৫০০ বছরের শাহী মসজিদের দেয়ালে আঁকা আম
jugantor
৫০০ বছরের শাহী মসজিদের দেয়ালে আঁকা আম

  আমানুল হক আমান, বাঘা (রাজশাহী)  

১৪ জুন ২০২১, ০০:৪৫:০৮  |  অনলাইন সংস্করণ

রাজশাহীর বাঘায় প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শন ৫০০ বছরের পুরনো বাঘা শাহী মসজিদ। এ মসজিদের শিলালিপিতে আমের ঐতিহ্য বহন করছে।

১৫২৩-১৫২৪ খ্রিস্টাব্দে (হিজরি-৯৩০) হোসেন শাহের পুত্র নুসরাত শাহ শাহী মসজিদ নির্মাণ করেন। এ শাহী মসজিদের শিলালিপিতে আমের টেরাকোটা অংকিত আছে; যা থেকে প্রমাণিত হয় বাঘার আমের সুখ্যাতি প্রাচীন আমল থেকে স্বীকৃত।

তাই এ উপজেলার আম বিশ্বে পরিচিতি করতে ব্র্যান্ডিং কম্পিটিশন শুরু করা হয়েছে। উপজেলা প্রশাসনের সহযোগিতায় কৃষি অফিসের ব্যবস্থাপনায় ১০ জুন থেকে ২০ জুন পর্যন্ত এ কম্পিটিশন চলবে।

জানা যায়, জেলায় ১৭ হাজার ৯৪৩ হেক্টর আমবাগানের মধ্যে বাঘা উপজেলায় ৮ হাজার ৩৬৮ হেক্টর জমিতে আমবাগান রয়েছে। উপজেলায় উল্লেখযোগ্যে আমের মধ্যে গোপাল ভোগ, হিমসাগার, আম্রপালি, ল্যাংড়া, তোতাপরি, ফজলি, লখনা। এই আম রপ্তানি করা হচ্ছে ইংল্যান্ড, নেদারল্যান্ড, সুইডেন, নরওয়ে, পর্তুগাল, ফ্রান্স, রাশিয়াসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে।

এই আম বিশ্বে পরিচিতি ঘটানোর জন্য ১০ দিনব্যাপী এ উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। এ উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম।

এ আয়োজনের মধ্যে উত্তম কৃষি ব্যবস্থাপনা ও নীতিমালা অনুসরণ করে ৮টি শর্ত আরোপ করা হয়েছে। এ শর্তে যারা জয়ী হবেন তারা পাবেন আকর্ষণীয় পুরস্কার।

এ বিষয়ে উপজেলা কৃষি অফিসার শফিউল্লাহ সুলতান বলেন, ইতোমধ্যে বাঘার আম দেশে পরিচিত অর্জন করেছে। এ আমের ইতিহাস, ঐতিহ্য ও নিরাপদ আম উৎপাদ এবং বিশ্বে পরিচিত করতে ব্র্যান্ডিং কম্পিটিশন শুরু করা হয়েছে। ইতোমধ্যে যুক্তরাষ্ট্রে ৫ টনের দুটি চালান দেয়া হয়েছে।

৫০০ বছরের শাহী মসজিদের দেয়ালে আঁকা আম

 আমানুল হক আমান, বাঘা (রাজশাহী) 
১৪ জুন ২০২১, ১২:৪৫ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

রাজশাহীর বাঘায় প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শন ৫০০ বছরের পুরনো বাঘা শাহী মসজিদ। এ মসজিদের শিলালিপিতে আমের ঐতিহ্য বহন করছে।

১৫২৩-১৫২৪ খ্রিস্টাব্দে (হিজরি-৯৩০) হোসেন শাহের পুত্র নুসরাত শাহ শাহী মসজিদ নির্মাণ করেন। এ শাহী মসজিদের শিলালিপিতে আমের টেরাকোটা অংকিত আছে; যা থেকে প্রমাণিত হয় বাঘার আমের সুখ্যাতি প্রাচীন আমল থেকে স্বীকৃত।

তাই এ উপজেলার আম বিশ্বে পরিচিতি করতে ব্র্যান্ডিং কম্পিটিশন শুরু করা হয়েছে। উপজেলা প্রশাসনের সহযোগিতায় কৃষি অফিসের ব্যবস্থাপনায় ১০ জুন থেকে ২০ জুন পর্যন্ত এ কম্পিটিশন চলবে।

জানা যায়, জেলায় ১৭ হাজার ৯৪৩ হেক্টর আমবাগানের মধ্যে বাঘা উপজেলায় ৮ হাজার ৩৬৮ হেক্টর জমিতে আমবাগান রয়েছে। উপজেলায় উল্লেখযোগ্যে আমের মধ্যে গোপাল ভোগ, হিমসাগার, আম্রপালি, ল্যাংড়া, তোতাপরি, ফজলি, লখনা। এই আম রপ্তানি করা হচ্ছে ইংল্যান্ড, নেদারল্যান্ড, সুইডেন, নরওয়ে, পর্তুগাল, ফ্রান্স, রাশিয়াসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে।

এই আম বিশ্বে পরিচিতি ঘটানোর জন্য ১০ দিনব্যাপী এ উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। এ উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম।

এ আয়োজনের মধ্যে উত্তম কৃষি ব্যবস্থাপনা ও নীতিমালা অনুসরণ করে ৮টি শর্ত আরোপ করা হয়েছে। এ শর্তে যারা জয়ী হবেন তারা পাবেন আকর্ষণীয় পুরস্কার।

এ বিষয়ে উপজেলা কৃষি অফিসার শফিউল্লাহ সুলতান বলেন, ইতোমধ্যে বাঘার আম দেশে পরিচিত অর্জন করেছে। এ আমের ইতিহাস, ঐতিহ্য ও নিরাপদ আম উৎপাদ এবং বিশ্বে পরিচিত করতে ব্র্যান্ডিং কম্পিটিশন শুরু করা হয়েছে। ইতোমধ্যে যুক্তরাষ্ট্রে ৫ টনের দুটি চালান দেয়া হয়েছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন