সেই ইউএনওর স্থলাভিষিক্ত হলেন ফাতেমা
jugantor
সেই ইউএনওর স্থলাভিষিক্ত হলেন ফাতেমা

  সাতকানিয়া (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি  

০৯ জুলাই ২০২১, ২২:৪৭:৪৬  |  অনলাইন সংস্করণ

চট্টগ্রামের সাতকানিয়ায় চিকিৎসককে জরিমানা করা সেই ইউএনওর স্থলাভিষিক্ত হলেন নতুন ইউএনও ফাতেমা তুজ-জোহরা।

শুক্রবার তিনি আনুষ্ঠানিকভাবে নিজ কর্মস্থলে যোগদান করেন। সাতকানিয়ায় এই প্রথম নারী ইউএনও হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন তিনি।

এর আগে চাঁদপুরের হাজিগঞ্জ থেকে বৈশাখী বড়ুয়া নামে একজনকে পদায়ন করলেও পরে সেটি বাতিল করে জরিমানাকাণ্ডে ওএসডি হওয়া মো. নজরুল ইসলামকে পদায়ন করা হয়।

গত সোমবার বিকালে চট্টগ্রামের অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার খন্দকার জহিরুল ইসলাম স্বাক্ষরিত এক আদেশে তাকে সাতকানিয়ায় পদায়ন করা হয়। এর আগে রোববার বিকালে জনপ্রশাসন থেকে ইউএনও মো. নজরুল ইসলামকে ওএসডি করে আদেশ জারি করা হয়।

বিসিএস ৩৩তম ব্যাচের এ কর্মকর্তা এরআগে হবিগঞ্জের মাধবপুরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার দায়িত্ব পালন করেন। তারও আগে তিনি সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলায় উপজেলা সহকারী কমিশনারের দায়িত্ব পালন করে ই-নামজারিতে ভূমিকা রাখায় সিলেট বিভাগের শ্রেষ্ঠ এসিল্যান্ড হিসেবে স্বীকৃতি পান।

ব্যক্তিগত জীবনে তিনি এক কন্যাসন্তানের জননী। তার গ্রামের বাড়ি লক্ষ্মীপুর। স্বামীও বিসিএস ক্যাডারের একজন কর্মকর্তা।

সম্প্রতি ডা. ফরহাদ কবির নামে একজন চিকিৎসককে সংক্রামক আইনে জরিমানা করে বিতর্কের মুখে পড়েন সদ্যবিদায়ী ইউএনও মো. নজরুল ইসলাম।

তার শাস্তির দাবি জানিয়ে চিকিৎসকদের সংগঠন স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক জেলা জেলা প্রশাসক, বিভাগীয় কমিশনার, সিভিল সার্জন থেকে শুরু করে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী পর্যন্ত নালিশ করেন। এর পরপরই তাকে ওএসডি করে সাতকানিয়া থেকে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ে সরিয়ে নেওয়া হয়।

সদ্য ওএসডি হওয়া ইউএনও মো. নজরুল ইসলাম এ বছরের মার্চের ২৩ তারিখে যোগদান করেন সাতকানিয়ায়। প্রায় চার মাসের মাথায় জরিমানাকাণ্ডে সাতকানিয়া ছাড়তে হয় তাকে।

সেই ইউএনওর স্থলাভিষিক্ত হলেন ফাতেমা

 সাতকানিয়া (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি 
০৯ জুলাই ২০২১, ১০:৪৭ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

চট্টগ্রামের সাতকানিয়ায় চিকিৎসককে জরিমানা করা সেই ইউএনওর স্থলাভিষিক্ত হলেন নতুন ইউএনও ফাতেমা তুজ-জোহরা। 

শুক্রবার তিনি আনুষ্ঠানিকভাবে নিজ কর্মস্থলে যোগদান করেন। সাতকানিয়ায় এই প্রথম নারী ইউএনও হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন তিনি। 

এর আগে চাঁদপুরের হাজিগঞ্জ থেকে বৈশাখী বড়ুয়া নামে একজনকে পদায়ন করলেও পরে সেটি বাতিল করে জরিমানাকাণ্ডে ওএসডি হওয়া মো. নজরুল ইসলামকে পদায়ন করা হয়।

গত সোমবার বিকালে চট্টগ্রামের অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার খন্দকার জহিরুল ইসলাম স্বাক্ষরিত এক আদেশে তাকে সাতকানিয়ায় পদায়ন করা হয়। এর আগে রোববার বিকালে জনপ্রশাসন থেকে ইউএনও মো. নজরুল ইসলামকে ওএসডি করে আদেশ জারি করা হয়। 

বিসিএস ৩৩তম ব্যাচের এ কর্মকর্তা এরআগে হবিগঞ্জের মাধবপুরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার দায়িত্ব পালন করেন। তারও আগে তিনি সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলায় উপজেলা সহকারী কমিশনারের দায়িত্ব পালন করে ই-নামজারিতে ভূমিকা রাখায় সিলেট বিভাগের শ্রেষ্ঠ এসিল্যান্ড হিসেবে স্বীকৃতি পান। 

ব্যক্তিগত জীবনে তিনি এক কন্যাসন্তানের জননী। তার গ্রামের বাড়ি লক্ষ্মীপুর। স্বামীও বিসিএস ক্যাডারের একজন কর্মকর্তা।

সম্প্রতি ডা. ফরহাদ কবির নামে একজন চিকিৎসককে সংক্রামক আইনে জরিমানা করে বিতর্কের মুখে পড়েন সদ্যবিদায়ী ইউএনও মো. নজরুল ইসলাম। 

তার শাস্তির দাবি জানিয়ে চিকিৎসকদের সংগঠন স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক জেলা জেলা প্রশাসক, বিভাগীয় কমিশনার, সিভিল সার্জন থেকে শুরু করে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী পর্যন্ত নালিশ করেন। এর পরপরই তাকে ওএসডি করে সাতকানিয়া থেকে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ে সরিয়ে নেওয়া হয়।

সদ্য ওএসডি হওয়া ইউএনও মো. নজরুল ইসলাম এ বছরের মার্চের ২৩ তারিখে যোগদান করেন সাতকানিয়ায়। প্রায় চার মাসের মাথায় জরিমানাকাণ্ডে সাতকানিয়া ছাড়তে হয় তাকে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন