মেঘনায় জেলেদের জালে ২২ কেজির ‘পাখি মাছ’
jugantor
মেঘনায় জেলেদের জালে ২২ কেজির ‘পাখি মাছ’

  রামগতি (লক্ষ্মীপুর) প্রতিনিধি  

২৪ জুলাই ২০২১, ০১:৩৫:২৬  |  অনলাইন সংস্করণ

মেঘনা নদীতে মাছ ধরার সময় লক্ষ্মীপুরের কমলনগরের জেলেদের জালে বিরল প্রজাতির একটি মাছ ধরা পড়েছে। প্রায় ২২ কেজি ওজনের ৭ ফুট লম্বা মাছটির পিঠের দিকে পাখার মতো আছে বলে এটিকে পাখি মাছ বলছেন জেলেরা।

শুক্রবার রাত ১০ টার দিকে কমলনগর উপজেলার পাটারিরহাট ইউনিনের জারিরদোনা মাছঘাটে মাছটি বিক্রি হয়েছে। এর আগে সন্ধ্যায় গভীর মেঘনাতে ইলিশ ধরার জালে বিরল প্রজাতির মাছটি স্থানীয় জেলেদের জালে ধরা পড়ে।

স্থানীয়রা জানায়, রাতে মাছটি ঘাটে উঠালে উৎসুক মানুষের ভিড় জমে যায়। মাছটি লক্ষ্মীপুরের মাছ ব্যবসায়ী মো.গোফরান ২ হাজার ৫শ’ টাকায় কিনে চড়া দামে বিক্রি করতে ঢাকা নেওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছেলেন। এসময় স্থানীয় বাসিন্দা ও রায়পুর কারিমিয়া মোহাম্মদিয়া মাদ্রাসার মোহতামিম মাওলানা আ হ ম নোমান সিরাজী ওই ব্যবাসায়ীকে অনুরোধ করে একই দামে মাছটি কিনে রাখেন। পরে ১০ জন মিলে ভাগ করে নেন বিরল প্রজাতির পাখি মাছটি।

লক্ষ্মীপুর জেলা মৎস্য কর্মকর্তা মোহাম্মদ বিল্লাল হোসেন ও কমলনগর উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা আবদুল কাদ্দুছ বলেন, মাছের পিঠের দিকে পাখার মতো আছে সে কারণে এটিকে পাখি মাছ বলেন জেলেরা। এটি মূলত সামুদ্রিক মাছ। নদীতে পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় সমুদ্র থেকে মাছটি মেঘনায় চলে এসেছিল বলে ধারণা করছেন তিনি।

মেঘনায় জেলেদের জালে ২২ কেজির ‘পাখি মাছ’

 রামগতি (লক্ষ্মীপুর) প্রতিনিধি 
২৪ জুলাই ২০২১, ০১:৩৫ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

মেঘনা নদীতে মাছ ধরার সময় লক্ষ্মীপুরের কমলনগরের জেলেদের জালে বিরল প্রজাতির একটি মাছ ধরা পড়েছে। প্রায় ২২ কেজি ওজনের ৭ ফুট লম্বা মাছটির পিঠের দিকে পাখার মতো আছে বলে এটিকে পাখি মাছ বলছেন জেলেরা। 

শুক্রবার রাত ১০ টার দিকে কমলনগর উপজেলার পাটারিরহাট ইউনিনের জারিরদোনা মাছঘাটে মাছটি বিক্রি হয়েছে। এর আগে সন্ধ্যায় গভীর মেঘনাতে ইলিশ ধরার জালে বিরল প্রজাতির মাছটি স্থানীয় জেলেদের জালে ধরা পড়ে।  

স্থানীয়রা জানায়, রাতে মাছটি ঘাটে উঠালে উৎসুক মানুষের ভিড় জমে যায়। মাছটি লক্ষ্মীপুরের মাছ ব্যবসায়ী মো.গোফরান ২ হাজার ৫শ’ টাকায় কিনে চড়া দামে বিক্রি করতে ঢাকা নেওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছেলেন। এসময় স্থানীয় বাসিন্দা ও রায়পুর কারিমিয়া মোহাম্মদিয়া মাদ্রাসার মোহতামিম মাওলানা আ হ ম নোমান সিরাজী ওই ব্যবাসায়ীকে অনুরোধ করে একই দামে মাছটি কিনে রাখেন। পরে ১০ জন মিলে ভাগ করে নেন বিরল প্রজাতির পাখি মাছটি। 

লক্ষ্মীপুর জেলা মৎস্য কর্মকর্তা মোহাম্মদ বিল্লাল হোসেন ও কমলনগর উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা আবদুল কাদ্দুছ বলেন, মাছের পিঠের দিকে পাখার মতো আছে সে কারণে এটিকে পাখি মাছ বলেন জেলেরা। এটি মূলত সামুদ্রিক মাছ। নদীতে পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় সমুদ্র থেকে মাছটি মেঘনায় চলে এসেছিল বলে ধারণা করছেন তিনি।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন