কোরবানির পশুর হাট কাঁপাবে ‘নেইমার’ (ভিডিও)
jugantor
কোরবানির পশুর হাট কাঁপাবে ‘নেইমার’ (ভিডিও)

  কালীগঞ্জ (ঝিনাইদহ) প্রতিনিধি  

২৫ জুন ২০২১, ১৫:৩৩:৩৬  |  অনলাইন সংস্করণ

নেইমার

কোরবানির ঈদ উপলক্ষ্যে ঝিনাইদহের কালীগঞ্জে দেখা মিলেছে বিশালাকৃতির এক গরুর। নাম তার ‘নেইমার’। এখনই দাম ১৫ লাখ টাকা হাঁকাচ্ছেন গরুর মালিক। বিশাল এই ষাঁড়টি দেখতে আশপাশের মানুষ প্রতিদিনই ভিড় করছেন।

গরুটির মালিক এনামুল হোসেনের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, তিনি শখের গরুটির নাম রেখেছেন ‘নেইমার’। দুই বছর আগে পাশের গাজীর বাজার গরুহাট থেকে দুই লাখ টাকায় কিনেছিলাম। তার বাবা ও দুই ভাই গরুটি লালনপালন করেন। তিনজনই প্রতিদিন গরুর পেছনে সময় দেন। দুই দাঁতবিশিষ্ট গরুটি তিনি ১৫ লাখ টাকায় বিক্রি করতে চান।

তিনি আরও জানান, গরুটির ওজন হবে প্রায় এক হাজার কেজি। প্রতিদিনই প্রায় ৫০০ টাকার খাবার দিতে হয়। খাবারের মধ্যে ছোলা, খেসারির ডাল, ভুট্টা, কুঁড়ো, খইল, ভাত ও কাঁচা ঘাস রয়েছে।

প্রতিবেশী মাসুদ রানা জানান, মালিক খুব যত্ন করে গরুটির। এর আগে এই গ্রামে কখনও এমন বড় গরু দেখিনি।

কালীগঞ্জ প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা. এএসএম আতিকুজ্জামান জানান, উপজেলার মল্লিকপুর গ্রামে বড় একটি ষাঁড়ের খবর শুনেছি। বিভিন্ন সময় তারা পরামর্শ নিয়েছেন। কালীগঞ্জ উপজেলায় গরু মোটাতাজাকরণ যারা করছেন, সবাইকে প্রশিক্ষণ দিয়েছি এবং নিরাপদ মাংস উৎপাদনের জন্য বিভিন্ন পরামর্শ দিয়েছি।

তিনি জানান, উপজেলায় এবারের কোরবানি ঈদ সামনে রেখে ১৩ হাজার ২৩৬টি গরু ও ৭ হাজার ১৭১টি ছাগল প্রস্তুত আছে।

কোরবানির পশুর হাট কাঁপাবে ‘নেইমার’ (ভিডিও)

 কালীগঞ্জ (ঝিনাইদহ) প্রতিনিধি 
২৫ জুন ২০২১, ০৩:৩৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
নেইমার
ছবি-যুগান্তর

কোরবানির ঈদ উপলক্ষ্যে ঝিনাইদহের কালীগঞ্জে দেখা মিলেছে বিশালাকৃতির এক গরুর। নাম তার ‘নেইমার’। এখনই দাম ১৫ লাখ টাকা হাঁকাচ্ছেন গরুর মালিক। বিশাল এই ষাঁড়টি দেখতে আশপাশের মানুষ প্রতিদিনই ভিড় করছেন।

গরুটির মালিক এনামুল হোসেনের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, তিনি শখের গরুটির নাম রেখেছেন ‘নেইমার’। দুই বছর আগে পাশের গাজীর বাজার গরুহাট থেকে দুই লাখ টাকায় কিনেছিলাম। তার বাবা ও দুই ভাই গরুটি লালনপালন করেন। তিনজনই প্রতিদিন গরুর পেছনে সময় দেন। দুই দাঁতবিশিষ্ট গরুটি তিনি ১৫ লাখ টাকায় বিক্রি করতে চান।

তিনি আরও জানান, গরুটির ওজন হবে প্রায় এক হাজার কেজি। প্রতিদিনই প্রায় ৫০০ টাকার খাবার দিতে হয়। খাবারের মধ্যে ছোলা, খেসারির ডাল, ভুট্টা, কুঁড়ো, খইল, ভাত ও কাঁচা ঘাস রয়েছে।

প্রতিবেশী মাসুদ রানা জানান, মালিক খুব যত্ন করে গরুটির। এর আগে এই গ্রামে কখনও এমন বড় গরু দেখিনি।

কালীগঞ্জ প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা. এএসএম আতিকুজ্জামান জানান, উপজেলার মল্লিকপুর গ্রামে বড় একটি ষাঁড়ের খবর শুনেছি। বিভিন্ন সময় তারা পরামর্শ নিয়েছেন। কালীগঞ্জ উপজেলায় গরু মোটাতাজাকরণ যারা করছেন, সবাইকে প্রশিক্ষণ দিয়েছি এবং নিরাপদ মাংস উৎপাদনের জন্য বিভিন্ন পরামর্শ দিয়েছি।

তিনি জানান, উপজেলায় এবারের কোরবানি ঈদ সামনে রেখে ১৩ হাজার ২৩৬টি গরু ও ৭ হাজার ১৭১টি ছাগল প্রস্তুত আছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন