শেখ হাসিনা সেতুর নিচে ধস
jugantor
শেখ হাসিনা সেতুর নিচে ধস

  নাগরপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি  

১১ জুন ২০২১, ২০:১৪:২২  |  অনলাইন সংস্করণ

টাঙ্গাইলের নাগরপুরে ধলেশ্বরী নদীর উপর স্থাপিত শেখ হাসিনা সেতুর অ্যাপ্রোচ সড়কের একাংশ ধসে পড়েছে। ফলে দেখা দিয়েছে বড় ধরনের দুর্ঘটনার আশঙ্কা।

গত দুই দিনের ভারি বর্ষণের ফলে এমন ধসের সৃষ্টি হয়েছে বলে এলাকাবাসী জানান। আর দুর্ঘটনার ঝুঁকি নিয়েই এ সড়ক দিয়ে যানবাহন চলাচল করছে।

নাগরপুর-মির্জাপুর ভায়া মোকনা সড়কের ধলেশ্বরী নদীর উপর স্থাপিত শেখ হাসিনা সেতুর পূর্ব পাশে সরেজমিন দেখা যায়, সেতুর শেষাংশ থেকে নির্মিত অ্যাপ্রোচ সড়কের প্রথমাংশই ধসে গেছে। এতে সড়কের এক পাশে বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। সড়কের গাইড ওয়ালের ব্লকগুলো সরে গিয়ে মাটি ধসে গেছে। এতে সেখানে যেকোনো ধরনের দুর্ঘটনার আশঙ্কা করছেন এলাকাবাসী।

প্রায় ৫৫ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত সেতুটি ২০১৭ সালে উদ্বোধন করা হলেও এর এক বছর না যেতেই সেতুর উপরিভাগের বিভিন্ন স্থানের ঢালাই উঠে গিয়ে সেতুতে ছোট বড় গর্তের সৃষ্টি হয়। এরপর থেকে সেতুর উপর দিয়ে খুব ধীর গতিতে যানবাহন চালাতে হচ্ছে চালকদের। এর ওপর আবার অ্যাপ্রোচ ধসে গেছে।

বাসচালক সাইফুল ইসলাম বলেন, দ্রুত সেতু ও এর অ্যাপ্রোচ সড়কের সংস্কার প্রয়োজন। তা না হলে যে কোনো সময় ঘটতে পারে বড় ধরনের দুর্ঘটনা।

এ ব্যাপারে টাঙ্গাইল সড়ক ও জনপথের উপসহকারী প্রকৌশলী এসএম আলামিন বলেন, কেদারপুর শেখ হাসিনা সেতুর উপরিভাগের গর্ত ও এর অ্যাপ্রোচ সড়কে ধসের বিষয়টি আমাদের নজরে এসেছে। আমরা ইতোমধ্যে সেখানে কাজ শুরু করে দিয়েছি। আমরা সেখানে স্থায়ীভাবে গাইড ওয়াল মেরামত করছি যাতে বৃষ্টির পানি লিক করতে না পারে। আর ব্রিজের উপরিভাগের গর্তগুলো মেরামত করে দেওয়া হবে।

শেখ হাসিনা সেতুর নিচে ধস

 নাগরপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি 
১১ জুন ২০২১, ০৮:১৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

টাঙ্গাইলের নাগরপুরে ধলেশ্বরী নদীর উপর স্থাপিত শেখ হাসিনা সেতুর অ্যাপ্রোচ সড়কের একাংশ ধসে পড়েছে। ফলে দেখা দিয়েছে বড় ধরনের দুর্ঘটনার আশঙ্কা।

গত দুই দিনের ভারি বর্ষণের ফলে এমন ধসের সৃষ্টি হয়েছে বলে এলাকাবাসী জানান। আর দুর্ঘটনার ঝুঁকি নিয়েই এ সড়ক দিয়ে যানবাহন চলাচল করছে।

নাগরপুর-মির্জাপুর ভায়া মোকনা সড়কের ধলেশ্বরী নদীর উপর স্থাপিত শেখ হাসিনা সেতুর পূর্ব পাশে সরেজমিন দেখা যায়, সেতুর শেষাংশ থেকে নির্মিত অ্যাপ্রোচ সড়কের প্রথমাংশই ধসে গেছে। এতে সড়কের এক পাশে বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। সড়কের গাইড ওয়ালের ব্লকগুলো সরে গিয়ে মাটি ধসে গেছে। এতে সেখানে যেকোনো ধরনের দুর্ঘটনার আশঙ্কা করছেন এলাকাবাসী।

প্রায় ৫৫ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত সেতুটি ২০১৭ সালে উদ্বোধন করা হলেও এর এক বছর না যেতেই সেতুর উপরিভাগের বিভিন্ন স্থানের ঢালাই উঠে গিয়ে সেতুতে ছোট বড় গর্তের সৃষ্টি হয়। এরপর থেকে সেতুর উপর দিয়ে খুব ধীর গতিতে যানবাহন চালাতে হচ্ছে চালকদের। এর ওপর আবার অ্যাপ্রোচ ধসে গেছে।

বাসচালক সাইফুল ইসলাম বলেন, দ্রুত সেতু ও এর অ্যাপ্রোচ সড়কের সংস্কার প্রয়োজন। তা না হলে যে কোনো সময় ঘটতে পারে বড় ধরনের দুর্ঘটনা।

এ ব্যাপারে টাঙ্গাইল সড়ক ও জনপথের উপসহকারী প্রকৌশলী এসএম আলামিন বলেন, কেদারপুর শেখ হাসিনা সেতুর উপরিভাগের গর্ত ও এর অ্যাপ্রোচ সড়কে ধসের বিষয়টি আমাদের নজরে এসেছে। আমরা ইতোমধ্যে সেখানে কাজ শুরু করে দিয়েছি। আমরা সেখানে স্থায়ীভাবে গাইড ওয়াল মেরামত করছি যাতে বৃষ্টির পানি লিক করতে না পারে। আর ব্রিজের উপরিভাগের গর্তগুলো মেরামত করে দেওয়া হবে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন