নদী থেকে চম্পার ভাসমান লাশ উদ্ধার 
jugantor
নদী থেকে চম্পার ভাসমান লাশ উদ্ধার 

  কলমাকান্দা (নেত্রকোনা) প্রতিনিধি  

১৮ জুন ২০২১, ১৭:৩৮:২১  |  অনলাইন সংস্করণ

নেত্রকোনার কলমাকান্দার বাইরা নদীতে গোসল করতে নেমে চম্পা আক্তার (২৪) নামে এক তরুণী নিখোঁজ হন। নিখোঁজের ১৮ ঘণ্টা পর শুক্রবার সকালে স্থানীয় লোকজন ভাসমান অবস্থায় ওই তরুণীর লাশ উদ্ধার করেন।

চম্পা কলমাকান্দা সদর ইউনিয়নের বৈদ্যগাঁও গ্রামের জাহিদ মিয়ার মেয়ে। তিনি মৃগী রোগী ছিলেন।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার বিকালে চম্পা বাড়ির পাশে বাইরা নদীতে গোসল করতে যান। বাড়িতে ফিরতে দেরি দেখে পরিবারের লোকজন নদীঘাটে গিয়ে দেখেন বাড়ি থেকে নিয়ে যাওয়া মগ নদীর পাড়ে পড়ে আছে। পরে স্থানীয় লোকজন এ বিষয়টি পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসকে জানান।

খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের একটি দল নিখোঁজ তরুণীর সন্ধানে কাজ শুরু করে। ৪-৫ ঘণ্টা অভিযান চালিয়েও তারা চম্পার সন্ধান পায়নি। পরে শুক্রবার সকালে উপজেলার সদর ইউনিয়নের নাগনিপাড়া এলাকা থেকে স্থানীয় লোকজন ভাসমান অবস্থায় চম্পার লাশ উদ্ধার করেন।

কলমাকান্দা থানার ওসি মোহাম্মদ আবদুল আহাদ খান জানান, পুলিশ ঘটনাস্থলে পাঠানো হয়েছে। পরিবারের অভিযোগ অনুযায়ী পরবর্তী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

নদী থেকে চম্পার ভাসমান লাশ উদ্ধার 

 কলমাকান্দা (নেত্রকোনা) প্রতিনিধি 
১৮ জুন ২০২১, ০৫:৩৮ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

নেত্রকোনার কলমাকান্দার বাইরা নদীতে গোসল করতে নেমে চম্পা আক্তার (২৪) নামে এক তরুণী নিখোঁজ হন। নিখোঁজের ১৮ ঘণ্টা পর শুক্রবার সকালে স্থানীয় লোকজন ভাসমান অবস্থায় ওই তরুণীর লাশ উদ্ধার করেন।

চম্পা কলমাকান্দা সদর ইউনিয়নের বৈদ্যগাঁও গ্রামের জাহিদ মিয়ার মেয়ে। তিনি মৃগী রোগী ছিলেন।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার বিকালে চম্পা বাড়ির পাশে বাইরা নদীতে গোসল করতে যান। বাড়িতে ফিরতে দেরি দেখে পরিবারের লোকজন নদীঘাটে গিয়ে দেখেন বাড়ি থেকে নিয়ে যাওয়া মগ নদীর পাড়ে পড়ে আছে। পরে স্থানীয় লোকজন এ বিষয়টি পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসকে জানান।

খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের একটি দল নিখোঁজ তরুণীর সন্ধানে কাজ শুরু করে। ৪-৫ ঘণ্টা অভিযান চালিয়েও তারা চম্পার সন্ধান পায়নি। পরে শুক্রবার সকালে উপজেলার সদর ইউনিয়নের নাগনিপাড়া এলাকা থেকে স্থানীয় লোকজন ভাসমান অবস্থায় চম্পার লাশ উদ্ধার করেন।

কলমাকান্দা থানার ওসি মোহাম্মদ আবদুল আহাদ খান জানান, পুলিশ ঘটনাস্থলে পাঠানো হয়েছে। পরিবারের অভিযোগ অনুযায়ী পরবর্তী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন