নাস্তা খেয়ে বের হতেই প্রকাশ্যে ইউপি মেম্বারকে কুপিয়ে খুন
jugantor
নাস্তা খেয়ে বের হতেই প্রকাশ্যে ইউপি মেম্বারকে কুপিয়ে খুন

  কুমিল্লা ব্যুরো  

০৬ জুলাই ২০২১, ২১:০৭:০৬  |  অনলাইন সংস্করণ

কুমিল্লার মনোহরগঞ্জে সকালে নাস্তা খেয়ে বাড়ির বাইরে বের হতেই প্রকাশ্যে রহমত আলীর ছুরিকাঘাতে খুন হন ইউপি সদস্য আবদুর রহিম (৪৫)।

মঙ্গলবার সকাল ৯টার দিকে ওই ইউনিয়নের ধিকচান্দা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় অভিযুক্ত রহমত আলী নামে একজনকে গণধোলাই দিয়ে পুলিশের কাছে সোপর্দ করেছেন স্থানীয়রা।

নিহত রহিম উপজেলার ঝলম উত্তর ইউনিয়নের ৮ নম্বর ওয়ার্ডের মেম্বার ছিলেন। মেম্বার রহিম ওই গ্রামের জায়েদ আলীর ছেলে।

অভিযুক্ত রহমত আলীকে আটক করে গণধোলাই দেয়ার পর তাকে মুমূর্ষু অবস্থায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। হাসপাতালে পুলিশের হেফাজতে রয়েছেন অভিযুক্ত রহমত আলী।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানান, ধিকচান্দা গ্রামে একটি পুকুর ইজারা সংক্রান্ত বিষয়ে ইউপি মেম্বার আবদুর রহিমের সঙ্গে পাশের বাড়ির মৃত ছেরাজুল হকের ছেলে রহমত আলীর (৫৭) বিরোধ চলছিল। এ বিরোধকে কেন্দ্র করে রহমত আলী মঙ্গলবার সকালে নাস্তা খেয়ে বাড়ি থেকে বের হতেই মেম্বার আবদুর রহিমকে কুপিয়ে নৃশংসভাবে হত্যা করে।

এ সময় বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী রহমত আলীকে আটক করে বৈদ্যুতিক পিলারের সঙ্গে বেঁধে গণধোলাই দেন। এতে তার অবস্থাও মুমূর্ষু হয়ে পড়লে তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

দুপুরে এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে মনোহরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহাবুল কবির বলেন, ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের প্রক্রিয়া চলছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

নাস্তা খেয়ে বের হতেই প্রকাশ্যে ইউপি মেম্বারকে কুপিয়ে খুন

 কুমিল্লা ব্যুরো 
০৬ জুলাই ২০২১, ০৯:০৭ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

কুমিল্লার মনোহরগঞ্জে সকালে নাস্তা খেয়ে বাড়ির বাইরে বের হতেই প্রকাশ্যে রহমত আলীর ছুরিকাঘাতে খুন হন ইউপি সদস্য আবদুর রহিম (৪৫)।

মঙ্গলবার সকাল ৯টার দিকে ওই ইউনিয়নের ধিকচান্দা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় অভিযুক্ত রহমত আলী নামে একজনকে গণধোলাই দিয়ে পুলিশের কাছে সোপর্দ করেছেন স্থানীয়রা।

নিহত রহিম উপজেলার ঝলম উত্তর ইউনিয়নের ৮ নম্বর ওয়ার্ডের মেম্বার ছিলেন। মেম্বার রহিম ওই গ্রামের জায়েদ আলীর ছেলে।

অভিযুক্ত রহমত আলীকে আটক করে গণধোলাই দেয়ার পর তাকে মুমূর্ষু অবস্থায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। হাসপাতালে পুলিশের হেফাজতে রয়েছেন অভিযুক্ত রহমত আলী।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানান, ধিকচান্দা গ্রামে একটি পুকুর ইজারা সংক্রান্ত বিষয়ে ইউপি মেম্বার আবদুর রহিমের সঙ্গে পাশের বাড়ির মৃত ছেরাজুল হকের ছেলে রহমত আলীর (৫৭) বিরোধ চলছিল। এ বিরোধকে কেন্দ্র করে রহমত আলী মঙ্গলবার সকালে নাস্তা খেয়ে বাড়ি থেকে বের হতেই মেম্বার আবদুর রহিমকে কুপিয়ে নৃশংসভাবে হত্যা করে।

এ সময় বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী রহমত আলীকে আটক করে বৈদ্যুতিক পিলারের সঙ্গে বেঁধে গণধোলাই দেন। এতে তার অবস্থাও মুমূর্ষু হয়ে পড়লে তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

দুপুরে এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে মনোহরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহাবুল কবির বলেন, ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের প্রক্রিয়া চলছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন