মাধবপুরে পানির নালায় ইউপি সদস্যের বাঁধ নির্মাণ
jugantor
মাধবপুরে পানির নালায় ইউপি সদস্যের বাঁধ নির্মাণ

  মাধবপুর (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি  

১৫ জুন ২০২১, ১৪:০৩:৩৪  |  অনলাইন সংস্করণ

হবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলার বহরা ইউনিয়নে এক ইউপি সদস্য পানি চলাচলের নালায় বাঁধ দেওয়ায় এলাকায় জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়ে শতাধিক পরিবার এখন ভোগান্তির মধ্যে পড়েছে।

এ নিয়ে স্থানীয় জনগণের মধ্যে ক্ষোভ ও উত্তেজনা দেখা দিয়েছে। বহরা ইউনিয়নের আফজলপুর গ্রামের ভুক্তভোগী পরিবারের অভিযোগ ৫০/৬০ বছর ধরে আফজলপুর গ্রামের বৃষ্টির পানি চলাচলের একটি নালা ছিল। সম্প্রতি ৩নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য শাহরিয়ার হিলালী মানি তার বাড়ির পাশে পানি চলাচলের নালা মাটি দিয়ে বন্ধ করে ফেলায় উজানে বৃষ্টির পানি জমে মন্দির, কৃষিজমি, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও বিভিন্ন বাসাবাড়ি জলমগ্ন হয়ে পড়ে।

এতে জনগণের চলাচলে চরম ভোগান্তির মধ্যে পড়েছেন। চৌমুহনী খুরশিদ হাইস্কুল অ্যান্ড কলেজের শিক্ষক রিনা কর বলেন, যুগ যুগ ধরে গ্রামবাসীর পানি এ নালা দিয়ে নিষ্কাশন হতো।

কিন্তু সম্প্রতি ইউপি সদস্য নালাটি বন্ধ করে দেওয়ায় জনগণ চরম ভোগান্তির মধ্যে পড়েছে। প্রতিদিন হাঁটুপানি ভেঙে গ্রামের লোকজন যাতায়াত করছে।

শিক্ষক আব্দুর রহমান বলেন, একজন জনপ্রতিনিধির এ ধরনের কর্মকাণ্ডে এলাকাবাসী হতভম্ব হয়ে পড়েছেন। এ নিয়ে গ্রামবাসীর মধ্যে ক্ষোভ ও উত্তেজনা বিরাজ করছে।

ইউপি সদস্য শাহরিয়ার হিলালী মানি বলেন, এতদিন যে নালা দিয়ে পানি যেত, এটি সরকারি রেকর্ডিয় কোনো নালা নয়; আমার ব্যক্তিগত জায়গায় মাটি ভরাট করেছি।

বহরা ইউপি চেয়ারম্যান আরিফুর রহমান বলেন, বাঁধ দেওয়ায় জনগণ ভোগান্তির মধ্যে পড়েছে সত্য, তবে নালাটি সরকারি নালা নয়। উভয়পক্ষকে নিয়ে আলোচনা করে এ সমস্যা সমাধানের উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে। আশা করি অচিরেই এ সমস্যা সমাধান হয়ে যাবে।

প্রতিবাদে এলাকাবাসীর সভা : সোমবার বিকালে আফজলপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে এ ঘটনায় স্থানীয় লোকজন প্রতিবাদসভা করেছে। বহরা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আরিফুর রহমান আরিফের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত প্রতিবাদসভায় বক্তব্য রাখেন ডা. লাল মিয়া, আব্দুর রহমান (সাত্তার মাস্টার), ডা. হরিশ চন্দ্র দেব, বিল্লাল হোসেন, ফারুক মেম্বার, স্বপ্না বেগম, আরমান মিয়াসহ অনেকেই।

সভায় বক্তারা বলেন, পানি নিষ্কাশনের কথা বলে টাকা নিয়ে ও নিষ্কাশনের ব্যবস্থা করেননি ইউপি সদস্য (মেম্বার) শাহরিয়ার উদ্দিন হিলালী (মানী মেম্বার)। কালভার্টের সামনে মাটি ফেলে ভরাট করে পানি নিষ্কাশনে বাধা দিয়ে স্থানীয়দের দুর্ভোগে ফেলেছেন মেম্বার।

মাধবপুরে পানির নালায় ইউপি সদস্যের বাঁধ নির্মাণ

 মাধবপুর (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি 
১৫ জুন ২০২১, ০২:০৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

হবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলার বহরা ইউনিয়নে এক ইউপি সদস্য পানি চলাচলের নালায় বাঁধ দেওয়ায় এলাকায় জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়ে শতাধিক পরিবার এখন ভোগান্তির মধ্যে পড়েছে।

এ নিয়ে স্থানীয় জনগণের মধ্যে ক্ষোভ ও উত্তেজনা দেখা দিয়েছে। বহরা ইউনিয়নের আফজলপুর গ্রামের ভুক্তভোগী পরিবারের অভিযোগ ৫০/৬০ বছর ধরে আফজলপুর গ্রামের বৃষ্টির পানি চলাচলের একটি নালা ছিল। সম্প্রতি ৩নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য শাহরিয়ার হিলালী মানি তার বাড়ির পাশে পানি চলাচলের নালা মাটি দিয়ে বন্ধ করে ফেলায় উজানে বৃষ্টির পানি জমে মন্দির, কৃষিজমি, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও বিভিন্ন বাসাবাড়ি জলমগ্ন হয়ে পড়ে।

এতে জনগণের চলাচলে চরম ভোগান্তির মধ্যে পড়েছেন। চৌমুহনী খুরশিদ হাইস্কুল অ্যান্ড কলেজের শিক্ষক রিনা কর বলেন, যুগ যুগ ধরে গ্রামবাসীর পানি এ নালা দিয়ে নিষ্কাশন হতো।

কিন্তু সম্প্রতি ইউপি সদস্য নালাটি বন্ধ করে দেওয়ায় জনগণ চরম ভোগান্তির মধ্যে পড়েছে। প্রতিদিন হাঁটুপানি ভেঙে গ্রামের লোকজন যাতায়াত করছে।

শিক্ষক আব্দুর রহমান বলেন, একজন জনপ্রতিনিধির এ ধরনের কর্মকাণ্ডে এলাকাবাসী হতভম্ব হয়ে পড়েছেন। এ নিয়ে গ্রামবাসীর মধ্যে ক্ষোভ ও উত্তেজনা বিরাজ করছে।

ইউপি সদস্য শাহরিয়ার হিলালী মানি বলেন, এতদিন যে নালা দিয়ে পানি যেত, এটি সরকারি রেকর্ডিয় কোনো নালা নয়; আমার ব্যক্তিগত জায়গায় মাটি ভরাট করেছি।

বহরা ইউপি চেয়ারম্যান আরিফুর রহমান বলেন, বাঁধ দেওয়ায় জনগণ ভোগান্তির মধ্যে পড়েছে সত্য, তবে নালাটি সরকারি নালা নয়। উভয়পক্ষকে নিয়ে আলোচনা করে এ সমস্যা সমাধানের উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে। আশা করি অচিরেই এ সমস্যা সমাধান হয়ে যাবে।

প্রতিবাদে এলাকাবাসীর সভা : সোমবার বিকালে আফজলপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে এ ঘটনায় স্থানীয় লোকজন প্রতিবাদসভা করেছে। বহরা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আরিফুর রহমান আরিফের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত প্রতিবাদসভায় বক্তব্য রাখেন ডা. লাল মিয়া, আব্দুর রহমান (সাত্তার মাস্টার), ডা. হরিশ চন্দ্র দেব, বিল্লাল হোসেন, ফারুক মেম্বার, স্বপ্না বেগম, আরমান মিয়াসহ অনেকেই।

সভায় বক্তারা বলেন, পানি নিষ্কাশনের কথা বলে টাকা নিয়ে ও নিষ্কাশনের ব্যবস্থা করেননি ইউপি সদস্য (মেম্বার) শাহরিয়ার উদ্দিন হিলালী (মানী মেম্বার)। কালভার্টের সামনে মাটি ফেলে ভরাট করে পানি নিষ্কাশনে বাধা দিয়ে স্থানীয়দের দুর্ভোগে ফেলেছেন মেম্বার।

 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন