দুর্গাপুরে হাজং সম্প্রদায়ের দেউলী উৎসব শুরু
jugantor
দুর্গাপুরে হাজং সম্প্রদায়ের দেউলী উৎসব শুরু

  দুর্গাপুর (নেত্রকোনা) প্রতিনিধি  

১৮ জুন ২০২১, ০৪:২৯:১৮  |  অনলাইন সংস্করণ

‘মুজিববর্ষের প্রতিশ্রুতি-উন্নয়নে আমাদের সংস্কৃতি’- এই প্রতিপাদ্যে হাজং সম্প্রদায়ের অংশগ্রহণে নেত্রকোনার দুর্গাপুরে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর কালচারাল একাডেমির আয়োজনে শুরু হয়েছে দেউলী উৎসব।

বৃহস্পতিবার দুপুরে দুই দিনব্যাপী এ উৎসবের (ভাচুয়াল) উদ্বোধন করেন সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রনালয়ের সচিব মো. বদরুল আরেফিন।

নেত্রকোনার জেলা প্রশাসক কাজি মো. আব্দুর রহমানের সভাপতিত্বে (ভাচুয়াল) আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন, একাডেমির পরিচালক গীতিকার ও কবি সুজন কুমার হাজং, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ রাজীব-উল-আহসান, বিশিষ্ঠ গবেষক ও ইতিহাসবিদ রেভারেন্ট মনিন্দ্র নাথ মারাক, রাশিমনি কল্যান পরিষদের সভাপতি মতিলাল হাজ, আদিবাসী লেখক ও গবেষক শরদিন্দু সরকার স্বপন, বাংলাদেশ জাতীয় হাজং সম্প্রদায়ের সাধারণ সম্পাদক পল্টন হাজং সহ বিভিন্ন এলাকা থেকে আগত হাজং নেতৃবৃন্দ।

প্রধান অতিথি বলেন, ক্ষদ্র নৃ-গোষ্ঠীর বিভিন্ন সমস্যা ও তাদের জীবনমান উন্নয়ন, ভাষা ও সংস্কৃতি রক্ষায় বর্তমান সরকার অধিকতর গুরুত্ব দেয়ার কারনে আদিবাসীদের জ্ঞান ও মেধাকে আরো বিকশিত করার জন্য দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে কালচারাল একাডেমি প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে।

শুধু তাই নয় দেশের প্রতিটি উপজেলায় সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যকে লালন করার জন্য উপজেলা শিল্পকলা একাডেমি প্রতিষ্ঠা করেছেন।

নেত্রকোনা বিভিন্ন সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যের ভান্ডার। এ ভান্ডার রক্ষা করতে সরকারের পাশাপাশি সবাইকে এগিয়ে আসার আহবান জানানো হয়।

আলোচনা শেষে বিভিন্ন এলাকা থেকে আগত হাজং সাংস্কৃতিক দল তাদের কৃষ্টি তুলে ধরে সংগীত ও নৃত্য পরিবেশন করেন।

দুর্গাপুরে হাজং সম্প্রদায়ের দেউলী উৎসব শুরু

 দুর্গাপুর (নেত্রকোনা) প্রতিনিধি 
১৮ জুন ২০২১, ০৪:২৯ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

‘মুজিববর্ষের প্রতিশ্রুতি-উন্নয়নে আমাদের সংস্কৃতি’- এই প্রতিপাদ্যে হাজং সম্প্রদায়ের অংশগ্রহণে নেত্রকোনার দুর্গাপুরে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর কালচারাল একাডেমির আয়োজনে শুরু হয়েছে দেউলী উৎসব।

বৃহস্পতিবার দুপুরে দুই দিনব্যাপী এ উৎসবের (ভাচুয়াল) উদ্বোধন করেন সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রনালয়ের সচিব মো. বদরুল আরেফিন।

নেত্রকোনার জেলা প্রশাসক কাজি মো. আব্দুর রহমানের সভাপতিত্বে (ভাচুয়াল) আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন, একাডেমির পরিচালক গীতিকার ও কবি সুজন কুমার হাজং, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ রাজীব-উল-আহসান, বিশিষ্ঠ গবেষক ও ইতিহাসবিদ রেভারেন্ট মনিন্দ্র নাথ মারাক, রাশিমনি কল্যান পরিষদের সভাপতি মতিলাল হাজ, আদিবাসী লেখক ও গবেষক শরদিন্দু সরকার স্বপন, বাংলাদেশ জাতীয় হাজং সম্প্রদায়ের সাধারণ সম্পাদক পল্টন হাজং সহ বিভিন্ন এলাকা থেকে আগত হাজং নেতৃবৃন্দ।  

প্রধান অতিথি বলেন, ক্ষদ্র নৃ-গোষ্ঠীর বিভিন্ন সমস্যা ও তাদের জীবনমান উন্নয়ন, ভাষা ও সংস্কৃতি রক্ষায় বর্তমান সরকার অধিকতর গুরুত্ব দেয়ার কারনে আদিবাসীদের জ্ঞান ও মেধাকে আরো বিকশিত করার জন্য দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে কালচারাল একাডেমি প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে।

শুধু তাই নয় দেশের প্রতিটি উপজেলায় সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যকে লালন করার জন্য উপজেলা শিল্পকলা একাডেমি প্রতিষ্ঠা করেছেন।

নেত্রকোনা বিভিন্ন সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যের ভান্ডার। এ ভান্ডার রক্ষা করতে সরকারের পাশাপাশি সবাইকে এগিয়ে আসার আহবান জানানো হয়।

আলোচনা শেষে বিভিন্ন এলাকা থেকে আগত হাজং সাংস্কৃতিক দল তাদের কৃষ্টি তুলে ধরে সংগীত ও নৃত্য পরিবেশন করেন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন