হবিগঞ্জে ফুটবল খেলা নিয়ে সংঘর্ষে যুবক নিহত
jugantor
হবিগঞ্জে ফুটবল খেলা নিয়ে সংঘর্ষে যুবক নিহত

  নবীগঞ্জ (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি  

২৪ মে ২০২১, ১৪:০৭:০৮  |  অনলাইন সংস্করণ

সংঘর্ষ

হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ উপজেলায় ফুটবল খেলা নিয়ে দুপক্ষের সংঘর্ষে দেলোয়ার হোসেন (৩০) নামে এক যুবক নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও ১৫ জন।

রোববার রাত ১০টার দিকে নবীগঞ্জ উপজেলার দেবপাড়া ইউনিয়নের কালা বহরপুর গ্রামের বাজারে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত দেলোয়ার হোসেন ওই গ্রামের আব্দুস শহীদের ছেলে।

স্থানীয়রা জানান, গত শুক্রবার বিকালে উপজেলার দেবপাড়া ইউনিয়নের কালা বহরপুর গ্রামে মাঠে ফুটবল খেলা কেন্দ্র করে দেলোয়ারের ছোট ভাই ইসলাম উদ্দিনের সঙ্গে একই গ্রামের আকল মিয়ার ছেলে নবেল মিয়ার হাতাহাতি ও একপর্যায়ে মারধরের ঘটনা ঘটে।

এর জেরে গত দুদিন ধরে এলাকায় উভয়পক্ষের লোকজনের মধ্যে উত্তেজনা দেখা দেয়।

রোববার রাত ১০টার দিকে কালাবহরপুর গ্রামের সারংবাজারে ইসলাম উদ্দিনের বড়ভাই দেলোয়ার ও নবেল মিয়ার চাচাতো ভাই অলিউর রহমান ও তাদের লোকজন সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন। সংঘর্ষে উভয়পক্ষের ১৫ জন আহত হন।

আহতদের মধ্যে দেলোয়ার মিয়া ঘাড়ে ও মাথায় গুরুতর আঘাতপ্রাপ্ত হন। পরে স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে নবীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক দেলোয়ার মিয়াকে মৃত ঘোষণা করেন। এ ঘটনায় গুরুতর আহতাবস্থায় কালাম মিয়া, আব্দুল হামিদ, আব্দুল বাসিত, রিপন মিয়া, আব্দুল মমিন, সুমন মিয়াকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

খবর পেয়ে নবীগঞ্জ থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। সুরতহাল রিপোর্ট তৈরি করে লাশ ময়নাতদন্তের জন্য হবিগঞ্জ আধুনিক সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এ ব্যাপারে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

হবিগঞ্জে ফুটবল খেলা নিয়ে সংঘর্ষে যুবক নিহত

 নবীগঞ্জ (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি 
২৪ মে ২০২১, ০২:০৭ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
সংঘর্ষ
ফাইল ছবি

হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ উপজেলায় ফুটবল খেলা নিয়ে দুপক্ষের সংঘর্ষে দেলোয়ার হোসেন (৩০) নামে এক যুবক নিহত হয়েছেন।  এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও ১৫ জন।

রোববার রাত ১০টার দিকে নবীগঞ্জ উপজেলার দেবপাড়া ইউনিয়নের কালা বহরপুর গ্রামের বাজারে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত দেলোয়ার হোসেন ওই গ্রামের আব্দুস শহীদের ছেলে।

স্থানীয়রা জানান, গত শুক্রবার বিকালে উপজেলার দেবপাড়া ইউনিয়নের কালা বহরপুর গ্রামে মাঠে ফুটবল খেলা কেন্দ্র করে দেলোয়ারের ছোট ভাই ইসলাম উদ্দিনের সঙ্গে একই গ্রামের আকল মিয়ার ছেলে নবেল মিয়ার হাতাহাতি ও একপর্যায়ে মারধরের ঘটনা ঘটে।

এর জেরে গত দুদিন ধরে এলাকায় উভয়পক্ষের লোকজনের মধ্যে উত্তেজনা দেখা দেয়।

রোববার রাত ১০টার দিকে কালাবহরপুর গ্রামের সারংবাজারে ইসলাম উদ্দিনের বড়ভাই দেলোয়ার ও নবেল মিয়ার চাচাতো ভাই অলিউর রহমান ও তাদের লোকজন সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন। সংঘর্ষে উভয়পক্ষের ১৫ জন আহত হন।

আহতদের মধ্যে দেলোয়ার মিয়া ঘাড়ে ও মাথায় গুরুতর আঘাতপ্রাপ্ত হন। পরে স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে নবীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক দেলোয়ার মিয়াকে মৃত ঘোষণা করেন। এ ঘটনায় গুরুতর আহতাবস্থায় কালাম মিয়া, আব্দুল হামিদ, আব্দুল বাসিত, রিপন মিয়া, আব্দুল মমিন, সুমন মিয়াকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

খবর পেয়ে নবীগঞ্জ থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। সুরতহাল রিপোর্ট তৈরি করে লাশ ময়নাতদন্তের জন্য হবিগঞ্জ আধুনিক সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এ ব্যাপারে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন