হাসপাতালের ছাদের পলেস্তারা খসে মাথা ফাটল চিকিৎসকের
jugantor
হাসপাতালের ছাদের পলেস্তারা খসে মাথা ফাটল চিকিৎসকের

  নড়াইল প্রতিনিধি  

২২ জুন ২০২১, ১৪:৩০:০৯  |  অনলাইন সংস্করণ

হাসপাতালের ছাদের পলেস্তারা খসে মাথা ফাটল চিকিৎসকের

নড়াইল আধুনিক সদর হাসপাতালের ছাদের পলেস্তারা খসে মাথা ফেটে এক চিকিৎসক রক্তাক্ত হয়েছেন। তার নাম ডা. সুতপা সাহা।

সোমবার দুপুরে হাসপাতালের বহির্বিভাগে এ দুর্ঘটনা ঘটে। এ দুর্ঘটনার জন্য চিকিৎসকদের মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করছে।

আহত চিকিৎসক সুতপা সাহা ওই হাসপাতালের এএনসি ও পিএনসি (গাইনি) বিভাগে কর্মরত মেডিকেল অফিসার। তিনি মাথায় আঘাত পেয়ে ওই হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

ডা. সুতপা সাহা যুগান্তরকে জানান, তিনি সোমবার হাসপাতালের বহির্বিভাগের ১১০ নম্বর কক্ষে গাইনি রোগী দেখছিলেন। হঠাৎ করে ছাদ থেকে একখণ্ড পলেস্তারা তার মাথায় খসে পড়ে। এতে তার মাথা ফেটে রক্তাক্ত হন তিনি। হঠাৎ মাথায় প্রচণ্ড আঘাত পাওয়ায় মাটিতে লুটিয়ে পড়েন ডা. সুতপা সাহা।

এ সময় তাকে দ্রুত অপারেশন থিয়েটারে নিয়ে যাওয়া হয়। তার মাথায় চারটি সেলাই দেওয়া হয়। বর্তমানে ওই চিকিৎসককে কেবিনে ভর্তি রেখে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

সদর হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, নড়াইল সদর হ্সাপাতালটির বর্তমান ভবনটি ১৯৮৫ সালে নির্মিত হয়। নিম্নমানের কাজের কারণে ৩৫ বছর যেতে না যেতেই এ ভবনের পলেস্তারা খসে পড়তে শুরু করেছে।

এ প্রসঙ্গে সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. মশিউর রহমান বাবু বলেন, আহত চিকিৎসক সুতপা সাহার মাথায় চারটি সেলাই দেওয়া হয়েছে। তাকে অবজারভেশনে রাখা হয়েছে। তিনি এখন আশঙ্কামুক্ত।

তিনি আরও বলেন, এ হাসপাতালটি পুরনো হওয়ায় মাঝেমধ্যে পলেস্তারা খসে পড়ে। বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করা হয়েছে।

হাসপাতালের ছাদের পলেস্তারা খসে মাথা ফাটল চিকিৎসকের

 নড়াইল প্রতিনিধি 
২২ জুন ২০২১, ০২:৩০ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
হাসপাতালের ছাদের পলেস্তারা খসে মাথা ফাটল চিকিৎসকের
ছবি: যুগান্তর

নড়াইল আধুনিক সদর হাসপাতালের ছাদের পলেস্তারা খসে মাথা ফেটে এক চিকিৎসক রক্তাক্ত হয়েছেন। তার নাম ডা. সুতপা সাহা।

সোমবার দুপুরে হাসপাতালের বহির্বিভাগে এ দুর্ঘটনা ঘটে। এ দুর্ঘটনার জন্য চিকিৎসকদের মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করছে।

আহত চিকিৎসক সুতপা সাহা ওই হাসপাতালের এএনসি ও পিএনসি (গাইনি) বিভাগে কর্মরত মেডিকেল অফিসার। তিনি মাথায় আঘাত পেয়ে ওই হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

ডা. সুতপা সাহা যুগান্তরকে জানান, তিনি সোমবার হাসপাতালের বহির্বিভাগের ১১০ নম্বর কক্ষে গাইনি রোগী দেখছিলেন। হঠাৎ করে ছাদ থেকে একখণ্ড পলেস্তারা তার মাথায় খসে পড়ে। এতে তার মাথা ফেটে রক্তাক্ত হন তিনি। হঠাৎ মাথায় প্রচণ্ড আঘাত পাওয়ায় মাটিতে লুটিয়ে পড়েন ডা. সুতপা সাহা।

এ সময় তাকে দ্রুত অপারেশন থিয়েটারে নিয়ে যাওয়া হয়। তার মাথায় চারটি সেলাই দেওয়া হয়। বর্তমানে ওই চিকিৎসককে কেবিনে ভর্তি রেখে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

সদর হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, নড়াইল সদর হ্সাপাতালটির বর্তমান ভবনটি ১৯৮৫ সালে নির্মিত হয়। নিম্নমানের কাজের কারণে ৩৫ বছর যেতে না যেতেই এ ভবনের পলেস্তারা খসে পড়তে শুরু করেছে।  

এ প্রসঙ্গে সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. মশিউর রহমান বাবু বলেন, আহত চিকিৎসক সুতপা সাহার মাথায় চারটি সেলাই দেওয়া হয়েছে। তাকে অবজারভেশনে রাখা হয়েছে। তিনি এখন আশঙ্কামুক্ত।

তিনি আরও বলেন, এ হাসপাতালটি পুরনো হওয়ায় মাঝেমধ্যে পলেস্তারা খসে পড়ে। বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করা হয়েছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন