সৌদি প্রবাসী স্বামীর মামলায় স্ত্রীর জামিন 
jugantor
সৌদি প্রবাসী স্বামীর মামলায় স্ত্রীর জামিন 

  যুগান্তর প্রতিবেদন, বাউফল (পটুয়াখালী)   

২৩ জুলাই ২০২১, ২০:১৪:১১  |  অনলাইন সংস্করণ

সৌদি আরব প্রবাসী স্বামীর পাঠানো টাকা আত্মসাতের মামলায় গ্রেফতার সেই শাহরিয়া আক্তারকে জামিন দিয়েছেন আদালত।

বৃহস্পতিবার পটুয়াখালীর সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজির করার পর বিচারক তার জামিন মঞ্জুর করেন। এর আগে বুধবার শাহরিয়াকে (২৬) তার খালাতো ভাই নাহিদের বাড়ি বাউফলের কনকদিয়া ইউনিয়নের আয়লা গ্রাম থেকে গ্রেফতার করা হয়।

শাহরিয়া আক্তার বাউফলের সূর্যমণি ইউনিয়নের গোয়ালিয়াবাঘা গ্রামের মোশারেফ মৃধার মেয়ে। ২০১৩ সালে সৌদি আরব প্রবাসী করিম মৃধার সঙ্গে বিয়ে হয় শাহরিয়া আক্তারের। বর্তমানে তাদের সংসারে আবদুর রহমান (৭) ও দোহা আক্তার (৫) নামের দুই সন্তান রয়েছে।

টাকা আত্মসাতসহ বিভিন্ন বিষয় উল্লেখ করে করিম মৃধা গত ১ সেপ্টেম্বর পটুয়াখালীর সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে শাহরিয়া ও তার খালাতো ভাই নাহিদের বিরুদ্ধে মামলা করেন। এ বিষয়ে নাহিদের চাচাতো ভাই রাসেদুল কবির খান টিপু বলেন, শাহরিয়া তার স্বামীর হাতে নির্যাতনের শিকার।

স্বামীর নির্যাতন সইতে না পেরে শাহরিয়া একাধিকবার তার খালার কাছে চলে আসে। নাহিদ ও শাহরিয়া খালোতা ভাইবোন। শাহরিয়ার মা মারা যাওয়ার পর খালাতো ভাই নাহিদের বাড়িতেই বড় হয়েছে সে। নাহিদকে জড়িয়ে যে মামলা করা হয়েছে তা ভিত্তিহীন বলে দাবি করেন তিনি।

বাউফল থানার ওসি আল মামুন বলেন, আমরা গ্রেফতারি পরোয়ানা তামিল করেছি। আদালত শাহরিয়াকে জামিন দিয়েছেন।

সৌদি প্রবাসী স্বামীর মামলায় স্ত্রীর জামিন 

 যুগান্তর প্রতিবেদন, বাউফল (পটুয়াখালী)  
২৩ জুলাই ২০২১, ০৮:১৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

সৌদি আরব প্রবাসী স্বামীর পাঠানো টাকা আত্মসাতের মামলায় গ্রেফতার সেই শাহরিয়া আক্তারকে জামিন দিয়েছেন আদালত। 

বৃহস্পতিবার পটুয়াখালীর সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজির করার পর বিচারক তার জামিন মঞ্জুর করেন। এর আগে বুধবার শাহরিয়াকে (২৬) তার খালাতো ভাই নাহিদের বাড়ি বাউফলের কনকদিয়া ইউনিয়নের আয়লা গ্রাম থেকে গ্রেফতার করা হয়। 

শাহরিয়া আক্তার বাউফলের সূর্যমণি ইউনিয়নের গোয়ালিয়াবাঘা গ্রামের মোশারেফ মৃধার মেয়ে। ২০১৩ সালে সৌদি আরব প্রবাসী করিম মৃধার সঙ্গে বিয়ে হয় শাহরিয়া আক্তারের। বর্তমানে তাদের সংসারে আবদুর রহমান (৭) ও দোহা আক্তার (৫) নামের দুই সন্তান রয়েছে। 

টাকা আত্মসাতসহ বিভিন্ন বিষয় উল্লেখ করে করিম মৃধা গত ১ সেপ্টেম্বর পটুয়াখালীর সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে শাহরিয়া ও তার খালাতো ভাই নাহিদের বিরুদ্ধে মামলা করেন। এ বিষয়ে নাহিদের চাচাতো ভাই রাসেদুল কবির খান টিপু বলেন, শাহরিয়া তার স্বামীর হাতে নির্যাতনের শিকার। 

স্বামীর নির্যাতন সইতে না পেরে শাহরিয়া একাধিকবার তার খালার কাছে চলে আসে। নাহিদ ও শাহরিয়া খালোতা ভাইবোন। শাহরিয়ার মা মারা যাওয়ার পর খালাতো ভাই নাহিদের বাড়িতেই বড় হয়েছে সে। নাহিদকে জড়িয়ে যে মামলা করা হয়েছে তা ভিত্তিহীন বলে দাবি করেন তিনি।

বাউফল থানার ওসি আল মামুন বলেন, আমরা গ্রেফতারি পরোয়ানা তামিল করেছি। আদালত শাহরিয়াকে জামিন দিয়েছেন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন