রাতে স্বামীর সঙ্গে ঝগড়া, সকালে ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার
jugantor
রাতে স্বামীর সঙ্গে ঝগড়া, সকালে ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

  ছাগলনাইয়া (ফেনী) প্রতিনিধি  

১৮ জুন ২০২১, ২২:৪৫:২১  |  অনলাইন সংস্করণ

ফেনীর ছাগলনাইয়ায় এক গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। শুক্রবার পশ্চিম দেবপুর গ্রামের আসাদ আলীর বাড়িতে থেকে রোকসানা আক্তার লিমার (১৮) নামে ওই গৃহবধূর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য লিমার স্বামী আসাদ আলী এবং শাশুড়ি জাহানারা বেগমকে থানায় নিয়েছে পুলিশ।

ছাগলনাইয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শহীদুল ইসলাম জানান,পশ্চিম দেবপুর গ্রামের পাকিস্তান প্রবাসী আবু তাহেরের ছেলে আসাদ আলীর সঙ্গে দুমাস আগে ফুলগাজী উপজেলার ফেনাপুস্করনী গ্রামের প্রবাসী মো. মোস্তফার কন্যা রোকসানা আক্তার লিমার বিয়ে হয়। আসাদ আলী বেকার ছিলেন।

থানা সূত্রে আরও জানা যায়, বিয়ের কিছুদিন পর থেকে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়া-বিবাদ লেগেই থাকত। বৃহস্পতিবার রাতে ঝগড়া করে দুইজন দুই কক্ষে ছিলেন। শুক্রবার সকালে লিমার কক্ষের দরজা বন্ধ দেখে তাকে ডাকতে যান তার শাশুড়ি। সাড়াশব্দ না পেয়ে দরজা ধাক্কা দিয়ে দেখেন লিমা আত্মহত্যা করেছেন। পরে লোকজন ফাঁসের ওড়না কেটে ঝুলন্ত লাশ ঘরের মেঝেতে নিয়ে যান।

খবর পেয়ে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ফেনী হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

ছাগলনাইয়া থানার ওসি শহীদুল ইসলাম বলেন, লাশের গলায় ফাঁসের দাগ রয়েছে। শরীরের অন্য কোথাও আঘাতের চিহ্ন নেই। তারপরও ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন পাওয়ার পর মৃত্যুর সঠিক কারণ উদঘাটন করা যাবে। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য স্বামী ও শাশুড়িকে থানা আনা হয়েছে।

রাতে স্বামীর সঙ্গে ঝগড়া, সকালে ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

 ছাগলনাইয়া (ফেনী) প্রতিনিধি 
১৮ জুন ২০২১, ১০:৪৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ফেনীর ছাগলনাইয়ায় এক গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। শুক্রবার পশ্চিম দেবপুর গ্রামের আসাদ আলীর বাড়িতে থেকে রোকসানা আক্তার লিমার (১৮) নামে ওই গৃহবধূর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য লিমার স্বামী আসাদ আলী এবং শাশুড়ি জাহানারা বেগমকে থানায় নিয়েছে পুলিশ।

ছাগলনাইয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শহীদুল ইসলাম জানান,পশ্চিম দেবপুর গ্রামের পাকিস্তান প্রবাসী আবু তাহেরের ছেলে আসাদ আলীর সঙ্গে দুমাস আগে ফুলগাজী উপজেলার ফেনাপুস্করনী গ্রামের প্রবাসী মো. মোস্তফার কন্যা রোকসানা আক্তার লিমার বিয়ে হয়। আসাদ আলী বেকার ছিলেন।

থানা সূত্রে আরও জানা যায়, বিয়ের কিছুদিন পর থেকে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়া-বিবাদ লেগেই থাকত। বৃহস্পতিবার রাতে ঝগড়া করে দুইজন দুই কক্ষে ছিলেন। শুক্রবার সকালে লিমার কক্ষের দরজা বন্ধ দেখে তাকে ডাকতে যান তার শাশুড়ি। সাড়াশব্দ না পেয়ে দরজা ধাক্কা দিয়ে দেখেন লিমা আত্মহত্যা করেছেন। পরে লোকজন ফাঁসের ওড়না কেটে ঝুলন্ত লাশ ঘরের মেঝেতে নিয়ে যান।

খবর পেয়ে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ফেনী হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

ছাগলনাইয়া থানার ওসি শহীদুল ইসলাম বলেন, লাশের গলায় ফাঁসের দাগ রয়েছে। শরীরের অন্য কোথাও আঘাতের চিহ্ন নেই। তারপরও ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন পাওয়ার পর মৃত্যুর সঠিক কারণ উদঘাটন করা যাবে। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য স্বামী ও শাশুড়িকে থানা আনা হয়েছে।
 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন