মায়ের সঙ্গে অভিমান করে কলেজছাত্রের প্রাণত্যাগ
jugantor
মায়ের সঙ্গে অভিমান করে কলেজছাত্রের প্রাণত্যাগ

  যুগান্তর প্রতিবেদন, ব্রাহ্মণবাড়িয়া  

০৫ জুন ২০২১, ২৩:৫৩:২৮  |  অনলাইন সংস্করণ

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বাঞ্ছারামপুরে মায়ের কাছ থেকে নতুন মোবাইল ফোন কেনার টাকা চায় কলেজছাত্র সাইদ আহম্মেদ (১৭)। টাকা না পেয়ে অভিমান করে নিজ ঘরে সিলিংয়ে ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে সে।

শনিবার উপজেলার রূপসদী দক্ষিণ পাড়ায় এ ঘটনা ঘটেছে। পুলিশ ময়নাতদন্ত ছাড়াই দাফনের অনুমতি দিয়েছে।

সাইদ আহম্মেদ ওই গ্রামের সৌদি প্রবাসী উসমান গণির ছেলে। সে উপজেলার শাহ রাহাত আলী মহাবিদ্যালয়ে একাদশ শ্রেণির ছাত্র ছিল।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, সাইদ আহম্মেদ কিছু দিন যাবত প্রবাসী বাবা ও মায়ের কাছে নতুন একটি এনড্রোয়েড মোবাইল কেনার জন্য টাকা চেয়ে আসছিল। টাকা না দেওয়ায় শনিবার দুপুর ২টার দিকে নিজ ঘরে আত্মহত্যা করে সে। পরিবারের সদস্যরা খাবারের সময় হলে তাকে ডাকতে গেলে ঝুলন্ত অবস্থায় তাকে দেখে চিৎকার শুরু করলে আশেপাশের লোকজন এসে লাশ নামায়।

বাঞ্ছারামপুর মডেল থানার ওসি রাজু আহম্মেদ জানান, রূপসদী গ্রামের এক কলেজপড়ুয়া শিক্ষার্থী মোবাইল কেনার টাকা না পেয়ে আত্মহত্যা করেছে শুনেছি। আমি পুলিশ পাঠিয়েছি। স্থানীয়ভাবে কথা বলে দাফনের অনুমতি দিয়েছি। ওই শিক্ষার্থীর শরীরে আঘাতের কোনো চিহ্ন ছিল না।

মায়ের সঙ্গে অভিমান করে কলেজছাত্রের প্রাণত্যাগ

 যুগান্তর প্রতিবেদন, ব্রাহ্মণবাড়িয়া 
০৫ জুন ২০২১, ১১:৫৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বাঞ্ছারামপুরে মায়ের কাছ থেকে নতুন মোবাইল ফোন কেনার টাকা চায় কলেজছাত্র সাইদ আহম্মেদ (১৭)। টাকা না পেয়ে অভিমান করে নিজ ঘরে সিলিংয়ে ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে সে।

শনিবার উপজেলার রূপসদী দক্ষিণ পাড়ায় এ ঘটনা ঘটেছে। পুলিশ ময়নাতদন্ত ছাড়াই দাফনের অনুমতি দিয়েছে।

সাইদ আহম্মেদ ওই গ্রামের সৌদি প্রবাসী উসমান গণির ছেলে। সে উপজেলার শাহ রাহাত আলী মহাবিদ্যালয়ে একাদশ শ্রেণির ছাত্র ছিল।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, সাইদ আহম্মেদ কিছু দিন যাবত প্রবাসী বাবা ও মায়ের কাছে নতুন একটি এনড্রোয়েড মোবাইল কেনার জন্য টাকা চেয়ে আসছিল। টাকা না দেওয়ায় শনিবার দুপুর ২টার দিকে নিজ ঘরে আত্মহত্যা করে সে। পরিবারের সদস্যরা খাবারের সময় হলে তাকে ডাকতে গেলে ঝুলন্ত অবস্থায় তাকে দেখে চিৎকার শুরু করলে আশেপাশের লোকজন এসে লাশ নামায়।

বাঞ্ছারামপুর মডেল থানার ওসি রাজু আহম্মেদ জানান, রূপসদী গ্রামের এক কলেজপড়ুয়া শিক্ষার্থী মোবাইল কেনার টাকা না পেয়ে আত্মহত্যা করেছে শুনেছি। আমি পুলিশ পাঠিয়েছি। স্থানীয়ভাবে কথা বলে দাফনের অনুমতি দিয়েছি। ওই শিক্ষার্থীর শরীরে আঘাতের কোনো চিহ্ন ছিল না।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন