রূপগঞ্জ ট্রাজেডি: লাফিয়ে পড়ে মারা যাওয়া নারীর লাশ বাড়িতে
jugantor
রূপগঞ্জ ট্রাজেডি: লাফিয়ে পড়ে মারা যাওয়া নারীর লাশ বাড়িতে

  এ টি এম নিজাম, কিশোরগঞ্জ ব্যুরো  

১১ জুলাই ২০২১, ২৩:২১:৩৮  |  অনলাইন সংস্করণ

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জের কারখানায় ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় ভবন থেকে লাফিয়ে পড়ে মারা যাওয়া নারী শ্রমিকের লাশ তার নিজ বাড়িতে পৌঁছেছে। এ সময় তার বাড়িতে এক হৃদয় বিদারক দৃশ্যের অবতারণা হয়।

শনিবার বিকালে জেলার করিমগঞ্জ উপজেলার জয়কা ইউনিয়নের উত্তর কান্দাইল গ্রামের হারুন মিয়ার স্ত্রীর মিনা আক্তারের (৩৩) লাশ তার বাড়িতে নেয়া হয়। এর আগে তার লাশ পাওয়া যায় রাজধানীর ইউএস বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে।

করিমগঞ্জ থানার ওসি মো. মমিনুল ইসলাম মিনা আক্তারের লাশ তার বাড়িতে পৌঁছানোর ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

কিশোরগঞ্জের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ শামীম আলম জানান, নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে সেজান জুস কারখানায় অগ্নিকাণ্ডে পুড়ে শ্রমিক মারা যাওয়ার বিষয়টি হৃদয়বিদারক ও মর্মান্তিক। এ পর্যন্ত এ অগ্নিকাণ্ডে কিশোরগঞ্জ জেলার মোট কতজন মারা গেছেন তার সঠিক তালিকা এখনো পাওয়া যায়নি। তবে জেলার সদর, করিমগঞ্জ, কটিয়াদী ও মিঠামইন উপজেলার অনেকেই নিখোঁজ রয়েছেন বলে জানা গেছে। যারা নিখোঁজ তাদের পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগের জন্য সংশ্লিষ্ট উপজেলার নির্বাহী অফিসারদের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে।

প্রশাসনের পক্ষ থেকে ক্ষতিগ্রস্ত এসব পরিবারকে সব ধরনের সহায়তা করা হবে। সংশ্লিষ্ট পরিবারকে খাদ্য সহায়তা, ডিএনএ স্যাম্পল দিতে স্বজনদের গাড়িভাড়া ও লাশ দাফন-কাফনের ব্যবস্থাও করা হবে বলে বলে জানিয়েছেন জেলা প্রশাসক।

রূপগঞ্জ ট্রাজেডি: লাফিয়ে পড়ে মারা যাওয়া নারীর লাশ বাড়িতে

 এ টি এম নিজাম, কিশোরগঞ্জ ব্যুরো 
১১ জুলাই ২০২১, ১১:২১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জের কারখানায় ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় ভবন থেকে লাফিয়ে পড়ে মারা যাওয়া নারী শ্রমিকের লাশ তার নিজ বাড়িতে পৌঁছেছে। এ সময় তার বাড়িতে এক হৃদয় বিদারক দৃশ্যের অবতারণা হয়। 

শনিবার বিকালে জেলার করিমগঞ্জ উপজেলার জয়কা ইউনিয়নের উত্তর কান্দাইল গ্রামের হারুন মিয়ার স্ত্রীর মিনা আক্তারের (৩৩) লাশ তার বাড়িতে নেয়া হয়। এর আগে তার লাশ পাওয়া যায় রাজধানীর ইউএস বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে।

করিমগঞ্জ থানার ওসি মো. মমিনুল ইসলাম মিনা আক্তারের লাশ তার বাড়িতে পৌঁছানোর ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

কিশোরগঞ্জের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ শামীম আলম জানান, নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে সেজান জুস কারখানায় অগ্নিকাণ্ডে পুড়ে শ্রমিক মারা যাওয়ার বিষয়টি হৃদয়বিদারক ও  মর্মান্তিক। এ পর্যন্ত এ অগ্নিকাণ্ডে কিশোরগঞ্জ জেলার মোট কতজন মারা গেছেন তার সঠিক তালিকা এখনো পাওয়া যায়নি। তবে জেলার সদর, করিমগঞ্জ, কটিয়াদী ও মিঠামইন উপজেলার অনেকেই নিখোঁজ রয়েছেন বলে জানা গেছে। যারা নিখোঁজ তাদের পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগের জন্য সংশ্লিষ্ট উপজেলার নির্বাহী অফিসারদের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে।

প্রশাসনের পক্ষ থেকে ক্ষতিগ্রস্ত এসব পরিবারকে সব ধরনের সহায়তা করা হবে। সংশ্লিষ্ট পরিবারকে খাদ্য সহায়তা, ডিএনএ স্যাম্পল দিতে স্বজনদের গাড়িভাড়া ও লাশ দাফন-কাফনের ব্যবস্থাও করা হবে বলে বলে জানিয়েছেন জেলা প্রশাসক।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : রূপগঞ্জে কারখানায় আগুন

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন