নারায়ণগঞ্জে গ্যাসের গন্ধে নগরীজুড়ে আতঙ্ক
jugantor
নারায়ণগঞ্জে গ্যাসের গন্ধে নগরীজুড়ে আতঙ্ক

  ফতুল্লা (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি  

১৮ জুন ২০২১, ০০:৫৮:০৫  |  অনলাইন সংস্করণ

নারায়ণগঞ্জে নগর ও শহরতলীর বিভিন্ন এলাকায় গ্যাসের গন্ধে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার পর থেকে ফতুল্লার মধ্য সস্তাপুর ও নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের ১২নং ওয়ার্ডসহ নগরীর ১৩, ১৬ এবং ১৭নং ওয়ার্ডের বাসিন্দাদের কাছ থেকে এমন অভিযোগ পাওয়া যায়। এতে অনেক এলাকাতেই আতঙ্কে রান্না বন্ধ রেখেছেন গৃহিণীরা।

এলাকাবাসী জানান, গত মে মাস থেকেই জেলার বিভিন্ন এলাকায় নানা স্থানে সময়ে সময়ে গ্যাসের গন্ধ পাওয়া যাচ্ছিল। তারই ধারাবাহিকতায় বৃহস্পতিবারও সেই একই গন্ধ পাওয়া গেলো।

গ্যাসের এই গন্ধের রহস্য নিয়ে ১২ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর শওকত হাসেম শকুও জানান, গ্যাস লিগেজ থেকেই এই গন্ধের উৎপত্তি।

ফতুল্লার সস্তাপুর এলাকার নজরুল মিয়া জানান,নারায়ণগঞ্জের অনেক এলাকায়ই গ্যাস লাইন থেকে প্রচুর গ্যাস লিকেজ হয়ে প্রচুর গন্ধ বের হচ্ছে। এজন্য বাসা বাড়ির অনেকেই মশার যন্ত্রনা সহ্য করেও দরজা জানালা খোলা রেখেছে। ভয়ে চুলায় আগুন ধরাচ্ছেন না। এতে রান্না করার ঝামেলায় রয়েছে অনেক পরিবার।

এ ব্যাপারে তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন অ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেডের নারায়ণগঞ্জের ডিজিএম গোলাম ফারুক বলেন, যখন গ্যাসের প্রেশার কমে যায়, তখন টেকনিকাল কারণেই আমরা ক্যামিকেল মিশ্রিত করে দেই। তখন গ্যাস লিকেজ দিয়ে সেই গ্যাস বের হলে গন্ধ ছড়ায়।

যেহেতু সেই লিকেজগুলোতে স্বাভাবিক সময়ে কোন দুর্ঘটনা ঘটে না। তাই আতঙ্কের কিছু নেই। যদি আবদ্ধ কোথাও গ্যাস আটকে থাকে, তাহলে দুর্ঘটনা ঘটে। তবে, কোনো গ্যাস লিকেজই ভালো না।

নারায়ণগঞ্জে গ্যাসের গন্ধে নগরীজুড়ে আতঙ্ক

 ফতুল্লা (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি 
১৮ জুন ২০২১, ১২:৫৮ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

নারায়ণগঞ্জে নগর ও শহরতলীর বিভিন্ন এলাকায় গ্যাসের গন্ধে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার পর থেকে ফতুল্লার মধ্য সস্তাপুর ও নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের ১২নং ওয়ার্ডসহ নগরীর ১৩, ১৬ এবং ১৭নং ওয়ার্ডের বাসিন্দাদের কাছ থেকে এমন অভিযোগ পাওয়া যায়। এতে অনেক এলাকাতেই আতঙ্কে রান্না বন্ধ রেখেছেন গৃহিণীরা।

এলাকাবাসী জানান, গত মে মাস থেকেই জেলার বিভিন্ন এলাকায় নানা স্থানে সময়ে সময়ে গ্যাসের গন্ধ পাওয়া যাচ্ছিল। তারই ধারাবাহিকতায় বৃহস্পতিবারও সেই একই গন্ধ পাওয়া গেলো।

গ্যাসের এই গন্ধের রহস্য নিয়ে ১২ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর শওকত হাসেম শকুও জানান, গ্যাস লিগেজ থেকেই এই গন্ধের উৎপত্তি।

ফতুল্লার সস্তাপুর এলাকার নজরুল মিয়া জানান,নারায়ণগঞ্জের অনেক এলাকায়ই গ্যাস লাইন থেকে প্রচুর গ্যাস লিকেজ হয়ে প্রচুর গন্ধ বের হচ্ছে। এজন্য বাসা বাড়ির অনেকেই মশার যন্ত্রনা সহ্য করেও দরজা জানালা খোলা রেখেছে। ভয়ে চুলায় আগুন ধরাচ্ছেন না। এতে রান্না করার ঝামেলায় রয়েছে অনেক পরিবার।

এ ব্যাপারে তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন অ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেডের নারায়ণগঞ্জের ডিজিএম গোলাম ফারুক বলেন, যখন গ্যাসের প্রেশার কমে যায়, তখন টেকনিকাল কারণেই আমরা ক্যামিকেল মিশ্রিত করে দেই। তখন গ্যাস লিকেজ দিয়ে সেই গ্যাস বের হলে গন্ধ ছড়ায়।

যেহেতু সেই লিকেজগুলোতে স্বাভাবিক সময়ে কোন দুর্ঘটনা ঘটে না। তাই আতঙ্কের কিছু নেই। যদি আবদ্ধ কোথাও গ্যাস আটকে থাকে, তাহলে দুর্ঘটনা ঘটে। তবে, কোনো গ্যাস লিকেজই ভালো না।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন