মোবাইল চুরির অপবাদে গাছে বেঁধে নারীসহ ৩ জনকে মারধর
jugantor
মোবাইল চুরির অপবাদে গাছে বেঁধে নারীসহ ৩ জনকে মারধর

  ব্রাহ্মণপাড়া (কুমিল্লা) প্রতিনিধি  

৩১ মে ২০২১, ১৮:০২:০০  |  অনলাইন সংস্করণ

কুমিল্লার ব্রাহ্মণপাড়া সদর ইউনিয়নের দীর্ঘভূমি গ্রামে মোবাইল চুরির অপবাদ দিয়ে গাছের সঙ্গে বেঁধে নারীসহ তিনজনকে মারধর করে আহত করার অভিযোগ উঠেছে। রোববার তাদের মারধর করে আহত করেছে প্রতিপক্ষের লোকজন।

আহতরা হলেন- নূরে আলম (২৮), মো. আলাউদ্দিন (২৫) ও হাজেরা বেগমকে (৫০)।

আহত নূরে আলম সূত্রে জানা যায়, ঘটনার দিন ৩০ মে রোববার ভোরে দীর্ঘভূমি গ্রামের সুরুজ মিয়ার ছেলে ফারুক, মৃত আবদুস সালামের ছেলে শাহজাহান সাগর, মৃত কিতাব আলীর ছেলে কামরুল ও মৃত আলফু মিয়ার ছেলে সুরুজ মিয়া একই গ্রামের শাহ জালালের বাড়িতে গিয়ে মৃত শাহজালালের ছেলে নূরে আলমকে মোবাইল চুরির সন্দেহে তাদের হাতে থাকা লাঠিসোঁটা ও রড দিয়ে এলোপাতাড়ি পিটিয়ে আহত করে। নূরে আলমকে বাঁচাতে তার ভাই মো. আলাউদ্দিন এগিয়ে এলে হামলাকারীরা তাকেও পিটিয়ে আহত করে। পরে তারা আহতদের উঠিয়ে নিয়ে গিয়ে তাদের বাড়ি সংলগ্ন আমগাছের সঙ্গে বেঁধে আবারো মারতে থাকে।

খবর পেয়ে নূরে আলমের মা চিৎকার চেঁচামেচি করে সেখানে উপস্থিত হলে তারা তাকেও পিটিয়ে আহত করে। তাদের চিৎকার চেঁচামেচি শুনে এলাকাবাসী জড়ো হলে হামলাকারীরা ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায়। পরে আহতদের এলাকাবাসী উদ্ধার করে ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসেন। আহতরা ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রয়েছেন।

এ ব্যাপারে হামলাকারীদের সঙ্গে যোগাযোগ করতে চাইলে তাদের মোবাইল ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।

এ ব্যাপারে ব্রাহ্মণপাড়া থানার ওসি আপ্পেলা রাজু নাহা বলেন, সোমবার দুপুর পর্যন্ত এ ঘটনায় কেউ কোনো লিখিত অভিযোগ দায়ের করেনি। এ বিষয়ে আমি জানি না। কেউ লিখিত অভিযোগ দায়ের করলে আমি তদন্তপূর্বক আইনগত ব্যবস্থা নেব।

মোবাইল চুরির অপবাদে গাছে বেঁধে নারীসহ ৩ জনকে মারধর

 ব্রাহ্মণপাড়া (কুমিল্লা) প্রতিনিধি 
৩১ মে ২০২১, ০৬:০২ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

কুমিল্লার ব্রাহ্মণপাড়া সদর ইউনিয়নের দীর্ঘভূমি গ্রামে মোবাইল চুরির অপবাদ দিয়ে গাছের সঙ্গে বেঁধে নারীসহ তিনজনকে মারধর করে আহত করার অভিযোগ উঠেছে। রোববার তাদের মারধর করে আহত করেছে প্রতিপক্ষের লোকজন।

আহতরা হলেন- নূরে আলম (২৮), মো. আলাউদ্দিন (২৫) ও হাজেরা বেগমকে (৫০)।

আহত নূরে আলম সূত্রে জানা যায়, ঘটনার দিন ৩০ মে রোববার ভোরে দীর্ঘভূমি গ্রামের সুরুজ মিয়ার ছেলে ফারুক, মৃত আবদুস সালামের ছেলে শাহজাহান সাগর, মৃত কিতাব আলীর ছেলে কামরুল ও মৃত আলফু মিয়ার ছেলে সুরুজ মিয়া একই গ্রামের শাহ জালালের বাড়িতে গিয়ে মৃত শাহজালালের ছেলে নূরে আলমকে মোবাইল চুরির সন্দেহে তাদের হাতে থাকা লাঠিসোঁটা ও রড দিয়ে এলোপাতাড়ি পিটিয়ে আহত করে। নূরে আলমকে বাঁচাতে তার ভাই মো. আলাউদ্দিন এগিয়ে এলে হামলাকারীরা তাকেও পিটিয়ে আহত করে। পরে তারা আহতদের উঠিয়ে নিয়ে গিয়ে তাদের বাড়ি সংলগ্ন আমগাছের সঙ্গে বেঁধে আবারো মারতে থাকে।

খবর পেয়ে নূরে আলমের মা চিৎকার চেঁচামেচি করে সেখানে উপস্থিত হলে তারা তাকেও পিটিয়ে আহত করে। তাদের চিৎকার চেঁচামেচি শুনে এলাকাবাসী জড়ো হলে হামলাকারীরা ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায়। পরে আহতদের এলাকাবাসী উদ্ধার করে ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসেন। আহতরা ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রয়েছেন।

এ ব্যাপারে হামলাকারীদের সঙ্গে যোগাযোগ করতে চাইলে তাদের মোবাইল ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।

এ ব্যাপারে ব্রাহ্মণপাড়া থানার ওসি আপ্পেলা রাজু নাহা বলেন, সোমবার দুপুর পর্যন্ত এ ঘটনায় কেউ কোনো লিখিত অভিযোগ দায়ের করেনি। এ বিষয়ে আমি জানি না। কেউ লিখিত অভিযোগ দায়ের করলে আমি তদন্তপূর্বক আইনগত ব্যবস্থা নেব।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন