বাবা-মায়ের সঙ্গে অভিমান করে শিশুর ‘আত্মহত্যা’
jugantor
বাবা-মায়ের সঙ্গে অভিমান করে শিশুর ‘আত্মহত্যা’

  লাকসাম (কুমিল্লা) প্রতিনিধি  

২৯ মে ২০২১, ১২:১৭:৩১  |  অনলাইন সংস্করণ

আত্মহত্যা

কুমিল্লা লাকসাম উপজেলায় বাবা-মায়ের সঙ্গে অভিমান করে ফয়সাল (১০) নামে এক শিশু গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে।

শুক্রবার রাত ৯টার দিকে পৌরশহরে পশ্চিমগাঁও মিয়াপাড়ায় এ ঘটনা ঘটে। ফয়সাল পৌরশহরে ৫নং ওয়ার্ডে মিয়াপাড়া এলাকার বাসিন্দা ইউনুস মিয়ার ছেলে।

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানাযায়, পৌরশহরে ৫নং ওয়ার্ডে মিয়াপাড়া এলাকার দিনমজুর ইউনুস মিয়ার প্রথম সংসারে তিন ছেলে সন্তান রেখে স্ত্রী মারা যান। পরে ইউনুস মিয়া পারভীনকে দ্বিতীয় বিয়ে করেন। ওই সংসারেও দুই ছেলে এক মেয়ে মধ্যে ফয়সাল বড়।

শুক্রবার সন্ধ্যায় ইউনুস মিয়ার দ্বিতীয় স্ত্রী পারভিন আক্তার ফয়সালকে একা ঘরে রেখে তার বাবারবাড়ি (পৌরসভার বাগবাড়ী) বেড়াতে যেতে চান।

এসময় নানাবাড়িতে যাওয়ার বায়না করে ফয়সাল। এতে বাবা-মায়ের সঙ্গে ফয়সালের কথা কাটাকাটি হয়। ফয়সালকে ঘরে একা রেখে বাবা-মা বেড়াতে চলে যায়।

এতে অভিমান করে রাত সাড়ে ৮টার দিকে সবার অজান্তে নিজ ঘরে ফয়সাল ঘরের সিলিংয়ের সঙ্গে কাপড় পেঁচিয়ে ফাঁস দেয়।

শনিবার সকালে এ বিষয়ে লাকসাম থানার ওসি মেজবাহ উদ্দিন ভূঁইয়া মোবাইল ফোনে জানান, এ ঘটনায় একটি অপমৃত্যুর মামলা হয়েছে, প্রাথমিক অনুসন্ধানে এটি আত্মহত্যা বলেই মনে হচ্ছে।

বাবা মায়ের সঙ্গে অভিমান করে শিশুটি আত্মহত্যার পথ বেছে নিয়েছে।

তারপরও এটি হত্যা না আত্মহত্যা সেটি নিশ্চিত করার জন্য লাশ ময়নাতদন্তের জন্য কুমিল্লা হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। প্রতিবেদন পেলে মৃত্যুর সঠিক কারণ জানা যাবে।

বাবা-মায়ের সঙ্গে অভিমান করে শিশুর ‘আত্মহত্যা’

 লাকসাম (কুমিল্লা) প্রতিনিধি 
২৯ মে ২০২১, ১২:১৭ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
আত্মহত্যা
ফাইল ছবি

কুমিল্লা লাকসাম উপজেলায় বাবা-মায়ের সঙ্গে অভিমান করে  ফয়সাল (১০) নামে এক শিশু গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে।

শুক্রবার রাত ৯টার দিকে পৌরশহরে পশ্চিমগাঁও মিয়াপাড়ায় এ ঘটনা ঘটে। ফয়সাল পৌরশহরে ৫নং ওয়ার্ডে মিয়াপাড়া এলাকার বাসিন্দা ইউনুস মিয়ার ছেলে।

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানাযায়, পৌরশহরে ৫নং ওয়ার্ডে মিয়াপাড়া এলাকার দিনমজুর ইউনুস মিয়ার প্রথম সংসারে তিন ছেলে সন্তান রেখে স্ত্রী মারা যান। পরে ইউনুস মিয়া পারভীনকে দ্বিতীয় বিয়ে করেন। ওই সংসারেও দুই ছেলে এক মেয়ে মধ্যে ফয়সাল বড়।

শুক্রবার সন্ধ্যায় ইউনুস মিয়ার দ্বিতীয় স্ত্রী পারভিন আক্তার ফয়সালকে একা ঘরে রেখে তার বাবারবাড়ি (পৌরসভার বাগবাড়ী) বেড়াতে যেতে চান।

এসময় নানাবাড়িতে যাওয়ার বায়না করে ফয়সাল। এতে বাবা-মায়ের সঙ্গে ফয়সালের কথা কাটাকাটি হয়। ফয়সালকে ঘরে একা রেখে বাবা-মা বেড়াতে চলে যায়।

এতে অভিমান করে রাত সাড়ে ৮টার দিকে সবার অজান্তে নিজ ঘরে ফয়সাল ঘরের সিলিংয়ের সঙ্গে কাপড় পেঁচিয়ে ফাঁস দেয়।

শনিবার সকালে এ বিষয়ে লাকসাম থানার ওসি মেজবাহ উদ্দিন ভূঁইয়া মোবাইল ফোনে জানান, এ ঘটনায় একটি অপমৃত্যুর মামলা হয়েছে,  প্রাথমিক অনুসন্ধানে এটি আত্মহত্যা বলেই মনে হচ্ছে।

বাবা মায়ের সঙ্গে অভিমান করে শিশুটি আত্মহত্যার পথ বেছে নিয়েছে।

তারপরও এটি হত্যা না আত্মহত্যা সেটি নিশ্চিত করার জন্য লাশ ময়নাতদন্তের জন্য কুমিল্লা হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। প্রতিবেদন পেলে মৃত্যুর সঠিক কারণ জানা যাবে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন