প্রতিবন্ধী নারীকে গণধর্ষণে অন্তঃসত্ত্বা, সাবেক ইউপি সদস্য গ্রেফতার

  কোটালীপাড়া (গোপালগঞ্জ) প্রতিনিধি ২৫ এপ্রিল ২০১৮, ১৭:৪২ | অনলাইন সংস্করণ

কোটালীপাড়া
প্রতীকী ছবি

মানসিক প্রতিবন্ধী ও স্বামী পরিত্যক্তা এক নারী গণধর্ষণে সাত মাসের অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়েছেন। আর এ ঘটনায় চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতে সাবেক ইউপি সদস্যসহ পাঁচজনকে আসামি করে আদালতে মামলা দায়ের করেন নির্যাতিতার বোন। এ মামলার আসামিরা ওই নারীকে প্রায়ই মামলা তুলে নিতে হুমকি দিত।

মামলা তুলে না নেয়ার ক্ষোভে ওই অন্তঃসত্ত্বাকে পিটিয়ে গুরুতর আহত করেছে অভিযুক্তরা। এ ঘটনায় মামলার প্রধান আসামিকে পুলিশ গ্রেফতার করেছে। আর এমন ঘটনা ঘটেছে গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়ায়।

মামলার আসামিরা হলেন উপজেলার কাচারিভিটা গ্রামের আব্দুল জব্বার শেখের ছেলে নজরুল ইসলাম শেখ ওরফে বাবুল (৪৬), মুনসুর শেখের ছেলে কবির শেখ (৩৮), আফছের হাওলাদারের ছেলে নুরুল ইসলাম হাওলাদার (৩৮), মনিন্দ্র বিশ্বাসের ছেলে চীকমনি বিশ্বাস (৫৫) ও একই উপজেলার নয়াকান্দি গ্রামের মনিন্দ্র বিশ্বাসের ছেলে অনিল বিশ্বাস (৩৫)।

গ্রেফতারকৃত সাবেক ইউপি সদস্য নজরুল ইসলাম ওরফে বাবুল (৪৬) উপজেলার কাচারিভিটা গ্রামের আব্দুল জব্বার শেখের ছেলে।

বুধবার সকালে উপজেলার ওই গ্রাম থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এর আগে মঙ্গলবার দুপুরে কোটালীপাড়া উপজেলার নয়াকান্দি গ্রামে ওই নারীকে মারধর করা হয়েছে। পরে সন্ধ্যায় তাকে গোপালগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

নির্যাতিতা নারীর বোন ও মামলার বাদী মুক্তি বেগম বলেন, মানসিক সমস্যার কারণে প্রায় ৮-১০ বছর আগে আমার বোনকে তার স্বামী ছেড়ে দেয়। এরপর থেকে সে বাবার বাড়িতে বসবাস করত।

গত বছরের ২ অক্টোবর ৪-৫ জন যুবক আমার বোনকে ধর্ষণ করে।

এ ঘটনায় চলতি বছরের ২৭ ফেব্রুয়ারি পাঁচজনকে আসামি করে গোপালগঞ্জ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে একটি মামলা করা হয়।

মামলার পর থেকেই আসামিরা জীবননাশসহ বিভিন্নভাবে হুমকি দিয়ে আসছিলেন। এরই ধারাবাহিকতায়

মঙ্গলবার দুপুরে সাত মাসের অন্তঃসত্ত্বা বোনকে আসামিরা মারধর করে মারাত্মক আহত করে।

গোপালগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. নাজমুল হক জানান, অন্তঃসত্ত্বা এক নারীকে আমরা হাসপাতালে ভর্তি করেছি। তার শরীরের বিভিন্নস্থানে আঘাতের চিহ্ণ রয়েছে।

কোটালীপাড়া থানার ওসি মোহাম্মদ কামরুল ফারুক জানিয়েছেন, এ ঘটনার পর প্রধান আসামি নজরুল ইসলাম শেখকে গ্রেফতার করে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। অন্য আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter
×