজ্জ্বল চৌধুরী
উজ্জ্বল চৌধুরী। ছবি: যুগান্তর

সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলায় সংঘর্ষে আহত উজ্জ্বল চৌধুরী (২৯) নামে এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে।

মঙ্গলবার রাতে রাজধানীর ধানমণ্ডির নিউ গ্রিনলাইফ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থেকে তিনি মারা যান।

নিহত উজ্জ্বল চৌধুরী ছাতক উপজেলার পূর্ব বসন্তপুর গ্রামের মৃত আকলু মিয়ার ছেলে।

এদিকে এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে তিনজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তারা হলো— জগন্নাথপুরের কচুরকান্দি গ্রামের আশিক আলী, আ. হাশিম ও আতিবুল হক। তবে হাশিম ও আতিবুল হকের পুলিশি প্রহরায় হাসপাতালে চিকিৎসা চলছে।

এলাকাবাসী সূত্র জানায়, সোমবার বিকালে জগন্নাথপুর উপজেলার মোহাম্মদগঞ্জ বাজারে কচুরকান্দি গ্রামে ফজিজুল ইসলাম ও ছাতক উপজেলার পূর্ব বসন্তপুর গ্রামের খালিছ মিয়ার মধ্যে সরকারি জায়গা নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল।
সম্প্রতি খালিছ মিয়ার লোকজন সরকারি জায়গায় দোকানঘর নির্মাণ করলে উভয়পক্ষের মধ্যে বিরোধ দেখা দেয়।

এ সময় উভয়পক্ষের লোকজন সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়লে এতে কমপক্ষে ২০ জন আহত হন। তার মধ্যে খালিছ মিয়ার ভাতিজা উজ্জ্বল চৌধুরীর (২৮) অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় সোমবার রাতে তাকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে ঢাকায় স্থানান্তর করা হয়।

সেখানে একটি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থেকে মঙ্গলবার রাতে তিনি মারা যান।

এ ঘটনায় আহত অপর চারজনকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এদিকে  ওই যুবকের মৃত্যুর সংবাদ ছড়িয়ে পড়লে এলাকায় দুপক্ষের মধ্যে  আবারও উত্তেজনা বিরাজ করে। খবর পেয়ে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়।

বুধবার সুনামগঞ্জের সহকারী পুলিশ সুপার সার্কেল কামরুল ইসলাম যুগান্তরকে বলেন, আর কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা যাতে না ঘটে, সে জন্য আমরা তৎপর রয়েছি এবং ঘটনার সঙ্গে জড়িত তিনজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

জগন্নাথপুর থানার ওসি ইখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরী জানান, ঘটনার সঙ্গে জড়িত তিনজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।  বাদীপক্ষ মরদেহ দাফনে ব্যস্ত থাকায় এখনও মামলা রেকর্ড হয়নি; তবে প্রক্রিয়া চলছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন