মাঝ রাতে কান্না, ক্যারাম বোর্ডের ওপর মিলল নবজাতক
jugantor
মাঝ রাতে কান্না, ক্যারাম বোর্ডের ওপর মিলল নবজাতক

  বাগেরহাট প্রতিনিধি  

০৭ জুন ২০২১, ২২:৪৭:০৯  |  অনলাইন সংস্করণ

বাগেরহাট সদর উপজেলা মাঝ রাতে কান্নার শব্দে মিলল ক্যারাম বোর্ডের ওপর পাওয়া গেল এক নবজাতক। উপজেলার বৈটপুর এলাকায় ফেলে যাওয়া এক নবজাতককে উদ্ধার করেছে পুলিশ। বর্তমানে সে বাগেরহাট সদর হাসপাতালে সুস্থ ও ভালো আছে।

রোববার রাতে স্থানীয় লোকজনের মাধ্যমে খবর পেয়ে পুলিশ পরিত্যক্ত অবস্থায় নবজাতককে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে। ইতোমধ্যে হাসপাতালে থাকা শিশুটিকে দত্তক নিতে অনেকেই আগ্রহ দেখিয়েছে।

বাগেরহাট সদর থানার পরিদর্শক আবু সাঈদ জানান, রোববার রাতে বেমরতা ইউনিয়নের চিতলী বৈটপুর গ্রামের একটি চায়ের দোকানের পাশে ক্যারাম বোর্ডের ওপর ওই শিশুটি পড়ে ছিল। ধারনা করা হচ্ছে সদ্য জন্ম নেয় ওই নবজাতককে কেউ ওই স্থানে ফেলে গেছে।

তিনি জানান, রাতে স্থানীয় ইমরান শেখের স্ত্রী লিজা আক্তার ওই নবজাতকের কান্না শুনতে পান। পরে তিনি দোকানের কাছে গিয়ে ক্যারাম বোর্ডের ওপর নবজাতককে দেখতে পেয়ে বাড়িতে নিয়ে যান। পরে ৯৯৯ নম্বরের মাধ্যমে খবর পেয়ে পুলিশ রাতেই ওই বাড়িতে গিয়ে তাকে বাগেরহাট সদর হাসপাতালে ভর্তি করে।

তিনি আরও বলেন কে বা কারা নবজাতককে এভাবে ফেলে গেছে তা তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। ইতোমধ্যে হাসপাতালে থাকা শিশুটিকে দত্তক নিতে অনেকেই আগ্রহ দেখিয়েছি। বিষয়টি আদালতে জানানো হবে। এ ব্যাপারে আদালত ঠিক করবে পরবর্তী করণীয় বিষয়ে।

বাগেরহাটের সিভিল সার্জন জানান সদ্য ভূমিষ্ঠ হওয়া নবজাতক মেয়েটি সুস্থ ও স্বাভাবিক রয়েছে। তাকে হাসপাতালে রেখে নিবিড় পরিচর্যা করা হচ্ছে।

বাগেরহাটের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আজিজুর রহমান বলেন, নবজাতকটি আপাতত পুলিশ পাহারায় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। পরবর্তীতে চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী তাকে বেবি হোমে স্থানান্তর করা হবে। ইতোমধ্যে নবজাতককে দত্তক নিতে বাগেরহাট জেলা শিশুকল্যাণ বোর্ডের কাছে আবেদন করেছেন একাধিক নিঃসন্তান দম্পতি। শিশু কল্যাণ বোর্ডের সভায় সিদ্ধান্ত মোতাবেক আবেদনগুলো যাচাই-বাছাই করে পরবর্তী সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হবে।

মাঝ রাতে কান্না, ক্যারাম বোর্ডের ওপর মিলল নবজাতক

 বাগেরহাট প্রতিনিধি 
০৭ জুন ২০২১, ১০:৪৭ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

বাগেরহাট সদর উপজেলা মাঝ রাতে কান্নার শব্দে মিলল ক্যারাম বোর্ডের ওপর পাওয়া গেল এক নবজাতক। উপজেলার বৈটপুর এলাকায় ফেলে যাওয়া এক নবজাতককে উদ্ধার করেছে পুলিশ। বর্তমানে সে বাগেরহাট সদর হাসপাতালে সুস্থ ও ভালো আছে।

রোববার রাতে স্থানীয় লোকজনের মাধ্যমে খবর পেয়ে পুলিশ  পরিত্যক্ত অবস্থায় নবজাতককে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে। ইতোমধ্যে হাসপাতালে থাকা শিশুটিকে দত্তক নিতে অনেকেই আগ্রহ দেখিয়েছে।

বাগেরহাট সদর থানার পরিদর্শক আবু সাঈদ জানান, রোববার  রাতে বেমরতা ইউনিয়নের চিতলী বৈটপুর গ্রামের একটি চায়ের দোকানের পাশে ক্যারাম বোর্ডের ওপর ওই শিশুটি পড়ে ছিল। ধারনা করা হচ্ছে সদ্য জন্ম নেয় ওই নবজাতককে কেউ ওই স্থানে ফেলে গেছে।

তিনি জানান, রাতে স্থানীয় ইমরান শেখের স্ত্রী লিজা আক্তার ওই নবজাতকের কান্না শুনতে পান। পরে তিনি দোকানের কাছে  গিয়ে ক্যারাম বোর্ডের ওপর নবজাতককে দেখতে পেয়ে  বাড়িতে নিয়ে যান। পরে ৯৯৯  নম্বরের মাধ্যমে খবর পেয়ে পুলিশ রাতেই ওই বাড়িতে গিয়ে তাকে বাগেরহাট সদর হাসপাতালে ভর্তি করে।

তিনি আরও বলেন  কে বা কারা নবজাতককে এভাবে ফেলে গেছে তা তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। ইতোমধ্যে হাসপাতালে থাকা শিশুটিকে দত্তক নিতে অনেকেই আগ্রহ দেখিয়েছি। বিষয়টি আদালতে জানানো হবে। এ ব্যাপারে আদালত ঠিক করবে পরবর্তী করণীয় বিষয়ে।

বাগেরহাটের সিভিল সার্জন জানান সদ্য ভূমিষ্ঠ হওয়া নবজাতক মেয়েটি সুস্থ ও স্বাভাবিক রয়েছে। তাকে হাসপাতালে রেখে নিবিড় পরিচর্যা করা হচ্ছে।

বাগেরহাটের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আজিজুর রহমান বলেন, নবজাতকটি আপাতত পুলিশ পাহারায় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। পরবর্তীতে চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী তাকে বেবি হোমে স্থানান্তর করা হবে। ইতোমধ্যে নবজাতককে দত্তক নিতে বাগেরহাট জেলা শিশুকল্যাণ বোর্ডের কাছে আবেদন করেছেন একাধিক নিঃসন্তান দম্পতি। শিশু কল্যাণ বোর্ডের সভায় সিদ্ধান্ত মোতাবেক আবেদনগুলো যাচাই-বাছাই করে পরবর্তী সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হবে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন