২৩ ঘণ্টা পর উদ্ধার হলো শিশুর লাশ
jugantor
২৩ ঘণ্টা পর উদ্ধার হলো শিশুর লাশ

  দুর্গাপুর (নেত্রকোনা) প্রতিনিধি  

২৪ জুলাই ২০২১, ১৮:২০:৩২  |  অনলাইন সংস্করণ

নেত্রকোনার দুর্গাপুর পৌরসভার দক্ষিণ ভবানীপুর এলাকায় সোমেশ্বরী নদীতে অন্যান্যদের সঙ্গে গোসল করতে নেমে ওয়াজিব হোসেন (৫) নামে এক শিশু নিখোঁজ হয়। ঘটনার ২৩ ঘণ্টা পর বাড়ইপাড়া নামক স্থান থেকে উদ্ধার করা হয় ওই শিশুর লাশ। ওয়াজিব ওই এলাকার দুঃখু মিয়ার ছেলে।

এ নিয়ে সরেজমিনে গিয়ে জানা গেছে, শুক্রবার বিকালে সোমেশ্বরী নদীতে অন্যান্যদের সঙ্গে গোসল করতে গিয়ে সে নিখোঁজ হয়। স্থানীয় লোকজন খোঁজাখুঁজি করে তার সন্ধান না পেয়ে দুর্গাপুর ফায়ার সার্ভিসকে খবর দেয়। ফায়ার সার্ভিস দল রাত পর্যন্ত উদ্ধার চেষ্টায় ব্যর্থ হয়ে শনিবার ভোর থেকে ফায়ার সার্ভিস ও ময়মনসিংহের ডুবুরী দল উদ্ধার চালালে দুপুর ২টার দিকে বাড়ইপাড়া নামক স্থানে ভেসে ওঠে ওই শিশুর লাশ।

দুর্গাপুর থানার ওসি (তদন্ত) মীর মাহাবুবুর রহমান জানান, ফায়ার সার্ভিস ও ডুবুরী দলের সহায়তায় প্রায় ২৩ ঘণ্টা উদ্ধার কাজ চালানোর পর ভেসে ওঠে শিশু ওয়াজিবের লাশ। কোনো অভিযোগ না থাকায় স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো. এমরোজ হোসেন ও জেলা পরিষদ সদস্য মো. শফিকুল ইসলাম সহ স্থানীয় গণ্যমান্যদের উপস্থিতিতে পরিবারের কাছে লাশ হস্তান্তর করা হয়েছে।

২৩ ঘণ্টা পর উদ্ধার হলো শিশুর লাশ

 দুর্গাপুর (নেত্রকোনা) প্রতিনিধি 
২৪ জুলাই ২০২১, ০৬:২০ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

নেত্রকোনার দুর্গাপুর পৌরসভার দক্ষিণ ভবানীপুর এলাকায় সোমেশ্বরী নদীতে অন্যান্যদের সঙ্গে গোসল করতে নেমে ওয়াজিব হোসেন (৫) নামে এক শিশু নিখোঁজ হয়। ঘটনার ২৩ ঘণ্টা পর বাড়ইপাড়া নামক স্থান থেকে উদ্ধার করা হয় ওই শিশুর লাশ। ওয়াজিব ওই এলাকার দুঃখু মিয়ার ছেলে।

এ নিয়ে সরেজমিনে গিয়ে জানা গেছে, শুক্রবার বিকালে সোমেশ্বরী নদীতে অন্যান্যদের সঙ্গে গোসল করতে গিয়ে সে নিখোঁজ হয়। স্থানীয় লোকজন খোঁজাখুঁজি করে তার সন্ধান না পেয়ে দুর্গাপুর ফায়ার সার্ভিসকে খবর দেয়। ফায়ার সার্ভিস দল রাত পর্যন্ত উদ্ধার চেষ্টায় ব্যর্থ হয়ে শনিবার ভোর থেকে ফায়ার সার্ভিস ও ময়মনসিংহের ডুবুরী দল উদ্ধার চালালে দুপুর ২টার দিকে বাড়ইপাড়া নামক স্থানে ভেসে ওঠে ওই শিশুর লাশ।

দুর্গাপুর থানার ওসি (তদন্ত) মীর মাহাবুবুর রহমান জানান, ফায়ার সার্ভিস ও ডুবুরী দলের সহায়তায় প্রায় ২৩ ঘণ্টা উদ্ধার কাজ চালানোর পর ভেসে ওঠে শিশু ওয়াজিবের লাশ। কোনো অভিযোগ না থাকায় স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো. এমরোজ হোসেন ও জেলা পরিষদ সদস্য মো. শফিকুল ইসলাম সহ স্থানীয় গণ্যমান্যদের উপস্থিতিতে পরিবারের কাছে লাশ হস্তান্তর করা হয়েছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন