১৪ বছর পর উপজেলা ছাত্রলীগের নতুন কমিটি গঠনে চিঠি!
jugantor
১৪ বছর পর উপজেলা ছাত্রলীগের নতুন কমিটি গঠনে চিঠি!

  ভৈরব (কিশোরগঞ্জ) প্রতিনিধি  

২২ জুন ২০২১, ১৯:৩৪:১৯  |  অনলাইন সংস্করণ

কিশোরগঞ্জের ভৈরব উপজেলা ছাত্রলীগের কমিটি গঠনে ১৪ বছর পর চিঠি দিলেন কিশোরগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আনোয়ার হোসেন মোল্লা। ছাত্রলীগের নেতৃত্বে থাকতে হলে বয়স থাকতে হবে ২৯ বছরের মধ্যে। হতে হবে অবিবাহিত এবং থাকতে হবে ছাত্রত্ব।

এসব নিয়ম সংগঠনের গঠনতন্ত্রের। কিন্তু ভৈরব উপজেলা ছাত্রলীগের বেলায় এসব নিয়মের কোনো বালাই নেই। সেই কবে কমিটি হয়েছিল তা অনেকেই ভুলে গেছেন। ছাত্রলীগের বর্তমান সভাপতি ছাত্রত্ব ছেড়ে দিয়ে বিয়ে করে এখন সন্তানের পিতা।

২০০৪ সালের ৬ জুন উপজেলা ছাত্রলীগের কমিটি হয়েছিল বলে জানা যায়। তিন বছর মেয়াদি কমিটির মেয়াদ ছিল ২০০৭ সালের ৫ জুন পর্যন্ত। এ কমিটি আজও বহাল রয়েছে। ছাত্রলীগের সভাপতি এখন যুবলীগের কমিটিতে পদ পেয়েছেন। তারপরও মেয়াদ পার হওয়ার ১৪ বছর পর আজও নতুন কমিটি হয়নি।

প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিল্লুর রহমানের এলাকায় এভাবেই মেয়াদহীনভাবে চলছে সংগঠনটি। নতুন প্রজন্মের ছাত্ররা দীর্ঘদিন যাবত নতুন কমিটি গঠনের দাবি করছিল। এ দাবি ছিল স্থানীয় সংসদ সদস্য নাজমুল হাসান পাপনের কাছে। এতদিন তাদের দাবি ছিল উপেক্ষিত।

এই যখন অবস্থা তখন সম্প্রতি কিশোরগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে সভাপতি আনোয়ার হোসেন মোল্লা ও সাধারণ সম্পাদক ফয়েজ উমান খান নতুন কমিটি গঠনের তাগাদা দিয়ে একটি চিঠি দেন। আগামী ২৮ জুলাইয়ের মধ্য নতুন কমিটি গঠনের চিঠি দেয়া হয় বলে জানান উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মো. খলিলুর রহমান।

চিঠিটি এখন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়ে গেছে। চিঠিটি ফেসবুকে ভাইরাল হওয়ার পর স্থানীয় ছাত্রলীগের মধ্য তৎপরতা শুরু হয়ে গেছে।

ছাত্রলীগ নেতারা সংসদ সদস্য নাজমুল হাসান পাপন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. সায়দুল্লাহ মিয়া, সাধারণ সম্পাদক জাহাংগীর আলম সেন্টু, পৌর মেয়র ইফতেখার হোসেন বেনুসহ নেতাদের কাছে ধরনা দেয়া ও দৌড়ঝাঁপ শুরু করেছে।

জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আনোয়ার হোসেন যুগান্তরকে মোবাইলে জানান, নতুন কমিটি গঠনে সময় পেছানোর আর কোনো সুযোগ নেই। আমরা নতুন নেতৃত্ব চাই। বেঁধে দেয়া সময়ের মধ্য কমিটি না করলে পুরনো কমিটি ভেঙে দেয়া হবে।

এ বিষয়ে জানতে বর্তমান উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মো. খলিলুর রহমান লিমনের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, আমি এখন অসুস্থ। তবে ২৮ জুলাইয়ের মধ্য নতুন কমিটি গঠন করার লক্ষ্যে আমরা প্রস্তুতি গ্রহণ করছি। বিষয়টি স্থানীয় সংসদ সদস্য নাজমুল হাসান পাপনের সঙ্গে কথা হয়েছে। তার পরামর্শ অনুযায়ী এবং তিনি যখন সময় দেবেন তখনই নতুন কমিটি গঠন করা হবে বলে জানান তিনি।

১৪ বছর পর উপজেলা ছাত্রলীগের নতুন কমিটি গঠনে চিঠি!

 ভৈরব (কিশোরগঞ্জ) প্রতিনিধি 
২২ জুন ২০২১, ০৭:৩৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

কিশোরগঞ্জের ভৈরব উপজেলা ছাত্রলীগের কমিটি গঠনে ১৪ বছর পর চিঠি দিলেন কিশোরগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আনোয়ার হোসেন মোল্লা। ছাত্রলীগের নেতৃত্বে থাকতে হলে বয়স থাকতে হবে ২৯ বছরের মধ্যে। হতে হবে অবিবাহিত এবং থাকতে হবে ছাত্রত্ব।

এসব নিয়ম সংগঠনের গঠনতন্ত্রের। কিন্তু ভৈরব উপজেলা ছাত্রলীগের বেলায় এসব নিয়মের কোনো বালাই নেই। সেই কবে কমিটি হয়েছিল তা অনেকেই ভুলে গেছেন। ছাত্রলীগের বর্তমান সভাপতি ছাত্রত্ব ছেড়ে দিয়ে বিয়ে করে এখন সন্তানের পিতা।

২০০৪ সালের ৬ জুন উপজেলা ছাত্রলীগের কমিটি হয়েছিল বলে জানা যায়। তিন বছর মেয়াদি কমিটির মেয়াদ ছিল ২০০৭ সালের ৫ জুন পর্যন্ত। এ কমিটি আজও বহাল রয়েছে। ছাত্রলীগের সভাপতি এখন যুবলীগের কমিটিতে পদ পেয়েছেন। তারপরও মেয়াদ পার হওয়ার ১৪ বছর পর আজও  নতুন কমিটি হয়নি।

প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিল্লুর রহমানের এলাকায় এভাবেই মেয়াদহীনভাবে চলছে সংগঠনটি। নতুন প্রজন্মের ছাত্ররা দীর্ঘদিন যাবত নতুন কমিটি গঠনের দাবি করছিল। এ দাবি ছিল স্থানীয় সংসদ সদস্য নাজমুল হাসান পাপনের কাছে। এতদিন তাদের দাবি ছিল উপেক্ষিত।

এই যখন অবস্থা তখন সম্প্রতি কিশোরগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে সভাপতি আনোয়ার হোসেন মোল্লা ও সাধারণ সম্পাদক ফয়েজ উমান খান নতুন কমিটি গঠনের তাগাদা দিয়ে একটি চিঠি দেন। আগামী ২৮ জুলাইয়ের মধ্য নতুন কমিটি গঠনের চিঠি দেয়া হয় বলে জানান উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মো. খলিলুর রহমান।

চিঠিটি এখন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়ে গেছে। চিঠিটি ফেসবুকে ভাইরাল হওয়ার পর স্থানীয় ছাত্রলীগের মধ্য তৎপরতা শুরু হয়ে গেছে।

ছাত্রলীগ নেতারা সংসদ সদস্য নাজমুল হাসান পাপন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. সায়দুল্লাহ মিয়া, সাধারণ সম্পাদক জাহাংগীর আলম সেন্টু, পৌর মেয়র ইফতেখার হোসেন বেনুসহ নেতাদের কাছে ধরনা দেয়া ও দৌড়ঝাঁপ শুরু করেছে। 

জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আনোয়ার হোসেন যুগান্তরকে মোবাইলে জানান, নতুন কমিটি গঠনে সময় পেছানোর আর কোনো সুযোগ নেই। আমরা নতুন নেতৃত্ব চাই। বেঁধে দেয়া সময়ের মধ্য কমিটি না করলে পুরনো কমিটি ভেঙে দেয়া হবে।

এ বিষয়ে জানতে বর্তমান উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মো. খলিলুর রহমান লিমনের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, আমি এখন অসুস্থ। তবে ২৮ জুলাইয়ের মধ্য নতুন কমিটি গঠন করার লক্ষ্যে আমরা প্রস্তুতি গ্রহণ করছি। বিষয়টি স্থানীয় সংসদ সদস্য নাজমুল হাসান পাপনের সঙ্গে কথা হয়েছে। তার পরামর্শ অনুযায়ী এবং তিনি যখন সময় দেবেন তখনই নতুন কমিটি গঠন করা হবে বলে জানান তিনি।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন