ঈদের দাওয়াত খেয়ে বাড়ি ফেরা হলো না দুই ভায়রার 
jugantor
ঈদের দাওয়াত খেয়ে বাড়ি ফেরা হলো না দুই ভায়রার 

  কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি  

২৪ জুলাই ২০২১, ২২:৩৩:৫৫  |  অনলাইন সংস্করণ

মোটরসাইকেল দুর্ঘটনার প্রতীকী ছবি

কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরীতে শ্বশুর বাড়ি থেকে ঈদের দাওয়াত খেয়ে বাড়ি ফেরার পথে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় দুই আরোহীর মৃত্যু হয়েছে।

শুক্রবার দিবাগত রাতে উপজেলার রায়গঞ্জ ইউনিয়নের বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় সংলগ্ন মিনা বাজার-রায়গঞ্জ সড়কে এ ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- নাগেশ্বরী পৌর এলাকার ৩নং ওয়ার্ড ফকিরটারী গ্রামের আজিজুল ইসলামের ছেলে নয়ন মিয়া (৩০) এবং বামনডাঙ্গা ইউনিয়নের তেলিয়ানীকুটি গ্রামের ছাইফুর রহমানের ছেলে হামিদুল ইসলাম (২৯)। সম্পর্কে তারা ভায়রা-ভাই।

এলাকাবাসী ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, নয়ন ও হামিদুল দুইজন শুক্রবার বিকেলে রায়গঞ্জ ইউনিয়নের মিনাবাজার এলাকায় শ্বশুরবাড়ি ঈদের দাওয়াত খেতে যান। দাওয়াত শেষে সন্ধ্যার পর তারা মোটরসাইকেলযোগে বাড়ি ফিরছিলেন।

পথে মিনা বাজার-রায়গঞ্জ সড়কের রায়গঞ্জ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় মোড়ের বাঁক ঘুরতে গিয়ে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে মোটরসাইকেলটি পাশের একটি সুপারি গাছের সঙ্গে সাজোরে ধাক্কা দেয়। এতে দুজনই গুরুতর আহত হন। পরে এলাকাবাসীরা তাদের উদ্ধার করে নাগেশ্বরী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়ার পথে নয়নের মৃত্যু হয়।

হামিদুলকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তির পর অবস্থার অবনতি হলে কুড়িগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাত ১১ টার দিকে তিনিও মারা যান।

নাগেশ্বরী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) নবিউল হাসান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

ঈদের দাওয়াত খেয়ে বাড়ি ফেরা হলো না দুই ভায়রার 

 কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি 
২৪ জুলাই ২০২১, ১০:৩৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
মোটরসাইকেল দুর্ঘটনার প্রতীকী ছবি
মোটরসাইকেল দুর্ঘটনার প্রতীকী ছবি

কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরীতে শ্বশুর বাড়ি থেকে ঈদের দাওয়াত খেয়ে বাড়ি ফেরার পথে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় দুই আরোহীর মৃত্যু হয়েছে।
 
শুক্রবার দিবাগত রাতে উপজেলার রায়গঞ্জ ইউনিয়নের বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় সংলগ্ন মিনা বাজার-রায়গঞ্জ সড়কে এ ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- নাগেশ্বরী পৌর এলাকার ৩নং ওয়ার্ড ফকিরটারী গ্রামের আজিজুল ইসলামের ছেলে নয়ন মিয়া (৩০) এবং বামনডাঙ্গা ইউনিয়নের তেলিয়ানীকুটি গ্রামের ছাইফুর রহমানের ছেলে হামিদুল ইসলাম (২৯)। সম্পর্কে তারা ভায়রা-ভাই। 

এলাকাবাসী ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, নয়ন ও হামিদুল দুইজন শুক্রবার বিকেলে রায়গঞ্জ ইউনিয়নের মিনাবাজার এলাকায় শ্বশুরবাড়ি ঈদের দাওয়াত খেতে যান। দাওয়াত শেষে সন্ধ্যার পর তারা মোটরসাইকেলযোগে বাড়ি ফিরছিলেন।

পথে মিনা বাজার-রায়গঞ্জ সড়কের রায়গঞ্জ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় মোড়ের বাঁক ঘুরতে গিয়ে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে মোটরসাইকেলটি পাশের একটি সুপারি গাছের সঙ্গে সাজোরে ধাক্কা দেয়। এতে দুজনই গুরুতর আহত হন। পরে এলাকাবাসীরা তাদের উদ্ধার করে নাগেশ্বরী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়ার পথে নয়নের মৃত্যু হয়। 

হামিদুলকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তির পর অবস্থার অবনতি হলে কুড়িগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাত ১১ টার দিকে তিনিও মারা যান। 

নাগেশ্বরী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) নবিউল হাসান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। 
 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : সড়কে মৃত্যুর মিছিল

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন