বিনাটিকিটের ৫০০ রেলযাত্রীকে নামিয়ে দিলেন কর্মকর্তা
jugantor
বিনাটিকিটের ৫০০ রেলযাত্রীকে নামিয়ে দিলেন কর্মকর্তা

  ঈশ্বরদী (পাবনা) প্রতিনিধি  

০৪ জুন ২০২১, ১৭:৫৪:২০  |  অনলাইন সংস্করণ

চলমান অভিযানে বিনাটিকিটে ১৩টি স্টেশন থেকে ট্রেনে ওঠা ৫০০ যাত্রীকে নামিয়ে দিয়েছেন রেলওয়ের পাকশী বিভাগীয় সহকারী বাণিজ্যিক কর্মকর্তা (এসিও)। ঢাকা-চিলাহাটি-ঢাকাগামী আন্তঃনগর নীলসাগর এক্সপ্রেস ট্রেনে এ অভিযান চালানো হয়।

এ সময় বিভিন্ন স্টেশন থেকে ওঠে পড়া ৫৩ যাত্রীর কাছ থেকে ভাড়াসহ জরিমানাও আদায় করা হয়েছে।

শুক্রবার দুপুর সাড়ে ১২টায় পাকশী বিভাগীয় রেলওয়ের এসিও সাজেদুল ইসলাম বাবু এ তথ্য জানান।

বৃহস্পতিবার সকাল থেকে রাত পর্যন্ত ঢাকা-চিলাহাটি-ঢাকাগামী নীলসাগর এক্সপ্রেস ট্রেনে অভিযানে এসিও সাজেদুল ইসলাম বাবুর নেতৃত্বে ভ্রাম্যমাণ টিকিট পরীক্ষক আব্দুল আলিম বিশ্বাস মিঠু, মার্টিন জয় মণ্ডল, মোস্তাফিজ রানাসহ রেলওয়ে কর্মচারী ও নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

অভিযানের স্টেশনগুলো হলো- মুলাডুলি, নাটোর, আহসানগঞ্জ, সান্তাহার, আক্কেলপুর, জয়পুরহাট, বিরামপুর, ফুলবাড়ী, পার্বতীপুর, সৈয়দপুর, নীলফামারী, ডোমার ও চিলাহাটি।

এসিও সাজেদুল ইসলাম বাবু জানান, স্বাস্থ্যবিধি মেনে ঈশ্বরদীর মুলাডুলি থেকে চিলাহাটি পর্যন্ত ১৩টি স্টেশনে টিকিটবিহীন কোনো যাত্রী ট্রেনে উঠতে দেওয়া হয়নি। এ সময় বিনাটিকেটে ট্রেনে চড়ার দায়ে ৫৩ যাত্রীর কাছ থেকে ভাড়াবাবদ ২৩ হাজার ও জরিমানা বাবদ ১৫ হাজার সর্বমোট ৩৮ হাজার টাকা আদায় করা হয়।

তিনি বলেন, করোনাকালে সরকারি নির্দেশনা মেনে যাত্রীদের ট্রেন ভ্রমণ নিশ্চিতকল্পে অভিযান চলমান থাকবে।

বিনাটিকিটের ৫০০ রেলযাত্রীকে নামিয়ে দিলেন কর্মকর্তা

 ঈশ্বরদী (পাবনা) প্রতিনিধি 
০৪ জুন ২০২১, ০৫:৫৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

চলমান অভিযানে বিনাটিকিটে ১৩টি স্টেশন থেকে ট্রেনে ওঠা ৫০০ যাত্রীকে নামিয়ে দিয়েছেন রেলওয়ের পাকশী বিভাগীয় সহকারী বাণিজ্যিক কর্মকর্তা (এসিও)। ঢাকা-চিলাহাটি-ঢাকাগামী আন্তঃনগর নীলসাগর এক্সপ্রেস ট্রেনে এ অভিযান চালানো হয়।

এ সময় বিভিন্ন স্টেশন থেকে ওঠে পড়া ৫৩ যাত্রীর কাছ থেকে ভাড়াসহ জরিমানাও আদায় করা হয়েছে।

শুক্রবার দুপুর সাড়ে ১২টায় পাকশী বিভাগীয় রেলওয়ের এসিও সাজেদুল ইসলাম বাবু এ তথ্য জানান।  

বৃহস্পতিবার সকাল থেকে রাত পর্যন্ত ঢাকা-চিলাহাটি-ঢাকাগামী নীলসাগর এক্সপ্রেস ট্রেনে অভিযানে এসিও সাজেদুল ইসলাম বাবুর নেতৃত্বে ভ্রাম্যমাণ টিকিট পরীক্ষক আব্দুল আলিম বিশ্বাস মিঠু, মার্টিন জয় মণ্ডল, মোস্তাফিজ রানাসহ রেলওয়ে কর্মচারী ও নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

অভিযানের স্টেশনগুলো হলো- মুলাডুলি, নাটোর, আহসানগঞ্জ, সান্তাহার, আক্কেলপুর, জয়পুরহাট, বিরামপুর, ফুলবাড়ী, পার্বতীপুর, সৈয়দপুর, নীলফামারী, ডোমার ও চিলাহাটি।

এসিও সাজেদুল ইসলাম বাবু জানান, স্বাস্থ্যবিধি মেনে ঈশ্বরদীর মুলাডুলি থেকে চিলাহাটি পর্যন্ত ১৩টি স্টেশনে টিকিটবিহীন কোনো যাত্রী ট্রেনে উঠতে দেওয়া হয়নি। এ সময় বিনাটিকেটে ট্রেনে চড়ার দায়ে ৫৩ যাত্রীর কাছ থেকে ভাড়াবাবদ ২৩ হাজার ও জরিমানা বাবদ ১৫ হাজার সর্বমোট ৩৮ হাজার টাকা আদায় করা হয়।

তিনি বলেন, করোনাকালে সরকারি নির্দেশনা মেনে যাত্রীদের ট্রেন ভ্রমণ নিশ্চিতকল্পে অভিযান চলমান থাকবে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন