এক প্রেমিকা নিয়ে দুই প্রেমিকের কাড়াকাড়ি, আহত ২০
jugantor
এক প্রেমিকা নিয়ে দুই প্রেমিকের কাড়াকাড়ি, আহত ২০

  ধামরাই (ঢাকা) প্রতিনিধি  

১৩ জুন ২০২১, ১৯:৫৩:০৪  |  অনলাইন সংস্করণ

এক প্রেমিকাকে নিয়ে দুই প্রেমিকের কাড়াকাড়ির ঘটনায় চতুর্মুখী সংঘর্ষে কমপক্ষে ২০ জন আহত হয়েছেন। আহতদের মধ্যে ২ জন হাসপাতালের আইসিইউতে লাইফ সাপোর্টে রয়েছেন।

এ ঘটনায় পুলিশ ৮ জনকে গ্রেফতার করেছে বলে নিশ্চিত করেছে সংশ্লিষ্ট সূত্র। শনিবার এ হামলার ঘটনা ঘটেছে উপজেলার চরসুঙ্গর এলাকায়।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, শনিবার সকাল ৯টার দিকে উপজেলার চরসুঙ্গর গ্রামের মো. আদম আলী বাইদার ছেলে মো. মোতালেব হোসেন বাইদা (২১) ও পাশের আড়ালিয়া গ্রামের তমছের আলীর ছেলে মো. উজ্জ্বল হোসেন এক প্রেমিকাকে নিয়ে কাড়াকাড়ি শুরু করে। একপর্যায়ে তা সংঘর্ষে রূপ নেয়।

সময় যত বাড়তে থাকে দুই গ্রুপে ততই জনবল বাড়তে থাকে। অপরদিকে এ ঘটনায় গ্রামবাসীও সংঘবদ্ধ হয়ে সংঘর্ষে লিপ্ত হয়। এ সময় মো. আবু তালেব হোসেন ও মো. খোকন মিয়াসহ দুইজন মারাত্মক জখমসহ অন্তত ২০ জন আহত হন।

খবর পেয়ে গ্রামপুলিশ তারা মিয়া ছুটে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করেও ব্যর্থ হলে তিনি ধামরাই থানা পুলিশকে বিষয়টি অবহিত করেন। খবর পেয়ে এসআই মো. বদিউজ্জামান সঙ্গীয় ফোর্সসহ বেলা দেড়টার দিকে ঘটনাস্থলে এলে ক্ষুব্ধ গ্রামবাসী তাদের ওপর হামলা চালায়। পরে থানায় খবর দেয়া হলে ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ এসে উজ্জ্বল গ্রুপের ৮ জনকে আটক করে।

আটককৃতরা হলেন- টিম লিডার মো. উজ্জ্বল হোসেন, ইব্রাহিম মিয়া, মনোয়ার হোসেন, দ্বীন ইসলাম, আলামীন হোসেন,তমছের আলী, মোহন মিয়া ও মুনছের আলী।

এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে নিশ্চিত করেছেন ধামরাই থানার ওসি মো. আতিকুর রহমান আতিক। তিনি আরও বলেন, ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সঙ্গে পরামর্শ করে এ ব্যাপারে পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।

এক প্রেমিকা নিয়ে দুই প্রেমিকের কাড়াকাড়ি, আহত ২০

 ধামরাই (ঢাকা) প্রতিনিধি 
১৩ জুন ২০২১, ০৭:৫৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

এক প্রেমিকাকে নিয়ে দুই প্রেমিকের কাড়াকাড়ির ঘটনায় চতুর্মুখী সংঘর্ষে কমপক্ষে ২০ জন আহত হয়েছেন। আহতদের মধ্যে ২ জন হাসপাতালের আইসিইউতে লাইফ সাপোর্টে রয়েছেন। 

এ ঘটনায় পুলিশ ৮ জনকে গ্রেফতার করেছে বলে নিশ্চিত করেছে সংশ্লিষ্ট সূত্র। শনিবার এ হামলার ঘটনা ঘটেছে উপজেলার চরসুঙ্গর এলাকায়।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, শনিবার সকাল ৯টার দিকে উপজেলার চরসুঙ্গর গ্রামের মো. আদম আলী বাইদার ছেলে মো. মোতালেব হোসেন বাইদা (২১) ও পাশের আড়ালিয়া গ্রামের তমছের আলীর ছেলে মো. উজ্জ্বল হোসেন এক প্রেমিকাকে নিয়ে কাড়াকাড়ি শুরু করে। একপর্যায়ে তা সংঘর্ষে রূপ নেয়।

সময় যত বাড়তে থাকে দুই গ্রুপে ততই জনবল বাড়তে থাকে। অপরদিকে এ ঘটনায় গ্রামবাসীও সংঘবদ্ধ হয়ে সংঘর্ষে লিপ্ত হয়। এ সময় মো. আবু তালেব হোসেন ও মো. খোকন মিয়াসহ দুইজন মারাত্মক জখমসহ অন্তত ২০ জন আহত হন। 

খবর পেয়ে গ্রামপুলিশ তারা মিয়া ছুটে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করেও ব্যর্থ হলে তিনি ধামরাই থানা পুলিশকে বিষয়টি অবহিত করেন। খবর পেয়ে এসআই মো. বদিউজ্জামান সঙ্গীয় ফোর্সসহ বেলা দেড়টার দিকে ঘটনাস্থলে এলে ক্ষুব্ধ গ্রামবাসী তাদের ওপর হামলা চালায়। পরে থানায় খবর দেয়া হলে ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ এসে উজ্জ্বল গ্রুপের ৮ জনকে আটক করে। 

আটককৃতরা হলেন- টিম লিডার মো. উজ্জ্বল হোসেন, ইব্রাহিম মিয়া, মনোয়ার হোসেন, দ্বীন ইসলাম, আলামীন হোসেন,তমছের আলী, মোহন মিয়া ও মুনছের আলী।

এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে নিশ্চিত করেছেন ধামরাই থানার ওসি মো. আতিকুর রহমান আতিক। তিনি আরও বলেন, ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সঙ্গে পরামর্শ করে এ ব্যাপারে পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন