অটোর ব্যাটারির জন্য চালক খুন, তিন দিন পর মিলল লাশ
jugantor
অটোর ব্যাটারির জন্য চালক খুন, তিন দিন পর মিলল লাশ

  মদন (নেত্রকোনা) প্রতিনিধি  

১০ জুন ২০২১, ২২:০৬:৩১  |  অনলাইন সংস্করণ

নেত্রকোনার মদনে অটোর ব্যাটারির জন্য দুর্বৃত্তের হাতে রিজান (১৫) নামে এক কিশোর অটোচালক খুন হয়েছে। নিখোঁজের তিন দিন পর তার লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার বিকালে উপজেলার কাইটাইল ইউনিয়নের বটতলা বাড়রী সড়কের খাগুরিয়া গ্রামের সামনে পাটক্ষেত থেকে তার লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

রিজান পৌরসভার পূর্ব জাহাঙ্গীরপুর গ্রামের অটোচালক শাহ আলমের ছেলে।

নিহতের বাবা শাহ আলম বলেন, মঙ্গলবার বিকালে বাড়ি থেকে অটো নিয়ে বের হওয়ার পর আমার ছেলে রিজান রাতে বাড়ি ফিরেনি। অনেক খোঁজাখুঁজির পর কাইটাইল ইউনিয়নের বটতলা বাজারের পাশে বুধবার অটোরিকশাটি ব্যাটারিবিহীন অবস্থায় পাওয়া যায়। তার সন্ধানে মাইকিং করাকালীন খাগুরিয়া গ্রামের সামনে পাটক্ষেতে একটি যুবকের লাশ পাওয়ার সংবাদ পাই।

তিনি বলেন, গিয়ে দেখি ওই আমার আমার ছেলে রিজানের লাশ। অটোর ব্যাটারি নিয়ে দুর্বৃত্তরা আমার ছেলেকে হত্যা করে পাটক্ষেতে ফেলে রেখেছে।

মদন থানার পরিদর্শক (তদন্ত) উজ্জ্বল কান্তি সরকার জানান, ঘটনাস্থলে আসলে নিহতের পিতা শাহ আলম তার নিখোঁজ ছেলের লাশ শনাক্ত করেন। বৃহস্পতিবার তার বাবা মদন থানায় একটি নিখোঁজের সাধারণ ডায়েরি করেছিল। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য নেত্রকোনা মর্গে পাঠানো হয়েছে।

অটোর ব্যাটারির জন্য চালক খুন, তিন দিন পর মিলল লাশ

 মদন (নেত্রকোনা) প্রতিনিধি 
১০ জুন ২০২১, ১০:০৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

নেত্রকোনার মদনে অটোর ব্যাটারির জন্য দুর্বৃত্তের হাতে রিজান (১৫) নামে এক কিশোর অটোচালক খুন হয়েছে। নিখোঁজের তিন দিন পর তার লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার বিকালে উপজেলার কাইটাইল ইউনিয়নের বটতলা বাড়রী সড়কের খাগুরিয়া গ্রামের সামনে পাটক্ষেত থেকে তার লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

রিজান পৌরসভার পূর্ব জাহাঙ্গীরপুর গ্রামের অটোচালক শাহ আলমের ছেলে।

নিহতের বাবা শাহ আলম বলেন, মঙ্গলবার বিকালে বাড়ি থেকে অটো নিয়ে বের হওয়ার পর আমার ছেলে রিজান রাতে বাড়ি ফিরেনি। অনেক খোঁজাখুঁজির পর কাইটাইল ইউনিয়নের বটতলা বাজারের পাশে বুধবার অটোরিকশাটি ব্যাটারিবিহীন অবস্থায় পাওয়া যায়। তার সন্ধানে মাইকিং করাকালীন খাগুরিয়া গ্রামের সামনে পাটক্ষেতে একটি যুবকের লাশ পাওয়ার সংবাদ পাই।

তিনি বলেন, গিয়ে দেখি ওই আমার আমার ছেলে রিজানের লাশ। অটোর ব্যাটারি নিয়ে দুর্বৃত্তরা আমার ছেলেকে হত্যা করে পাটক্ষেতে ফেলে রেখেছে।

মদন থানার পরিদর্শক (তদন্ত) উজ্জ্বল কান্তি সরকার জানান, ঘটনাস্থলে আসলে নিহতের পিতা শাহ আলম তার নিখোঁজ ছেলের লাশ শনাক্ত করেন। বৃহস্পতিবার তার বাবা মদন থানায় একটি নিখোঁজের সাধারণ ডায়েরি করেছিল। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য নেত্রকোনা মর্গে পাঠানো হয়েছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন