ঋণের চাপে অটোচালকের আত্মহত্যা
jugantor
ঋণের চাপে অটোচালকের আত্মহত্যা

  রংপুর ব্যুরো  

০৭ জুলাই ২০২১, ০০:০৪:৫৪  |  অনলাইন সংস্করণ

রংপুরের পীরগঞ্জে ঋণের টাকা পরিশোধে ব্যর্থ হওয়ায় মহিদুল ইসলাম (২৭) নামের এক ভ্যান চালক কীটনাশক পানে আত্মহত্যা করেছেন। রোববার দিবাগত গভীর রাতে বিষ পানের পর সোমবার সন্ধ্যায় তিনি মারা যান।

মহিদুল ইসলাম উপজেলার বড় আলমপুর ইউনিয়নের পাট নয়াপাড়া গ্রামের ভূট্টু মিয়ার ছেলে।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বড় আলমপুর ইউপি চেয়ারম্যান হাফিজার রহমান।

গ্রামবাসী ও পারিবারিক সূত্র জানায়, নিহত মহিদুল ইসলাম একাধিক এনজিওসহ স্থানীয় কয়েকজন দাদন ব্যবসায়ীর নিকট চড়া সুদে ঋণ গ্রহণ করেন। উক্ত টাকা বর্তমান করোনা পরিস্থিতিতেও দাদন ব্যবসায়ী ও এনজিও কর্মীরা আদায়ের জন্য চাপ প্রয়োগ করলে মহিদুল ইসলাম দিশেহারা হয়ে পড়েন।

একপর্যায়ে অপমান সইতে না পেরে রোববার দিনগত গভীর রাতে সকলের অজান্তে কীটনাশক পান করেন। আশঙ্কাজনক অবস্থায় পীরগঞ্জ উপজেলার স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হলে পরদিন সকালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মহিদুল ইসলাম মার যান।

ঋণের চাপে অটোচালকের আত্মহত্যা

 রংপুর ব্যুরো 
০৭ জুলাই ২০২১, ১২:০৪ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

রংপুরের পীরগঞ্জে ঋণের টাকা পরিশোধে ব্যর্থ হওয়ায় মহিদুল ইসলাম (২৭) নামের এক ভ্যান চালক কীটনাশক পানে আত্মহত্যা করেছেন। রোববার দিবাগত গভীর রাতে বিষ পানের পর সোমবার সন্ধ্যায় তিনি মারা যান।

মহিদুল ইসলাম উপজেলার বড় আলমপুর ইউনিয়নের পাট নয়াপাড়া গ্রামের ভূট্টু মিয়ার ছেলে।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বড় আলমপুর ইউপি চেয়ারম্যান হাফিজার রহমান।

গ্রামবাসী ও পারিবারিক সূত্র জানায়, নিহত মহিদুল ইসলাম একাধিক এনজিওসহ স্থানীয় কয়েকজন দাদন ব্যবসায়ীর নিকট চড়া সুদে ঋণ গ্রহণ করেন। উক্ত টাকা বর্তমান করোনা পরিস্থিতিতেও দাদন ব্যবসায়ী ও এনজিও কর্মীরা আদায়ের জন্য চাপ প্রয়োগ করলে মহিদুল ইসলাম দিশেহারা হয়ে পড়েন।

একপর্যায়ে অপমান সইতে না পেরে রোববার দিনগত গভীর রাতে সকলের অজান্তে কীটনাশক পান করেন। আশঙ্কাজনক অবস্থায় পীরগঞ্জ উপজেলার স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হলে পরদিন সকালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মহিদুল ইসলাম মার যান।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন