রক্তের দাগে সেপটিক ট্যাংকে মিলল নারীর লাশ
jugantor
রক্তের দাগে সেপটিক ট্যাংকে মিলল নারীর লাশ

  কালিয়াকৈর (গাজীপুর) প্রতিনিধি  

২৬ মে ২০২১, ১৮:৩৬:২৮  |  অনলাইন সংস্করণ

গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলায় রক্তের দাগের সূত্র ধরে সেপটিক ট্যাংকে মিলল সেতু আক্তার (২০) নামে এক নারীর লাশ। বুধবার দুপুরে উপজেলার বাশাকৈর কম্বলপাড়া এলাকা থেকে তার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

নিহত সেতু আক্তার উপজেলার কম্বলপাড়া এলাকার রাসেল মিয়ার স্ত্রী। এ ঘটনায় আরিফ ও রাসেল নামে দুইজনকে আটক করা হয়েছে।

এলাকাবাসী ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, বুধবার সকালে পরিবারের লোকজন ঘুম থেকে উঠে সেতু আক্তারকে না পেয়ে সম্ভাব্য স্থানগুলোতে অনেক খোঁজাখুঁজি করেন। খোঁজাখুঁজির একপর্যায়ে বাড়ির পাশে এক স্থানে রক্তের দাগ দেখতে পান স্বজনরা। পরে রক্তের দাগের সূত্র ধরে সেপটিক ট্যাংকের ভিতরে সেতুর লাশ পাওয়া যায়। পরিবারের লোকজন বিষয়টি থানা পুলিশকে জানান।

খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে লাশটি উদ্ধার করে। এ সময় নিহতের নাকে, মুখে, মাথায় এবং গলায় আঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায়। এ ঘটনায় পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আরিফ ও রাসেল নামে দুইজনকে আটক করেছে।

কালিয়াকৈর থানার ওসি মনোয়ার হোসেন চৌধুরী জানান, ঘটনাস্থল থেকে নিহতের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। ময়নাতদন্তের জন্য নিহতের লাশ গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে- অসামাজিক কার্যকলাপকে কেন্দ্র করে এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। তবে প্রতিবেদনের রিপোর্ট পাওয়ার পর ঘটনার সঠিক তথ্য জানা যাবে। এছাড়া ঘটনায় দুইজনকে আটক করা হয়েছে এবং মামলার প্রস্তুতি চলছে বলেও জানান তিনি।

রক্তের দাগে সেপটিক ট্যাংকে মিলল নারীর লাশ

 কালিয়াকৈর (গাজীপুর) প্রতিনিধি 
২৬ মে ২০২১, ০৬:৩৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলায় রক্তের দাগের সূত্র ধরে সেপটিক ট্যাংকে মিলল সেতু আক্তার (২০) নামে এক নারীর লাশ। বুধবার দুপুরে উপজেলার বাশাকৈর কম্বলপাড়া এলাকা থেকে তার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

নিহত সেতু আক্তার উপজেলার কম্বলপাড়া এলাকার রাসেল মিয়ার স্ত্রী। এ ঘটনায় আরিফ ও রাসেল নামে দুইজনকে আটক করা হয়েছে।

এলাকাবাসী ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, বুধবার সকালে পরিবারের লোকজন ঘুম থেকে উঠে সেতু আক্তারকে না পেয়ে সম্ভাব্য স্থানগুলোতে অনেক খোঁজাখুঁজি করেন। খোঁজাখুঁজির একপর্যায়ে বাড়ির পাশে এক স্থানে রক্তের দাগ দেখতে পান স্বজনরা। পরে রক্তের দাগের সূত্র ধরে সেপটিক ট্যাংকের ভিতরে সেতুর লাশ পাওয়া যায়। পরিবারের লোকজন বিষয়টি থানা পুলিশকে জানান।

খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে লাশটি উদ্ধার করে। এ সময় নিহতের নাকে, মুখে, মাথায় এবং গলায় আঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায়। এ ঘটনায় পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আরিফ ও রাসেল নামে দুইজনকে আটক করেছে।

কালিয়াকৈর থানার ওসি মনোয়ার হোসেন চৌধুরী জানান, ঘটনাস্থল থেকে নিহতের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। ময়নাতদন্তের জন্য নিহতের লাশ গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ  মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। 

প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে- অসামাজিক কার্যকলাপকে কেন্দ্র করে এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। তবে প্রতিবেদনের রিপোর্ট পাওয়ার পর ঘটনার সঠিক তথ্য জানা যাবে। এছাড়া ঘটনায় দুইজনকে আটক করা হয়েছে এবং মামলার প্রস্তুতি চলছে বলেও জানান তিনি।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন