রাস্তার গাছ কাটলেন বীর মুক্তিযোদ্ধা, প্রতিবাদ করায় বিএনপি নেতাকে মারধর
jugantor
রাস্তার গাছ কাটলেন বীর মুক্তিযোদ্ধা, প্রতিবাদ করায় বিএনপি নেতাকে মারধর

  কোটালীপাড়া (গোপালগঞ্জ) প্রতিনিধি  

০৫ জুলাই ২০২১, ১৯:২২:৪৪  |  অনলাইন সংস্করণ

আহত বিএনপি নেতা

রাস্তার একটি রেইনট্রি গাছ কেটেছেন বীর মুক্তিযোদ্ধা। এর প্রতিবাদ করায় বিএনপি নেতাকে পিটিয়ে আহত করার অভিযোগ উঠেছে মুক্তিযোদ্ধার নাতির বিরুদ্ধে।

সোমবার গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়া উপজেলার সাদুল্লাপুর ইউনিয়নের লাটেঙ্গা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

আহত নিরাঞ্জন ওঝা বিএনপির গোপালগঞ্জ জেলা শাখার আহবায়ক কমিটির অন্যতম সদস্য এবং কোটালীপাড়া উপজেলার টিকরীবাড়ি গ্রামের নিত্যানন্দ ওঝার ছেলে।

সংশ্লিষ্টরা জানায়, লাটেঙ্গা গ্রামের সাবেক সেনা সদস্য ও বীর মুক্তিযোদ্ধা বিধান চন্দ্র বিশ্বাস (৭০) তার বাড়ির সামনের রাস্তার একটি রেইনট্রি গাছ কেটে ফেলেন। এই গাছ কাটাকে কেন্দ্র করে নিরাঞ্জন ওঝা ও বিধান চন্দ্র বিশ্বাসের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। এরই এক পর্যায়ে বিধান চন্দ্র বিশ্বাসের নাতি বাঁধন বিশ্বাস (১৭) নিরাঞ্জন ওঝাকে মারধর করেন। মারধরে আহত নিরাঞ্জন ওঝা বর্তমানে কোটালীপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

এ বিষয়ে নিরাঞ্জন ওঝা দাবি করে বলেন, আমি সাদুল্লাপুর ইউনিয়নের ভাঙ্গারহাট- নিতাইবাজার রাস্তার সামাজিক বনায়ন উপকারভোগী সমিতির সাধারণ সম্পাদক। লাটেঙ্গা গ্রামের বিধান চন্দ্র বিশ্বাস এই রাস্তা থেকে একটি রেইনট্রি গাছ কেটে ফেলেছেন। বিষয়টি আমি জানার পরে বিধান চন্দ্র বিশ্বাসের কাছে জানতে চাইলে তার লোকজন আমাকে মারধর করে।

সাবেক সেনা সদস্য ও বীর মুক্তিযোদ্ধা বিধান চন্দ্র বিশ্বাস দাবি করে বলেন, আমার বাড়ির সামনের রাস্তায় একটি রেইনট্রি গাছের কারণে জনগণের চলাচলে সমস্যা হচ্ছিল। এ জন্য আমি সেই গাছটি কেটে ফেলি। খবর পেয়ে নিরাঞ্জন ওঝা আমার বাড়িতে এসে খারাপ ভাষায় গালাগালি ও আমাকে মারতে আসে। এ সময় ক্ষিপ্ত হয়ে আমার নাতি বাঁধন বিশ্বাস নিরাঞ্জনকে মারধর করে।

কোটালীপাড়া থানার ওসি মো. আমিনুল ইসলাম বলেন, নিরাঞ্জন ওঝাকে মারধরের ঘটনায় তার স্ত্রী বিথি ভৌমিক একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন। তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

রাস্তার গাছ কাটলেন বীর মুক্তিযোদ্ধা, প্রতিবাদ করায় বিএনপি নেতাকে মারধর

 কোটালীপাড়া (গোপালগঞ্জ) প্রতিনিধি 
০৫ জুলাই ২০২১, ০৭:২২ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
আহত বিএনপি নেতা
আহত বিএনপি নেতা

রাস্তার একটি রেইনট্রি গাছ কেটেছেন বীর মুক্তিযোদ্ধা। এর প্রতিবাদ করায় বিএনপি নেতাকে পিটিয়ে আহত করার অভিযোগ উঠেছে মুক্তিযোদ্ধার নাতির বিরুদ্ধে।  

সোমবার গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়া উপজেলার সাদুল্লাপুর ইউনিয়নের লাটেঙ্গা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। 

আহত নিরাঞ্জন ওঝা বিএনপির গোপালগঞ্জ জেলা শাখার আহবায়ক কমিটির অন্যতম সদস্য এবং কোটালীপাড়া উপজেলার টিকরীবাড়ি গ্রামের নিত্যানন্দ ওঝার ছেলে। 

সংশ্লিষ্টরা জানায়, লাটেঙ্গা গ্রামের সাবেক সেনা সদস্য ও বীর মুক্তিযোদ্ধা বিধান চন্দ্র বিশ্বাস (৭০) তার বাড়ির সামনের রাস্তার একটি রেইনট্রি গাছ কেটে ফেলেন। এই গাছ কাটাকে কেন্দ্র করে নিরাঞ্জন ওঝা ও বিধান চন্দ্র বিশ্বাসের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। এরই এক পর্যায়ে বিধান চন্দ্র বিশ্বাসের নাতি বাঁধন বিশ্বাস (১৭) নিরাঞ্জন ওঝাকে মারধর করেন। মারধরে আহত নিরাঞ্জন ওঝা বর্তমানে কোটালীপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। 

এ বিষয়ে নিরাঞ্জন ওঝা দাবি করে বলেন, আমি সাদুল্লাপুর ইউনিয়নের ভাঙ্গারহাট- নিতাইবাজার রাস্তার সামাজিক বনায়ন উপকারভোগী সমিতির সাধারণ সম্পাদক। লাটেঙ্গা গ্রামের বিধান চন্দ্র বিশ্বাস এই রাস্তা থেকে একটি রেইনট্রি গাছ কেটে ফেলেছেন। বিষয়টি আমি জানার পরে বিধান চন্দ্র বিশ্বাসের কাছে জানতে চাইলে তার লোকজন আমাকে মারধর করে। 

সাবেক সেনা সদস্য ও বীর মুক্তিযোদ্ধা বিধান চন্দ্র বিশ্বাস দাবি করে বলেন, আমার বাড়ির সামনের রাস্তায় একটি রেইনট্রি গাছের কারণে জনগণের চলাচলে সমস্যা হচ্ছিল। এ জন্য আমি সেই গাছটি কেটে ফেলি। খবর পেয়ে নিরাঞ্জন ওঝা আমার বাড়িতে এসে খারাপ ভাষায় গালাগালি ও আমাকে মারতে আসে। এ সময় ক্ষিপ্ত হয়ে আমার নাতি বাঁধন বিশ্বাস নিরাঞ্জনকে মারধর করে। 

কোটালীপাড়া থানার ওসি মো. আমিনুল ইসলাম বলেন, নিরাঞ্জন ওঝাকে মারধরের ঘটনায় তার স্ত্রী বিথি ভৌমিক একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন। তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন