কোম্পানীগঞ্জে সাংবাদিককে কুপিয়ে জখম
jugantor
কোম্পানীগঞ্জে সাংবাদিককে কুপিয়ে জখম

  যুগান্তর প্রতিবেদক  

২৫ জুন ২০২১, ১৬:০৭:১৮  |  অনলাইন সংস্করণ

কোম্পানীগঞ্জে সাংবাদিককে কুপিয়ে জখম

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জে উপজেলায় প্রশান্ত সুভাষ চন্দ (৪৪) নামে এক সাংবাদিককে কুপিয়ে জখম করে সন্ত্রাসীরা। এ সময় তার দুই ছেলে, স্ত্রী ও মাকেও আহত করে হামলাকারীরা।
বৃহস্পতিবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে উপজেলার সিরাজপুর ইউনিয়নের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের শাহজাদপুর গ্রামের হারান কবিরাজের বাড়িতে এ হামলার ঘটনা ঘটে। সুভাষ ওই এলাকার মৃত স্বপন কুমার চন্দের ছেলে। তিনি ‘চলমান সময় ডটকম’-এর প্রধান প্রতিবেদক ও বাংলাদেশ সমাচারের স্থানীয় প্রতিনিধি।
আহত সাংবাদিককে উদ্ধার করে কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসকরা তাকে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে পাঠিয়ে দেন।
এ বিষয়ে সুভাষ জানান, সেখানকার পৌর মেয়র আবদুল কাদের মির্জার বিরুদ্ধে সংবাদ প্রকাশের জের ধরে তার অনুসারী কেচ্ছা রাসেল, মানিক, টুটুল, খানসাব ও পিচ্চি মাসুদের নেতৃত্বে তার বাড়িতে হামলা চালানো হয়।
সেখানে সুভাষের মা বেবী চন্দ্র চন্দ (৬৫), স্ত্রী অনিমা চন্দ্র চন্দ (৪০), ছেলে রঞ্জু (১৮) ও জিতুকে (১২) আহত করা হয় এবং বাড়িঘরে ভাঙচুর চালানো হয় বলে দাবি করেন তিনি।
ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে কোম্পানীগঞ্জ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আবুল কালাম আজাদ বলেন, অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
তবে অনেক চেষ্টা করেও এ বিষয়ে কাদের মির্জার কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

কোম্পানীগঞ্জে সাংবাদিককে কুপিয়ে জখম

 যুগান্তর প্রতিবেদক 
২৫ জুন ২০২১, ০৪:০৭ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
কোম্পানীগঞ্জে সাংবাদিককে কুপিয়ে জখম
ফাইল ছবি

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জে উপজেলায় প্রশান্ত সুভাষ চন্দ (৪৪) নামে এক সাংবাদিককে কুপিয়ে জখম করে সন্ত্রাসীরা। এ সময় তার দুই ছেলে, স্ত্রী ও মাকেও আহত করে হামলাকারীরা।
বৃহস্পতিবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে উপজেলার সিরাজপুর ইউনিয়নের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের শাহজাদপুর গ্রামের হারান কবিরাজের বাড়িতে এ হামলার ঘটনা ঘটে। সুভাষ ওই এলাকার মৃত স্বপন কুমার চন্দের ছেলে। তিনি ‘চলমান সময় ডটকম’-এর প্রধান প্রতিবেদক ও বাংলাদেশ সমাচারের স্থানীয় প্রতিনিধি। 
আহত সাংবাদিককে উদ্ধার করে কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসকরা তাকে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে পাঠিয়ে দেন।
এ বিষয়ে সুভাষ জানান, সেখানকার পৌর মেয়র আবদুল কাদের মির্জার বিরুদ্ধে সংবাদ প্রকাশের জের ধরে তার অনুসারী কেচ্ছা রাসেল, মানিক, টুটুল, খানসাব ও পিচ্চি মাসুদের নেতৃত্বে তার বাড়িতে হামলা চালানো হয়।
সেখানে সুভাষের মা বেবী চন্দ্র চন্দ (৬৫), স্ত্রী অনিমা চন্দ্র চন্দ (৪০), ছেলে রঞ্জু (১৮) ও জিতুকে (১২) আহত করা হয় এবং বাড়িঘরে ভাঙচুর চালানো হয় বলে দাবি করেন তিনি।
ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে কোম্পানীগঞ্জ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আবুল কালাম আজাদ বলেন, অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
তবে অনেক চেষ্টা করেও এ বিষয়ে কাদের মির্জার কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন