দক্ষিণ আফ্রিকায় নিজ কর্মচারীর হাতে নোয়াখালীর যুবক খুন
jugantor
দক্ষিণ আফ্রিকায় নিজ কর্মচারীর হাতে নোয়াখালীর যুবক খুন

  নোয়াখালী প্রতিনিধি  

১৭ জুন ২০২১, ১৭:৩৯:৪৫  |  অনলাইন সংস্করণ

দক্ষিণ আফ্রিকার জোহানেসবার্গে নিজের দোকান কর্মচারীর হাতে খুন হয়েছেন নোয়াখালী বেগমগঞ্জের আলাইয়ারপুর ইউনিয়নের আমানউল্লাপুর গ্রামের যুবক মিজানুর রহমান বাসু। জোহানসবার্গ থেকে বুধবার গভীর রাতে এ খবর জানিয়েছেন নিহতের ছোটভাই সোহেল।

সোহেল তার আত্মীয়স্বজনদের জানান, প্রতিদিনের মতো সোমবার রাতে খাওয়ার পর দোকান বন্ধ করে মিজানুর রহমান ঘুমাতে যান। ঘুমাতে যাওয়ার পর তার স্থানীয় নিগ্রো কর্মচারীর সঙ্গে কথাকাটাকাটির একপর্যায়ে কর্মচারী লোহার রড দিয়ে আঘাত করে পালিয়ে যায়। পরদিন ভোরে প্রতিবেশীরা তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নেওয়ার পর মঙ্গলবার ভোরে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

খবর পেয়ে সাউথ আফ্রিকায় থাকা ছোটভাই সোহেল বুধবার ঘটনাস্থলে আসেন এবং হাসপাতালে থাকা তার বড়ভাই মিজানুর রহমানের লাশ শনাক্ত করেন। বুধবার এ খবর নিজ বাড়িতে আসলে মা, স্ত্রী ও আত্মীয়স্বজনদের মধ্যে শোকের মাতম শুরু হয়।

নিহত মিজানুর বৃদ্ধা মা, স্ত্রী, ১ কন্যাসন্তানসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন বলে এলাকার চেয়ারম্যান আনিসুর রহমান নিশ্চিত করছেন।

দক্ষিণ আফ্রিকায় নিজ কর্মচারীর হাতে নোয়াখালীর যুবক খুন

 নোয়াখালী প্রতিনিধি 
১৭ জুন ২০২১, ০৫:৩৯ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

দক্ষিণ আফ্রিকার জোহানেসবার্গে নিজের দোকান কর্মচারীর হাতে খুন হয়েছেন নোয়াখালী বেগমগঞ্জের আলাইয়ারপুর ইউনিয়নের আমানউল্লাপুর গ্রামের যুবক মিজানুর রহমান বাসু। জোহানসবার্গ থেকে বুধবার গভীর রাতে এ খবর জানিয়েছেন নিহতের ছোটভাই সোহেল। 

সোহেল তার আত্মীয়স্বজনদের জানান, প্রতিদিনের মতো সোমবার রাতে খাওয়ার পর দোকান বন্ধ করে মিজানুর রহমান ঘুমাতে যান। ঘুমাতে যাওয়ার পর তার স্থানীয় নিগ্রো কর্মচারীর সঙ্গে কথাকাটাকাটির একপর্যায়ে কর্মচারী লোহার রড দিয়ে আঘাত করে পালিয়ে যায়। পরদিন ভোরে প্রতিবেশীরা তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নেওয়ার পর মঙ্গলবার ভোরে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। 

খবর পেয়ে সাউথ আফ্রিকায় থাকা ছোটভাই সোহেল বুধবার ঘটনাস্থলে আসেন এবং হাসপাতালে থাকা তার বড়ভাই মিজানুর রহমানের লাশ শনাক্ত করেন। বুধবার এ খবর নিজ বাড়িতে আসলে মা, স্ত্রী ও আত্মীয়স্বজনদের মধ্যে শোকের মাতম শুরু হয়।

নিহত মিজানুর বৃদ্ধা মা, স্ত্রী, ১ কন্যাসন্তানসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন বলে এলাকার চেয়ারম্যান আনিসুর রহমান নিশ্চিত করছেন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন