রাঙামাটিতে গ্রামপ্রধানকে গুলি করে হত্যা
jugantor
রাঙামাটিতে গ্রামপ্রধানকে গুলি করে হত্যা

  রাঙামাটি প্রতিনিধি  

১৩ জুন ২০২১, ২৩:৫১:২৪  |  অনলাইন সংস্করণ

রাঙামাটির জুরাছড়িতে নিজ বাড়িতে পাথরমণি চাকমা (৬৩) নামের এক ব্যক্তিকে গুলি করে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। তিনি জুরাছড়ি সদর ইউনিয়নের লুলাংছড়ি কার্বারি (গ্রামের প্রধান) ছিলেন।

রাঙামাটির জুরাছড়িতে নিজ বাড়িতে পাথরমণি চাকমা (৬৩) নামের এক ব্যক্তিকে গুলি করে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। তিনি জুরাছড়ি সদর ইউনিয়নের লুলাংছড়ি কার্বারি (গ্রামের প্রধান) ছিলেন।

রোববার রাতে উপজেলার ৮ কিলোমিটার দূরে লুলাংছড়ির দুর্গম পাহাড়ি এলাকায় ঘটনাটি ঘটেছে বলে নিশ্চিত করেছেন রাঙামাটির পুলিশ সুপার মীর মোদ্দাছের হোসেন।

তিনি বলেন, পাথরমণি চাকমা সেখানকার সেনাবাহিনীর বিভিন্ন কাজ করতেন বলে জানা গেছে।তিনি একটি অস্ত্র মামলার অন্যতম সাক্ষী ছিলেন।ধারণা করা হচ্ছে, তার বিরোধী দল তাকে হত্যা করেছে। যৌথ বাহিনী ঘটনাস্থলে যাচ্ছে। পুলিশের কাছে এখনো নিহতের লাশ হস্তান্তর করা হয়নি। ঘটনাটি কীভাবে ঘটেছে তা বিস্তারিত পরে জানা যাবে।

ওই এলাকার ইউপি চেয়ারম্যান ক্যানন চাকমা বলেন, জুরাছড়ির প্রায় ৮ কিলোমিটার দূরে ঘটনাটি ঘটেছে। এলাকাটি খুবই দুর্গম এলাকা।ঘটনাস্থলের কিছু দূরে সেনাবাহিনীর একটি ক্যাম্প রয়েছে।সেখানে মোবাইলের নেটওয়ার্ক সহজে পাওয়া যায় না। তাই এখনো বিস্তারিত কিছু জানা যায়নি।

রাঙামাটিতে গ্রামপ্রধানকে গুলি করে হত্যা

 রাঙামাটি প্রতিনিধি 
১৩ জুন ২০২১, ১১:৫১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
রাঙামাটির জুরাছড়িতে নিজ বাড়িতে পাথরমণি চাকমা (৬৩) নামের এক ব্যক্তিকে গুলি করে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। তিনি জুরাছড়ি সদর ইউনিয়নের লুলাংছড়ি কার্বারি (গ্রামের প্রধান) ছিলেন।
প্রতীকী ছবি

রাঙামাটির জুরাছড়িতে নিজ বাড়িতে পাথরমণি চাকমা (৬৩) নামের এক ব্যক্তিকে গুলি করে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। তিনি জুরাছড়ি সদর ইউনিয়নের লুলাংছড়ি কার্বারি (গ্রামের প্রধান) ছিলেন।

রোববার রাতে উপজেলার ৮ কিলোমিটার দূরে লুলাংছড়ির দুর্গম পাহাড়ি এলাকায় ঘটনাটি ঘটেছে বলে নিশ্চিত করেছেন রাঙামাটির পুলিশ সুপার মীর মোদ্দাছের হোসেন।

তিনি বলেন, পাথরমণি চাকমা সেখানকার সেনাবাহিনীর বিভিন্ন কাজ করতেন বলে জানা গেছে।তিনি একটি অস্ত্র মামলার অন্যতম সাক্ষী ছিলেন।ধারণা করা হচ্ছে, তার বিরোধী দল তাকে হত্যা করেছে। যৌথ বাহিনী ঘটনাস্থলে যাচ্ছে। পুলিশের কাছে এখনো নিহতের লাশ হস্তান্তর করা হয়নি। ঘটনাটি কীভাবে ঘটেছে তা বিস্তারিত পরে জানা যাবে।

ওই এলাকার ইউপি চেয়ারম্যান ক্যানন চাকমা বলেন, জুরাছড়ির প্রায় ৮ কিলোমিটার দূরে ঘটনাটি ঘটেছে। এলাকাটি খুবই দুর্গম এলাকা।ঘটনাস্থলের কিছু দূরে সেনাবাহিনীর একটি ক্যাম্প রয়েছে।সেখানে মোবাইলের নেটওয়ার্ক সহজে পাওয়া যায় না। তাই এখনো বিস্তারিত কিছু জানা যায়নি।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন