গাজীপুরে স্কুল মাঠ দখলচেষ্টার অভিযোগে মামলা
jugantor
গাজীপুরে স্কুল মাঠ দখলচেষ্টার অভিযোগে মামলা

  শাহ সামসুল হক রিপন, গাজীপুর প্রতিনিধি  

১৭ জুন ২০২১, ১৬:০১:০১  |  অনলাইন সংস্করণ

করোনাভাইরাসের কারণে সরকারি সিদ্ধান্তে স্কুল বন্ধ থাকার সুযোগে গাজীপুরের কালিয়াকৈরে ৬৭ নম্বর সাভাজপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠ দখল করে নেওয়ার চেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গেছে। দখল ঠেকাতে ওই বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি মো. হেলাল উদ্দিন মামলা করেছেন।

হেলাল উদ্দিন যুগান্তরকে জানান, ১৯২৮ সালে প্রতিষ্ঠিত সাহবাজপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ১৯৪৭ সাল থেকে এ জায়গা মাঠ হিসেবে ব্যবহার করছে। বর্তমানে বিদ্যালয়ে চারশতাধিক শিক্ষার্থী রয়েছে। করোনার কারণে সরকারি সিদ্ধান্তে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকার সুযোগে একটি চক্র ১৯৬২ সালের একটি দলিল মূলে ওই স্কুলের মাঠ দখলের চেষ্টা চালায় এবং সম্প্রতি মো. আরিফ হোসেন, নাজমা আক্তার ও আব্দুল বারেকের নেতৃত্বে একটি দল হঠাৎ মাঠে ইট, বালু ও রড, সিমেন্ট নিয়ে আসে। পরে এলাকার মানুষ প্রতিবাদ জানালে তারা ঘটনাস্থল থেকে চলে যায়।

আরিফ হোসেনের মামা দলিল লেখক লিয়াকত হোসেন মন্টু জানান, দলিল অনুযায়ী ওই জমির মালিক আমার ভাগিনা আরিফ হোসেন গং। তারা স্কুলের জমি দখল করছে না। তাদের নিজের জমিতেই বাড়ি বানাচ্ছে, তবে বৃষ্টির জন্য বর্তমানে কাজ বন্ধ রয়েছে।

ওই বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি মো. হেলাল উদ্দিনের দায়েরকৃত মামলার আইনজীবী অ্যাডভোকেট মামুন জানান, আরিফ হোসেন গং ১৯৬২ সালের ১১ নম্বর আমমোক্তার দলিল মূলে যে, স্কুলের মাঠ দাবি করছেন ওই ১১ নম্বর দলিলের সার্টিফাই কপিতে জমির মৌজা, দাগ, খতিয়ান ও দাতা-গ্রহীতার কোনো মিল নেই। তাই আমার মোয়াক্কেল ওই দলিলের প্রতিকার চেয়ে প্রতারণা ও জালিয়াতির মামলা করেছেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে মো. আরিফ হোসেন বলেন, ওই জমির দলিল মূলে মালিক ছিলেন আব্দুল কাদের। আমরা ওনার (কাদের) কাছ থেকে ২০১৪ সালে ক্রয় করে মালিক হয়েছি। স্কুলের প্রয়োজন হলে সরকারি লোক বা এলাকাবাসী আমাদের বলবে। কিন্তু হেলাল স্কুলের সভাপতি হিসেবে আজ আছে কাল থাকবে না। উনি অহেতুক আমাদের নামে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করছেন।

গাজীপুরে স্কুল মাঠ দখলচেষ্টার অভিযোগে মামলা

 শাহ সামসুল হক রিপন, গাজীপুর প্রতিনিধি 
১৭ জুন ২০২১, ০৪:০১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

করোনাভাইরাসের কারণে সরকারি সিদ্ধান্তে স্কুল বন্ধ থাকার সুযোগে গাজীপুরের কালিয়াকৈরে ৬৭ নম্বর সাভাজপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠ দখল করে নেওয়ার চেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গেছে। দখল ঠেকাতে ওই বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি মো. হেলাল উদ্দিন মামলা করেছেন। 

হেলাল উদ্দিন যুগান্তরকে জানান, ১৯২৮ সালে প্রতিষ্ঠিত সাহবাজপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ১৯৪৭ সাল থেকে এ জায়গা মাঠ হিসেবে ব্যবহার করছে। বর্তমানে বিদ্যালয়ে চারশতাধিক শিক্ষার্থী রয়েছে। করোনার কারণে সরকারি সিদ্ধান্তে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকার সুযোগে একটি চক্র ১৯৬২ সালের একটি দলিল মূলে ওই স্কুলের মাঠ দখলের চেষ্টা চালায় এবং সম্প্রতি মো. আরিফ হোসেন, নাজমা আক্তার ও আব্দুল বারেকের নেতৃত্বে একটি দল হঠাৎ মাঠে ইট, বালু ও রড, সিমেন্ট নিয়ে আসে। পরে এলাকার মানুষ প্রতিবাদ জানালে তারা ঘটনাস্থল থেকে চলে যায়।

আরিফ হোসেনের মামা দলিল লেখক লিয়াকত হোসেন মন্টু জানান, দলিল অনুযায়ী ওই জমির মালিক আমার ভাগিনা আরিফ হোসেন গং। তারা স্কুলের জমি দখল করছে না। তাদের নিজের জমিতেই বাড়ি বানাচ্ছে, তবে বৃষ্টির জন্য বর্তমানে কাজ বন্ধ রয়েছে। 

ওই বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি মো. হেলাল উদ্দিনের দায়েরকৃত মামলার আইনজীবী অ্যাডভোকেট মামুন জানান, আরিফ হোসেন গং ১৯৬২ সালের ১১ নম্বর আমমোক্তার দলিল মূলে যে, স্কুলের মাঠ দাবি করছেন ওই ১১ নম্বর দলিলের সার্টিফাই কপিতে জমির মৌজা, দাগ, খতিয়ান ও দাতা-গ্রহীতার কোনো মিল নেই। তাই আমার মোয়াক্কেল ওই দলিলের প্রতিকার চেয়ে প্রতারণা ও  জালিয়াতির মামলা করেছেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে মো. আরিফ হোসেন বলেন, ওই জমির দলিল মূলে মালিক ছিলেন আব্দুল কাদের। আমরা ওনার (কাদের) কাছ থেকে ২০১৪ সালে ক্রয় করে মালিক হয়েছি। স্কুলের প্রয়োজন হলে সরকারি লোক বা এলাকাবাসী আমাদের বলবে। কিন্তু হেলাল স্কুলের সভাপতি হিসেবে আজ আছে কাল থাকবে না। উনি অহেতুক আমাদের নামে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করছেন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন