হেফাজতের সহিংসতা: পুলিশের হারানো পিস্তল-গুলি উদ্ধার
jugantor
হেফাজতের সহিংসতা: পুলিশের হারানো পিস্তল-গুলি উদ্ধার

  হাটহাজারী (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি  

০৬ জুন ২০২১, ২২:৫৩:৩৩  |  অনলাইন সংস্করণ

স্বাধীনতা সুবর্ণজয়ন্তীতে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির ঢাকা সফরকে কেন্দ্র করে চট্টগ্রামের হাটহাজারীতে হেফাজতে ইসলামের নেতাকর্মী ও মাদ্রাসা ছাত্রদের সহিংসতারসময় খোয়া যাওয়া একটি পিস্তল ও ১৬ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করেছে থানা পুলিশ।

রোববার বিকালে হাটহাজারী পৌরসভার ৮নং ওয়ার্ড মিরের খিল গ্রামের একটি বাড়ির দেয়ালের বাউন্ডারির ভেতর থেকে পরিত্যক্ত অবস্থায় গুলি ও পিস্তলটি উদ্ধার করে পুলিশ। রাত পৌনে ১০টার দিকে পিস্তল ও গুলি উদ্ধারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন হাটহাজারী সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. শাহাদাৎ হোসেন।

জানা গেছে, গত ২৬ মার্চ ঢাকার বায়তুল মোকাররম মসজিদ এলাকায় ভারতের প্রধানমন্ত্রী মোদি বিরোধী বিক্ষোভে পুলিশ ও সরকারি দলের নেতা-কর্মীদের সঙ্গে সংঘর্ষ ঘটনার রেশ ধরে হেফাজত দূর্গ খ্যাত চট্টগ্রামের হাটহাজারীতে বিক্ষুব্ধরা থানা ভবন, সহকারী কমিশনার (ভূমি) অফিস এবং ডাকবাংলোয় ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটায়।

ওই সময় পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে মাদ্রাসা ছাত্র ও পথচারীসহ ৪ জন নিহত হয়। এ ঘটনার জের ধরে বিক্ষুদ্ধ মাদ্রাসা ছাত্ররা ৪ পুলিশ কর্মকর্তাকে অবরোধ করে মারধর করে। তাদের মধ্যে এএসপি (শিক্ষানবিশ) প্রবীর ফারাবী ও এসআই মেহেদী হাসানকে পিটিয়ে গুরুতর আহত হন।

এ সময় বিক্ষুব্ধরা এসআই মেহেদীর কাছ থেকে একটি পিস্তল ও গুলি ছিনিয়ে নিয়েছিল বলে জানা গেছে।

হেফাজতের সহিংসতা: পুলিশের হারানো পিস্তল-গুলি উদ্ধার

 হাটহাজারী (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি 
০৬ জুন ২০২১, ১০:৫৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

স্বাধীনতা সুবর্ণজয়ন্তীতে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির ঢাকা সফরকে কেন্দ্র করে চট্টগ্রামের হাটহাজারীতে হেফাজতে ইসলামের নেতাকর্মী ও মাদ্রাসা ছাত্রদের সহিংসতার সময় খোয়া যাওয়া একটি পিস্তল ও ১৬ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করেছে থানা পুলিশ।

রোববার বিকালে হাটহাজারী পৌরসভার ৮নং ওয়ার্ড মিরের খিল গ্রামের একটি বাড়ির দেয়ালের বাউন্ডারির ভেতর থেকে পরিত্যক্ত অবস্থায় গুলি ও পিস্তলটি উদ্ধার করে পুলিশ। রাত পৌনে ১০টার দিকে পিস্তল ও গুলি উদ্ধারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন হাটহাজারী সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. শাহাদাৎ হোসেন।

জানা গেছে, গত ২৬ মার্চ ঢাকার বায়তুল মোকাররম মসজিদ এলাকায় ভারতের প্রধানমন্ত্রী মোদি বিরোধী বিক্ষোভে পুলিশ ও সরকারি দলের নেতা-কর্মীদের সঙ্গে সংঘর্ষ ঘটনার রেশ ধরে হেফাজত দূর্গ খ্যাত চট্টগ্রামের হাটহাজারীতে বিক্ষুব্ধরা থানা ভবন, সহকারী কমিশনার (ভূমি) অফিস এবং ডাকবাংলোয় ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটায়।

ওই সময় পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে মাদ্রাসা ছাত্র ও পথচারীসহ ৪ জন নিহত হয়। এ ঘটনার জের ধরে বিক্ষুদ্ধ মাদ্রাসা ছাত্ররা ৪ পুলিশ কর্মকর্তাকে অবরোধ করে মারধর করে। তাদের মধ্যে এএসপি (শিক্ষানবিশ) প্রবীর ফারাবী ও এসআই মেহেদী হাসানকে পিটিয়ে গুরুতর আহত হন। 

এ সময় বিক্ষুব্ধরা এসআই মেহেদীর কাছ থেকে একটি পিস্তল ও গুলি ছিনিয়ে নিয়েছিল বলে জানা গেছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন