বড়শিতে ধরা পড়লো ৩০ কেজি কাতল!
jugantor
বড়শিতে ধরা পড়লো ৩০ কেজি কাতল!

  বরিশাল ব্যুরো  

১৪ জুন ২০২১, ২১:৩৩:২৬  |  অনলাইন সংস্করণ

বরিশালের ঐতিহ্যবাহী দুর্গাসাগর দীঘি থেকে ৩০ কেজি ওজনের বিশালাকৃতির একটি কাতল মাছ সৌখিন মৎস্যজীবীর বড়শিতে ধরা পড়েছে। বড়শিতে বাঁধার পর আট ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে রোববার রাত দেড়টায় মাছটি পুকুর থেকে তুলতে সক্ষম হন মাছ শিকারি সোহেলসহ তার বন্ধুরা।

১০ বছর পর এই দীঘি থেকে এতো বড় মাছ ধরা পড়ায় ওই এলাকায় বেশ হৈ-চৈ লেগে যায়।

সোমবার দুপুরে সোহেল জমাদ্দার জানান, বরিশালের বাবুগঞ্জ উপজেলার দুর্গাসাগর দীঘির উত্তর প্রান্তে টিকেট কিনে তার বন্ধুদের নিয়ে মাছ শিকারে অংশগ্রহণ করেন। রোববার প্রথম দিনে বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে আনুমানিক ৩০ কেজি ওজনের ওই কাতল মাছটি তার বড়শিতে বাঁধে। এরপর বন্ধু সুমিতসহ একাধিক ব্যক্তির সহায়তা নিয়ে প্রায় ৮ ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে রাত দেড়টার দিকে দীঘির দক্ষিণ প্রান্ত থেকে কাতল মাছটি তীরে তুলতে সক্ষম হন।

তিনি আরও বলেন, মাছটি বড়শিতে বাঁধার পর থেকেই পুরো দীঘি এলাকায় বেশ হৈ-চৈ লেগে যায়। মাছটি তীরে তোলার আগ মুহূর্ত পর্যন্ত আমাদের অকল্পনীয় সময় কেটেছে। মাছটি দেখে আনন্দ ধরে রাখার উপায় ছিল না।

প্রত্যক্ষদর্শী সবুজ হোসেন শিপন জানান, মাছটি বড়শিতে আটকে যাওয়ার খবর পেয়েই সোহেল ও তার বন্ধু সুমিতসহ শুভানুধ্যায়ীরা দীঘি পাড়ে গিয়ে মাছটি তীরে তোলেন। এতো বড় মাছ গত ১০ বছরে দুর্গাসাগর দীঘিতে ধরা না পড়ায় ভাঙ্গা উচ্ছ্বাস ছিল সবার মাঝে।

বড়শিতে ধরা পড়লো ৩০ কেজি কাতল!

 বরিশাল ব্যুরো 
১৪ জুন ২০২১, ০৯:৩৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

বরিশালের ঐতিহ্যবাহী দুর্গাসাগর দীঘি থেকে ৩০ কেজি ওজনের বিশালাকৃতির একটি কাতল মাছ সৌখিন মৎস্যজীবীর বড়শিতে ধরা পড়েছে। বড়শিতে বাঁধার পর আট ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে রোববার রাত দেড়টায় মাছটি পুকুর থেকে তুলতে সক্ষম হন মাছ শিকারি সোহেলসহ তার বন্ধুরা।

১০ বছর পর এই দীঘি থেকে এতো বড় মাছ ধরা পড়ায় ওই এলাকায় বেশ হৈ-চৈ লেগে যায়।

সোমবার দুপুরে সোহেল জমাদ্দার জানান, বরিশালের বাবুগঞ্জ উপজেলার দুর্গাসাগর দীঘির উত্তর প্রান্তে টিকেট কিনে তার বন্ধুদের নিয়ে মাছ শিকারে অংশগ্রহণ করেন। রোববার প্রথম দিনে বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে আনুমানিক ৩০ কেজি ওজনের ওই কাতল মাছটি তার বড়শিতে বাঁধে। এরপর বন্ধু সুমিতসহ একাধিক ব্যক্তির সহায়তা নিয়ে প্রায় ৮ ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে রাত দেড়টার দিকে দীঘির দক্ষিণ প্রান্ত থেকে কাতল মাছটি তীরে তুলতে সক্ষম হন।

তিনি আরও বলেন, মাছটি বড়শিতে বাঁধার পর থেকেই পুরো দীঘি এলাকায় বেশ হৈ-চৈ লেগে যায়। মাছটি তীরে তোলার আগ মুহূর্ত পর্যন্ত আমাদের অকল্পনীয় সময় কেটেছে। মাছটি দেখে আনন্দ ধরে রাখার উপায় ছিল না।

প্রত্যক্ষদর্শী সবুজ হোসেন শিপন জানান, মাছটি বড়শিতে আটকে যাওয়ার খবর পেয়েই সোহেল ও তার বন্ধু সুমিতসহ শুভানুধ্যায়ীরা দীঘি পাড়ে গিয়ে মাছটি তীরে তোলেন। এতো বড় মাছ গত ১০ বছরে দুর্গাসাগর দীঘিতে ধরা না পড়ায় ভাঙ্গা উচ্ছ্বাস ছিল সবার মাঝে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন