অনৈতিক কাজে লিপ্ত ছাত্রলীগ নেতা তরুণীসহ আটক
jugantor
অনৈতিক কাজে লিপ্ত ছাত্রলীগ নেতা তরুণীসহ আটক

  বাহুবল (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি  

২৩ মে ২০২১, ২২:১৪:৩৮  |  অনলাইন সংস্করণ

হবিগঞ্জের বাহুবলে অনৈতিক কাজে লিপ্ত থাকা অবস্থায় ছাত্রলীগ নেতা রায়হান শাহ ও এক তরুণীকে আটক করেছে জনতা। খবর পেয়ে বাহুবল মডেল থানার এএসআই অমল তাদের আটক করে থানায় নিয়ে আসেন। পরে মুচলেকার মাধ্যমে তাদের ছেড়ে দেয় পুলিশ।

শনিবার দুপুরে মডেল থানার সামনে মাদ্রাসা মার্কেটের একটি বন্ধ দোকান থেকে তাদের আটক করা হয়।

আটককৃত ছাত্রলীগ নেতা উপজেলার সাতপাড়িয়া গ্রামের মৃত আব্দুল গফুর আল হাবিবের ছেলে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ছাত্রলীগ নেতা রায়হান শাহ বাহুবল মাদ্রাসা মার্কেটে একটি দোকান ভাড়া নিয়ে সেখানে গ্লাস ফিটিং করা হাবিব ট্রাভেলস নামে একটি ব্যবসা চালিয়ে আসছেন। সেই ব্যবসার আড়ালে তিনি সেখানেই প্রায়ই তরুণীদের নিয়ে আড্ডা দেন। শনিবার দুপুরে ট্রাভেলসের গ্লাস ও ভিতরে বাতি বন্ধ করে তরুণীকে নিয়ে অনৈতিক কাজে লিপ্ত হন তিনি।

বিষয়টি আঁচ করতে পেরে তাৎক্ষণিক মার্কেটের ব্যবসায়ীরা থানায় খবর দেন। খবর পেয়ে পুলিশ তাদের উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। আটকের পরপরই তাকে ছাড়িয়ে নিতে তদবির চালান আওয়ামী লীগ নেতারা। অবশেষে রাতে মুচলেকা রেখে তাদের ছেড়ে দেয় পুলিশ।

এদিকে তাদের আটক করায় মাদ্রাসা মার্কেটের ব্যবসায়ীদের মাঝে স্বস্তি ফিরে এলেও তাদের ছেড়ে দেয়ায় ক্ষুব্ধ হন অনেকে।

এ ব্যাপারে বাহুবল মডেল থানার ওসি তদন্ত আলমগীর কবীর বলেন, তারা একজন আরেকজনকে ভালোবাসে, দোকানে বসে তারা গল্প করছিল। সেখানে তেমন কিছু হয়নি, হয়ত কেউ পুলিশকে ভুল তথ্য দিয়ে সেখানে নিয়ে গিয়েছিল। তাছাড়া মেয়ের বয়স ১৫ বছর। উভয়ের মা-বাবার কাছে তাদের বুঝিয়ে দেয়া হয়েছে।

অনৈতিক কাজে লিপ্ত ছাত্রলীগ নেতা তরুণীসহ আটক

 বাহুবল (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি 
২৩ মে ২০২১, ১০:১৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

হবিগঞ্জের বাহুবলে অনৈতিক কাজে লিপ্ত থাকা অবস্থায় ছাত্রলীগ নেতা রায়হান শাহ ও এক তরুণীকে আটক করেছে জনতা। খবর পেয়ে বাহুবল মডেল থানার এএসআই অমল তাদের আটক করে থানায় নিয়ে আসেন। পরে মুচলেকার মাধ্যমে তাদের ছেড়ে দেয় পুলিশ।

শনিবার দুপুরে মডেল থানার সামনে মাদ্রাসা মার্কেটের একটি বন্ধ দোকান থেকে তাদের আটক করা হয়।

আটককৃত ছাত্রলীগ নেতা উপজেলার সাতপাড়িয়া গ্রামের মৃত আব্দুল গফুর আল হাবিবের ছেলে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ছাত্রলীগ নেতা রায়হান শাহ বাহুবল মাদ্রাসা মার্কেটে একটি দোকান ভাড়া নিয়ে সেখানে গ্লাস ফিটিং করা হাবিব ট্রাভেলস নামে একটি ব্যবসা চালিয়ে আসছেন। সেই ব্যবসার আড়ালে তিনি সেখানেই প্রায়ই তরুণীদের নিয়ে আড্ডা দেন। শনিবার দুপুরে ট্রাভেলসের গ্লাস ও ভিতরে বাতি বন্ধ করে তরুণীকে নিয়ে অনৈতিক কাজে লিপ্ত হন তিনি।

বিষয়টি আঁচ করতে পেরে তাৎক্ষণিক মার্কেটের ব্যবসায়ীরা থানায় খবর দেন। খবর পেয়ে পুলিশ তাদের উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। আটকের পরপরই তাকে ছাড়িয়ে নিতে তদবির চালান আওয়ামী লীগ নেতারা। অবশেষে রাতে মুচলেকা রেখে তাদের ছেড়ে দেয় পুলিশ।

এদিকে তাদের আটক করায় মাদ্রাসা মার্কেটের ব্যবসায়ীদের মাঝে স্বস্তি ফিরে এলেও তাদের ছেড়ে দেয়ায় ক্ষুব্ধ হন অনেকে।

এ ব্যাপারে বাহুবল মডেল থানার ওসি তদন্ত আলমগীর কবীর বলেন, তারা একজন আরেকজনকে ভালোবাসে, দোকানে বসে তারা গল্প করছিল। সেখানে তেমন কিছু হয়নি, হয়ত কেউ পুলিশকে ভুল তথ্য দিয়ে সেখানে নিয়ে গিয়েছিল। তাছাড়া মেয়ের বয়স ১৫ বছর। উভয়ের মা-বাবার কাছে তাদের বুঝিয়ে দেয়া হয়েছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন