তালাক দেয়া স্ত্রীর সঙ্গে বেড়াতে যাওয়ায় কিশোরীকে মারধর
jugantor
তালাক দেয়া স্ত্রীর সঙ্গে বেড়াতে যাওয়ায় কিশোরীকে মারধর

  হবিগঞ্জ প্রতিনিধি  

৩১ মে ২০২১, ১৮:০৭:৪৭  |  অনলাইন সংস্করণ

হবিগঞ্জের চুনারুঘাটে তালাক দেয়া স্ত্রীর সঙ্গে বেড়াতে যাওয়ায় এক উপজাতি কিশোরীর ওপর হামলা চালিয়েছে এক বখাটে। আহত অবস্থায় তাকে হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

শনিবার ঘটনাটি ঘটেছে ওই উপজেলার কালেঙ্গা বনাঞ্চলের রিজার্ভ টিলা এলাকায়। রোববার বিষয়টি সালিশে ধামাচাপা দেয়ার চেষ্টা করেছে স্থানীয় প্রভাবশালীরা।

এ ঘটনায় উপজাতি সম্প্রদায়ের মধ্যে ক্ষোভ দেখা দিয়েছে। এ ঘটনায় রোববার রাতে থানায় একটি অভিযোগ দেয়া হয়েছে।

স্থানীয়রা জানান, কালেঙ্গা সি বিচ এলাকার বাসিন্দা জয়নাল মিয়া প্রায় ১ বছর পূর্বে তার স্ত্রী মর্জিনা বেগমকে তালাক দেন। এরপরও তিনি স্ত্রীর সঙ্গে সম্পর্ক রাখার চেষ্টা করেন। শনিবার তার স্ত্রী মর্জিনা বেগম একই এলাকার কালিয়াবাড়ির বাসিন্দা পরেশ দেব বর্মার মেয়ে চম্পা দেব বর্মাকে (১৬) সঙ্গে নিয়ে শ্রীমঙ্গলে আত্মীয়ের বাড়িতে যাওয়ার জন্য রওনা হন।

পথে জয়নাল তার স্ত্রী মর্জিনা বেগম ও চম্পা দেব বর্মাকে মারপিট করেন। এতে চম্পা গুরুতর আহত হয়। রোববার দুপুরে বিষয়টি সালিশে ধামাচাপা দেয়ার চেষ্টা করেন সাবেক ইউপি মেম্বার সিরাজুল ইসলাম। তিনি চম্পাকে ১ হাজার টাকা দিয়ে এ বিষয়ে আর কথা না বলার জন্য বলেন। কিন্তু সে তাতে রাজি হয়নি।

স্থানীয় ইউপি মেম্বার খলিলুর রহমান জানান, হামলাকারী জয়নাল মিয়া এলাকায় একজন বখাটে হিসেবে পরিচিত। শুনেছি বিষয়টি কেউ একজন নিষ্পত্তি করে দিতে চেয়েছিল। তবে আমাকে জানায়নি। ওই উপজাতি কিশোরী যদি আইনের আশ্রয় নেয় তবে তাকে সর্বাত্মক সহযোগিতা করা হবে।

আহত চম্পা দেব বর্মা জানায়, এ বিষয়ে সে রোববার রাতে থানায় একটি অভিযোগ দিয়েছে। ওই বখাটে তাকে পিটিয়ে হাত ভেঙে দিয়েছে।

উপজাতি সম্প্রদায়ের নেতা চিত্তরঞ্জন দেব বর্মা জানান, খবর পেয়ে তিনি ওই এলাকায় ছুটে গিয়ে আহত চম্পাকে উদ্ধার করে চিকিৎসা দিয়েছেন। তিনি বখাটে জয়নালের শাস্তি দাবি করেন।

তালাক দেয়া স্ত্রীর সঙ্গে বেড়াতে যাওয়ায় কিশোরীকে মারধর

 হবিগঞ্জ প্রতিনিধি 
৩১ মে ২০২১, ০৬:০৭ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

হবিগঞ্জের চুনারুঘাটে তালাক দেয়া স্ত্রীর সঙ্গে বেড়াতে যাওয়ায় এক উপজাতি কিশোরীর ওপর হামলা চালিয়েছে এক বখাটে। আহত অবস্থায় তাকে হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

শনিবার ঘটনাটি ঘটেছে ওই উপজেলার কালেঙ্গা বনাঞ্চলের রিজার্ভ টিলা এলাকায়। রোববার বিষয়টি সালিশে ধামাচাপা দেয়ার চেষ্টা করেছে স্থানীয় প্রভাবশালীরা।

এ ঘটনায় উপজাতি সম্প্রদায়ের মধ্যে ক্ষোভ দেখা দিয়েছে। এ ঘটনায় রোববার রাতে থানায় একটি অভিযোগ দেয়া হয়েছে।

স্থানীয়রা জানান, কালেঙ্গা সি বিচ এলাকার বাসিন্দা জয়নাল মিয়া প্রায় ১ বছর পূর্বে তার স্ত্রী মর্জিনা বেগমকে তালাক দেন। এরপরও তিনি স্ত্রীর সঙ্গে সম্পর্ক রাখার চেষ্টা করেন। শনিবার তার স্ত্রী মর্জিনা বেগম একই এলাকার কালিয়াবাড়ির বাসিন্দা পরেশ দেব বর্মার মেয়ে চম্পা দেব বর্মাকে (১৬) সঙ্গে নিয়ে শ্রীমঙ্গলে আত্মীয়ের বাড়িতে যাওয়ার জন্য রওনা হন।

পথে জয়নাল তার স্ত্রী মর্জিনা বেগম ও চম্পা দেব বর্মাকে মারপিট করেন। এতে চম্পা গুরুতর আহত হয়। রোববার দুপুরে বিষয়টি সালিশে ধামাচাপা দেয়ার চেষ্টা করেন সাবেক ইউপি মেম্বার সিরাজুল ইসলাম। তিনি চম্পাকে ১ হাজার টাকা দিয়ে এ বিষয়ে আর কথা না বলার জন্য বলেন। কিন্তু সে তাতে রাজি হয়নি।

স্থানীয় ইউপি মেম্বার খলিলুর রহমান জানান, হামলাকারী জয়নাল মিয়া এলাকায় একজন বখাটে হিসেবে পরিচিত। শুনেছি বিষয়টি কেউ একজন নিষ্পত্তি করে দিতে চেয়েছিল। তবে আমাকে জানায়নি। ওই উপজাতি কিশোরী যদি আইনের আশ্রয় নেয় তবে তাকে সর্বাত্মক সহযোগিতা করা হবে।

আহত চম্পা দেব বর্মা জানায়, এ বিষয়ে সে রোববার রাতে থানায় একটি অভিযোগ দিয়েছে। ওই বখাটে তাকে পিটিয়ে হাত ভেঙে দিয়েছে।

উপজাতি সম্প্রদায়ের নেতা চিত্তরঞ্জন দেব বর্মা জানান, খবর পেয়ে তিনি ওই এলাকায় ছুটে গিয়ে আহত চম্পাকে উদ্ধার করে চিকিৎসা দিয়েছেন। তিনি বখাটে জয়নালের শাস্তি দাবি করেন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন