২৯ হাজার টাকা মূল্যের খাসির চামড়া দাম ১০ টাকা
jugantor
২৯ হাজার টাকা মূল্যের খাসির চামড়া দাম ১০ টাকা

  গৌরীপুর (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি  

২১ জুলাই ২০২১, ২৩:২৬:৫৫  |  অনলাইন সংস্করণ

ময়মনসিংহের গৌরীপুরে চামড়ার বাজারমূল্যে ধস নামে। ৩ লাখ টাকার গরু কালোমানিকের চামড়া বিক্রি হয়েছে মাত্র সাড়ে ৪শ টাকা। ২৯ হাজার টাকা মূল্যের খাসি যার নাম রাজমনি তার চামড়া বিক্রি হয়েছে ১০ টাকায়। অন্যান্য খাসির চামড়া কেউ কিনতেও রাজি হয়নি। এমন পরিস্থিতি দেখা যায় চামড়া বাজারে।

উত্তর বাজারের আবুল কাসেম জানান, কালো মানিককে কেনা হয়েছিল ৩ লাখ ২৮ হাজার টাকায়। সেই কালোমানিকের চামড়া বিক্রি হয়েছে ৪শ ৫০ টাকায়।

একই বাজারে চামড়া নিয়ে এসেছেন কলতাপাড়ার সাহাব উদ্দিন। তিনি জানান, কুরবানি দেওয়া ষাঁড়ের নাম ছিল ‘রাজা-বাদশা’। এর চামড়ায় প্রতিদিন যত্ন করার জন্য তেল মালিশ, শ্যাম্পু দিয়ে গোসল করাতো। কিনেছিলাম ২ লাখ ১৬ হাজার টাকায়। চামড়া বিক্রি করলাম ৪শ টাকা।

শ্যামগঞ্জ থেকে আসা রঘুনাথ জানান, ২৯ হাজার টাকা মূল্যের রাজমনি (খাসি) এর চামড়া কিনেছি ১০ টাকায়।

বিক্রেতা মুনতাসির রহমান জুয়েল জানান, এতো শখের খাসি নাম রাখলাম রাজমনি। ডাক দিলেই উড়াল দিয়ে কাছে আসতো। আর সেই খাসির চামড়া ১০ টাকা। রিকশা ভাড়া দিলাম ৪০ টাকা।

বাহির থেকে ক্রেতা (মহাজন) না আসায় চামড়ার দামেও ধস নেমেছে।

স্থানীয় ব্যবসায়ী মো. লাল মিয়া জানান, প্রতিটি চামড়া কিনলাম ২৫০টাকায়। এখন বেচলাম ২শ টাকায়। খাজনা দিলাম ১০ টাকা, রিকশা ভাড়া ৩শ। ২১টি চামড়া কিনে লোকসান গুনতে হয়েছে ১ হাজার ৬শ টাকা।

২৯ হাজার টাকা মূল্যের খাসির চামড়া দাম ১০ টাকা

 গৌরীপুর (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি 
২১ জুলাই ২০২১, ১১:২৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ময়মনসিংহের গৌরীপুরে চামড়ার বাজারমূল্যে ধস নামে। ৩ লাখ টাকার গরু কালোমানিকের চামড়া বিক্রি হয়েছে মাত্র সাড়ে ৪শ টাকা। ২৯ হাজার টাকা মূল্যের খাসি যার নাম রাজমনি তার চামড়া বিক্রি হয়েছে ১০ টাকায়। অন্যান্য খাসির চামড়া কেউ কিনতেও রাজি হয়নি। এমন পরিস্থিতি দেখা যায় চামড়া বাজারে। 

উত্তর বাজারের আবুল কাসেম জানান, কালো মানিককে কেনা হয়েছিল ৩ লাখ ২৮ হাজার টাকায়। সেই কালোমানিকের চামড়া বিক্রি হয়েছে ৪শ ৫০ টাকায়। 

একই বাজারে চামড়া নিয়ে এসেছেন কলতাপাড়ার সাহাব উদ্দিন। তিনি জানান, কুরবানি দেওয়া ষাঁড়ের নাম ছিল ‘রাজা-বাদশা’। এর চামড়ায় প্রতিদিন যত্ন করার জন্য তেল মালিশ, শ্যাম্পু দিয়ে গোসল করাতো। কিনেছিলাম ২ লাখ ১৬ হাজার টাকায়। চামড়া বিক্রি করলাম ৪শ টাকা। 

শ্যামগঞ্জ থেকে আসা রঘুনাথ জানান, ২৯ হাজার টাকা মূল্যের রাজমনি (খাসি) এর চামড়া কিনেছি ১০ টাকায়। 

বিক্রেতা মুনতাসির রহমান জুয়েল জানান, এতো শখের খাসি নাম রাখলাম রাজমনি। ডাক দিলেই উড়াল দিয়ে কাছে আসতো। আর সেই খাসির চামড়া ১০ টাকা। রিকশা ভাড়া দিলাম ৪০ টাকা। 

বাহির থেকে ক্রেতা (মহাজন) না আসায় চামড়ার দামেও ধস নেমেছে। 

স্থানীয় ব্যবসায়ী মো. লাল মিয়া জানান, প্রতিটি চামড়া কিনলাম ২৫০টাকায়। এখন বেচলাম ২শ টাকায়। খাজনা দিলাম ১০ টাকা, রিকশা ভাড়া ৩শ। ২১টি চামড়া কিনে লোকসান গুনতে হয়েছে ১ হাজার ৬শ টাকা।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন