যুবদল করতে বিএনপির শীর্ষ পদ থেকে পদত্যাগ
jugantor
যুবদল করতে বিএনপির শীর্ষ পদ থেকে পদত্যাগ

  নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি  

১৪ জুন ২০২১, ২২:২৯:৪৭  |  অনলাইন সংস্করণ

যুবদলের নেতৃত্বে আসতে আগ্রহী হওয়ায় মূলদল বিএনপির শীর্ষ পদ ছাড়লেন এক নেতা। সোমবার নিজের পদত্যাগ করার বিষয়টি স্বীকার করেছেন মহানগর বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক মনিরুল ইসলাম সজল।

তবে দলটির কর্মী সমর্থকরা বলছেন, অঙ্গদলের নেতৃত্ব নিতে মূল দলের এমন পদ ছেড়ে দেয়ার ঘটনায় তারা বিস্মিত।

তবে মনিরুল ইসলাম সজল জানান, আমি নারায়ণগঞ্জ মহানগর যুবদলের কর্মীসভার আগেই কেন্দ্রে পদত্যাগপত্র জমা দিয়েছি। আমি দলের সঙ্গেই আছি এবং যুবদলের নেতৃত্বে আসতে আগ্রহী বলেই মহানগর বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক পদ থেকে পদত্যাগ করছি।

দলীয় সূত্র জানায়, এর আগে মনিরুল ইসলাম সজল মহানগর ছাত্রদলের সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। পরে তিনি সরাসরি মহানগর বিএনপির সহ সাংগঠনিক সম্পাদক পদ পেয়ে যান। পরে তিনি পূর্ণাঙ্গ কমিটি হবার সময় যুগ্ম সম্পাদক পদ পান। এ পদেই তিনি দীর্ঘদিন দায়িত্ব পালন করছেন।

মহানগর ছাত্রদলের সভাপতি থাকা অবস্থায় তিনি সাধারণ সম্পাদককে বাদ দিয়েই মহানগর ছাত্রদলের ইউনিট কমিটি ঘোষণা করে বিতর্কে জড়ান। পরে একদিনের মাথায় কেন্দ্র থেকে সেই কমিটি বাতিল করে দেয়া হয়। সে সময় আর মহানগর ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা কোনো ইউনিট কমিটি ঘোষণা করতে পারেনি।

তবে মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক (ভারপ্রাপ্ত) আব্দুস সবুর খান সেন্টু জানান, আমি এখনো এ ব্যাপারে অবগত নই। হয়তো কেন্দ্রে জমা দিতে পারে। আমার কাছে কোনো পদত্যাগপত্র আসেনি।

যুবদল করতে বিএনপির শীর্ষ পদ থেকে পদত্যাগ

 নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি 
১৪ জুন ২০২১, ১০:২৯ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

যুবদলের নেতৃত্বে আসতে আগ্রহী হওয়ায় মূলদল বিএনপির শীর্ষ পদ ছাড়লেন এক নেতা। সোমবার নিজের পদত্যাগ করার বিষয়টি স্বীকার করেছেন মহানগর বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক মনিরুল ইসলাম সজল।

তবে দলটির কর্মী সমর্থকরা বলছেন, অঙ্গদলের নেতৃত্ব নিতে মূল দলের এমন পদ ছেড়ে দেয়ার ঘটনায় তারা বিস্মিত।

তবে মনিরুল ইসলাম সজল জানান, আমি নারায়ণগঞ্জ মহানগর যুবদলের কর্মীসভার আগেই কেন্দ্রে পদত্যাগপত্র জমা দিয়েছি। আমি দলের সঙ্গেই আছি এবং যুবদলের নেতৃত্বে আসতে আগ্রহী বলেই মহানগর বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক পদ থেকে পদত্যাগ করছি।

দলীয় সূত্র জানায়, এর আগে মনিরুল ইসলাম সজল মহানগর ছাত্রদলের সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। পরে তিনি সরাসরি মহানগর বিএনপির সহ সাংগঠনিক সম্পাদক পদ পেয়ে যান। পরে তিনি পূর্ণাঙ্গ কমিটি হবার সময় যুগ্ম সম্পাদক পদ পান। এ পদেই তিনি দীর্ঘদিন দায়িত্ব পালন করছেন।

মহানগর ছাত্রদলের সভাপতি থাকা অবস্থায় তিনি সাধারণ সম্পাদককে বাদ দিয়েই মহানগর ছাত্রদলের ইউনিট কমিটি ঘোষণা করে বিতর্কে জড়ান। পরে একদিনের মাথায় কেন্দ্র থেকে সেই কমিটি বাতিল করে দেয়া হয়। সে সময় আর মহানগর ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা কোনো ইউনিট কমিটি ঘোষণা করতে পারেনি।

তবে মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক (ভারপ্রাপ্ত) আব্দুস সবুর খান সেন্টু জানান, আমি এখনো এ ব্যাপারে অবগত নই। হয়তো কেন্দ্রে জমা দিতে পারে। আমার কাছে কোনো পদত্যাগপত্র আসেনি।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন