চট্টগ্রামে ভাবির ছুরিকাঘাতে দেবর খুন
jugantor
চট্টগ্রামে ভাবির ছুরিকাঘাতে দেবর খুন

  লোহাগাড়া (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি  

২৪ জুন ২০২১, ০৮:৩৩:১২  |  অনলাইন সংস্করণ

ছুরিকাঘাতে খুন

চট্টগ্রামের লোহাগাড়া উপজেলায় ভাবির ছুরিকাঘাতে মো. ইউনুস নামে (৪০) নামে এক যুবক খুন হয়েছেন।

বুধবার রাত ৮টার দিকে উপজেলার বাড়হাতিয়া ইউনিয়নে কুমিরাঘোনা জঙ্গলিপরীপাড়ায় এ ঘটনা ঘটে। পারিবারিক বিষয় নিয়ে বড়ভাইয়ের সঙ্গে কথা কাটাকাটি করায় ইউনুসকে তার ভাবি ছুরিকাঘাত করে বলে জানান স্থানীয়রা।

নিহত ইউনুস ওই এলাকার আলী আহমদের ছেলে।

এদিকে এ ঘটনায় ঘাতক ভাবি নাসিমা আকতার ও তার স্বামী ইউসুফকে আটক করেছে পুলিশ।

বড়হাতিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এমডি জুনাইদ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

নিহতের স্ত্রী রেহেনা আকতার জানান, মঙ্গলবার পারিবারিক বিভিন্ন বিষয় নিয়ে দেবর ইউনুসের সঙ্গে ভাবি নাসিমা আকতারের ঝগড়া হয়। এ নিয়ে বুধবার থানায় অভিযোগ করেন ইউনুসের বড়ভাই ইউসুফ। পুলিশ এ নিয়ে তদন্তে যায়।

বিষয়টি মীমাংসার জন্য তারা থানায় যেতে বলে। সন্ধ্যায় দুভাই একসঙ্গে হলে পারিবারিক বিভিন্ন বিষয় নিয়ে কথা কাটাকাটির একপর্যায়ে দেবর ইউনুসের পেটে ছুরিকাঘাত করেন ভাবি নাসিমা।

পরে তাকে আহতাবস্থায় উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হয়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক ইউনুসকে মৃত ঘোষণা করেন।

লোহাগাড়া থানার ওসি জাকের হোসাইন মাহমুদ জানান, ঘটনার পর আমরা ভাবি ও তার স্বামীকে আটক করেছি।

এ ব্যাপারে আমরা আইনগত পদক্ষেপ নিচ্ছি। মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে।

চট্টগ্রামে ভাবির ছুরিকাঘাতে দেবর খুন

 লোহাগাড়া (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি 
২৪ জুন ২০২১, ০৮:৩৩ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ
ছুরিকাঘাতে খুন
মো. ইউনুস। ছবি: যুগান্তর

চট্টগ্রামের লোহাগাড়া উপজেলায় ভাবির ছুরিকাঘাতে মো. ইউনুস নামে (৪০) নামে এক যুবক খুন হয়েছেন।

বুধবার রাত ৮টার দিকে উপজেলার বাড়হাতিয়া ইউনিয়নে কুমিরাঘোনা জঙ্গলিপরীপাড়ায় এ ঘটনা ঘটে। পারিবারিক বিষয় নিয়ে বড়ভাইয়ের সঙ্গে কথা কাটাকাটি করায় ইউনুসকে তার ভাবি ছুরিকাঘাত করে বলে জানান স্থানীয়রা।

নিহত ইউনুস ওই এলাকার আলী আহমদের ছেলে।

এদিকে এ ঘটনায় ঘাতক ভাবি নাসিমা আকতার ও তার স্বামী ইউসুফকে আটক করেছে পুলিশ।

বড়হাতিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এমডি জুনাইদ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।  

নিহতের স্ত্রী রেহেনা আকতার জানান, মঙ্গলবার পারিবারিক বিভিন্ন বিষয় নিয়ে দেবর ইউনুসের সঙ্গে ভাবি নাসিমা আকতারের ঝগড়া হয়। এ নিয়ে বুধবার থানায় অভিযোগ করেন ইউনুসের বড়ভাই ইউসুফ। পুলিশ এ নিয়ে তদন্তে যায়।

বিষয়টি মীমাংসার জন্য তারা থানায় যেতে বলে। সন্ধ্যায় দুভাই একসঙ্গে হলে পারিবারিক বিভিন্ন বিষয় নিয়ে কথা কাটাকাটির একপর্যায়ে দেবর ইউনুসের পেটে ছুরিকাঘাত করেন ভাবি নাসিমা।

পরে তাকে আহতাবস্থায় উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হয়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক ইউনুসকে মৃত ঘোষণা করেন।

লোহাগাড়া থানার ওসি জাকের হোসাইন মাহমুদ জানান, ঘটনার পর আমরা ভাবি ও তার স্বামীকে আটক করেছি।

এ ব্যাপারে আমরা আইনগত পদক্ষেপ নিচ্ছি। মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন