নৌকা-বিদ্রোহী প্রার্থীর সমর্থকদের সংঘর্ষ, ছাত্রলীগ নেতাসহ আহত ১২
jugantor
নৌকা-বিদ্রোহী প্রার্থীর সমর্থকদের সংঘর্ষ, ছাত্রলীগ নেতাসহ আহত ১২

  মোরেলগঞ্জ (বাগেরহাট) প্রতিনিধি  

২৬ জুন ২০২১, ১১:৪৭:৪৪  |  অনলাইন সংস্করণ

সংঘর্ষ

বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জ উপজেলায় আওয়ামী লীগ দলীয় প্রার্থী ও একই দলের বিদ্রোহ প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষে ছাত্রলীগ নেতাসহ ১২ জন আহত হয়েছেন।

শুক্রবার রাতে উপজেলার কামলা বাজারে এ ঘটনা ঘটে।

আহতরা হলেন- রামচন্দ্রপুর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সহসভাপতি সোহেল শিকদার (২২), কাইউম শিকদার (৪৫), শাহিন শিকদার (৩৫), বিপ্লব শিকদার (৪৫), জুলহাস হাওলাদার (২৫), রফিকুল শেখ (৪৮), কালাম শেখ (৩৫), বেল্লাল শেখ (২৭) ও ফারুক শেখকে (৪৮)। ছাত্রলীগ নেতা সোহেলকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অন্যরা মোরেলগঞ্জ ও পিরোজপুর হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন।

জানা গেছে, স্থগিত হওয়া রামচন্দ্রপুর ইউনিয়নের আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকার চেয়ারম্যান প্রার্থী ও নৌকার মনোনয়ন বঞ্চিত বিদ্রোহী প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে রাত ৮টার দিকে ওই ইউনিয়নের কামলা বাজারে দুই দফা সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সহসভাপতিসহ ১২ নেতাকর্মী আহত হয়েছেন।

খবর পেয়ে নিকটস্থ পোলেরহাট ফাঁড়ি ও থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে।

সংঘর্ষের বিষয়ে স্থগিত থাকা ইউপি নির্বাচনে আওয়ামী লীগ দলীয় প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান আব্দুল আলীম বলেন, বিদ্রোহী প্রার্থী হুমায়ুন কবির পরিকল্পিতভাবে পরিস্থিতি অশান্ত করার জন্য বহিরাগত লোকজন নিয়ে নৌকার কর্মীদের ওপর হামলা করেছে।

অপরদিকে দলের নমিনেশন বঞ্চিত বিদ্রোহী প্রার্থী হুমায়ুন কবির বলেন, কোনো কারণ ছাড়াই নৌকা সমর্থকরা তার কর্মীদের ওপর হামলা চালিয়েছে।

এ বিষয়ে মোরেলগঞ্জ থানার ওসি মো. মনিরুল ইসলাম বলেন, ঘটনাস্থলে নিকটস্থ ফাঁড়ি ও থানা থেকে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। পরিস্থিতি শান্ত আছে। লিখিত অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

নৌকা-বিদ্রোহী প্রার্থীর সমর্থকদের সংঘর্ষ, ছাত্রলীগ নেতাসহ আহত ১২

 মোরেলগঞ্জ (বাগেরহাট) প্রতিনিধি 
২৬ জুন ২০২১, ১১:৪৭ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ
সংঘর্ষ
ফাইল ছবি

বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জ উপজেলায় আওয়ামী লীগ দলীয় প্রার্থী ও একই দলের বিদ্রোহ প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষে ছাত্রলীগ নেতাসহ ১২ জন আহত হয়েছেন।

শুক্রবার রাতে উপজেলার কামলা বাজারে এ ঘটনা ঘটে।

আহতরা হলেন- রামচন্দ্রপুর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সহসভাপতি সোহেল শিকদার (২২), কাইউম শিকদার (৪৫), শাহিন শিকদার (৩৫), বিপ্লব শিকদার (৪৫), জুলহাস হাওলাদার (২৫), রফিকুল শেখ (৪৮), কালাম শেখ (৩৫), বেল্লাল শেখ (২৭) ও ফারুক শেখকে (৪৮)। ছাত্রলীগ নেতা সোহেলকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অন্যরা মোরেলগঞ্জ ও পিরোজপুর হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন।

জানা গেছে, স্থগিত হওয়া রামচন্দ্রপুর ইউনিয়নের আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকার চেয়ারম্যান প্রার্থী ও নৌকার মনোনয়ন বঞ্চিত বিদ্রোহী প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে রাত ৮টার দিকে ওই ইউনিয়নের কামলা বাজারে দুই দফা সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সহসভাপতিসহ ১২ নেতাকর্মী আহত হয়েছেন।

খবর পেয়ে নিকটস্থ পোলেরহাট ফাঁড়ি ও থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে।

সংঘর্ষের বিষয়ে স্থগিত থাকা ইউপি নির্বাচনে আওয়ামী লীগ দলীয় প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান আব্দুল আলীম বলেন, বিদ্রোহী প্রার্থী হুমায়ুন কবির পরিকল্পিতভাবে পরিস্থিতি অশান্ত করার জন্য  বহিরাগত লোকজন নিয়ে নৌকার কর্মীদের ওপর হামলা করেছে।

অপরদিকে দলের নমিনেশন বঞ্চিত বিদ্রোহী প্রার্থী হুমায়ুন কবির বলেন, কোনো কারণ ছাড়াই নৌকা সমর্থকরা তার কর্মীদের ওপর হামলা চালিয়েছে।

এ বিষয়ে মোরেলগঞ্জ থানার ওসি মো. মনিরুল ইসলাম বলেন, ঘটনাস্থলে নিকটস্থ ফাঁড়ি ও থানা থেকে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। পরিস্থিতি শান্ত আছে। লিখিত অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন