সমবায় আইন লঙ্ঘন করে চিরিংগা সমিতির নির্বাচন, মামলা
jugantor
সমবায় আইন লঙ্ঘন করে চিরিংগা সমিতির নির্বাচন, মামলা

  চকরিয়া (কক্সবাজার) প্রতিনিধি  

২৫ জুন ২০২১, ২২:৪০:৩২  |  অনলাইন সংস্করণ

সমবায় আইন লঙ্ঘন করে চিরিংগা ইউনিয়ন বহুমুখী সমবায় সমিতির নির্বাচনের অভিযোগে কক্সবাজার জেলা সমবায় কার্যালয়ে একটি মামলা দায়ের হয়েছে। বৃহস্পতিবার নির্বাচনে দায়িত্ব পালনকারী সেলিম উল্লাহ, নাছিমুল হক ও মহিউদ্দিনের বিরুদ্ধে জেলা সমবায় কর্মকর্তার কার্যালয়ে মামলা করা হয় (মামলা নম্বর ২১/২০২১)।

মামলার বাদী মুজিবুল হকের অভিযোগ, সমবায় সমিতির প্রত্যেকটি কার্যক্রম উপজেলা সমবায় কার্যালয় বা জেলা সমবায় কার্যালয়ে অবগত করা বাধ্যতামূলক। কিন্তু চিরিংগা বহুমুখী সমবায় সমিতির নির্বাচন কার্যক্রম সংক্রান্ত কোনো বিষয় উল্লেখিত কোনো দপ্তরে অবগত করা হয়নি।

নির্বাচন পরিচালনা কমিটির সভাপতি সেলিম উল্লাহ বলেন, ঘোষিত ফলাফলে কোনো ধরনের কারচুপি হয়নি। প্রয়োগকৃত ভোট গণনা শেষে নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণা করা হয়। কোনো প্রার্থী সংক্ষুব্ধ হলে এ ব্যাপারে অবশ্যই আপিল করতে পারবে।

চকরিয়া উপজেলা সমবায় কর্মকর্তা মো. জাহাঙ্গীর আলম বলেন, চিরিংগা বহুমুখী সমবায় সমিতি নির্বাচনের বিষয়ে উপজেলা সমবায় অফিস ও জেলা সমবায় অফিসে অবহিত করেনি। ফলে সমবায় আইন অনুযায়ী আমরা ব্যবস্থা গ্রহণ করব।

চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সৈয়দ সামসুল তাবরীজ বলেন, চিরিংগা বহুমুখী সমবায় সমিতির নির্বাচন অনুষ্ঠানের ব্যাপারে আমার দপ্তর কিংবা উপজেলা সমবায় কর্মকর্তার কাছ থেকে কোনো অনুমতি নেওয়া হয়নি। নির্বাচনে অনিয়ম বা কারচুপির লিখিত অভিযোগ পেলে অবশ্যই যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

কক্সবাজার জেলা সমবায় কর্মকর্তা জহির আব্বাস যুগান্তরকে জানান, চিরিংগা বহুমুখী সমবায় সমিতির ত্রিবার্ষিক নির্বাচনে অনিয়ম ও কারচুপির অভিযোগে মুজিবুল হক বাদী হয়ে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। তা পর্যালোচনা করে দ্রুত আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সমবায় আইন লঙ্ঘন করে চিরিংগা সমিতির নির্বাচন, মামলা

 চকরিয়া (কক্সবাজার) প্রতিনিধি 
২৫ জুন ২০২১, ১০:৪০ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

সমবায় আইন লঙ্ঘন করে চিরিংগা ইউনিয়ন বহুমুখী সমবায় সমিতির নির্বাচনের অভিযোগে কক্সবাজার জেলা সমবায় কার্যালয়ে একটি মামলা দায়ের হয়েছে। বৃহস্পতিবার নির্বাচনে দায়িত্ব পালনকারী সেলিম উল্লাহ, নাছিমুল হক ও মহিউদ্দিনের বিরুদ্ধে জেলা সমবায় কর্মকর্তার কার্যালয়ে মামলা করা হয় (মামলা নম্বর ২১/২০২১)।

মামলার বাদী মুজিবুল হকের অভিযোগ, সমবায় সমিতির প্রত্যেকটি কার্যক্রম উপজেলা সমবায় কার্যালয় বা জেলা সমবায় কার্যালয়ে অবগত করা বাধ্যতামূলক। কিন্তু চিরিংগা বহুমুখী সমবায় সমিতির নির্বাচন কার্যক্রম সংক্রান্ত কোনো বিষয় উল্লেখিত কোনো দপ্তরে অবগত করা হয়নি।

নির্বাচন পরিচালনা কমিটির সভাপতি সেলিম উল্লাহ বলেন, ঘোষিত ফলাফলে কোনো ধরনের কারচুপি হয়নি। প্রয়োগকৃত ভোট গণনা শেষে নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণা করা হয়। কোনো প্রার্থী সংক্ষুব্ধ হলে এ ব্যাপারে অবশ্যই আপিল করতে পারবে। 

চকরিয়া উপজেলা সমবায় কর্মকর্তা মো. জাহাঙ্গীর আলম বলেন, চিরিংগা বহুমুখী সমবায় সমিতি নির্বাচনের বিষয়ে উপজেলা সমবায় অফিস ও জেলা সমবায় অফিসে অবহিত করেনি। ফলে সমবায় আইন অনুযায়ী আমরা ব্যবস্থা গ্রহণ করব। 

চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সৈয়দ সামসুল তাবরীজ বলেন, চিরিংগা বহুমুখী সমবায় সমিতির নির্বাচন অনুষ্ঠানের ব্যাপারে আমার দপ্তর কিংবা উপজেলা সমবায় কর্মকর্তার কাছ থেকে কোনো অনুমতি নেওয়া হয়নি। নির্বাচনে অনিয়ম বা কারচুপির লিখিত অভিযোগ পেলে অবশ্যই যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

কক্সবাজার জেলা সমবায় কর্মকর্তা জহির আব্বাস যুগান্তরকে জানান, চিরিংগা বহুমুখী সমবায় সমিতির ত্রিবার্ষিক নির্বাচনে অনিয়ম ও কারচুপির অভিযোগে মুজিবুল হক বাদী হয়ে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। তা পর্যালোচনা করে দ্রুত আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন