মসজিদের নামকরণ নিয়ে সংঘর্ষ, নারীসহ আহত ১৬
jugantor
মসজিদের নামকরণ নিয়ে সংঘর্ষ, নারীসহ আহত ১৬

  বড়লেখা (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধি  

২৪ জুলাই ২০২১, ২৩:০১:৪৪  |  অনলাইন সংস্করণ

মৌলভীবাজারের বড়লেখায় মসজিদের নামকরণ নিয়ে বিরোধের জের ধরে দু’পক্ষের সংঘর্ষে নারীসহ উভয়পক্ষের ১৬ জন আহত হয়েছেন।

শনিবার আছরের নামাজের পর সংঘর্ষের ঘটনাটি ঘটে উপজেলার সুজানগর ইউনিয়নের সুজানগর গ্রামে।

থানা পুলিশ ও স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করেছেন। আহতদের ১২ জনের অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় তাদেরকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করেছে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরী বিভাগ।

আহতরা হলেন- সুজানগর গ্রামের বাসিন্দা সুকরাম বিন আলা বক্স, বকুল বক্স, সাজ্জাদ হোসেন, আবিদ আহমদ, এমাদ হোসেন, আলিম উদ্দিন, মেহেরুন বেগম, শিপা বেগম, মহসিন আলী, আজিজুর রহমান, জাবের আহমদ ও আজাদ আহমদ।

এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, সুজানগর গ্রামের মসজিদের নামকরণ নিয়ে গ্রামবাসীর দু’টি পক্ষের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে দ্বন্দ্ব চলছিল। একপক্ষ চাচ্ছিল গ্রামের জামে মসজিদের নাম হবে ‘সুজানগর জামে মসজিদ’ অপর পক্ষ চাচ্ছিল বক্সবাড়ি জামে মসজিদ। এর জের ধরে শনিবার আছরের নামাজের পর দু’পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বাধে। এতে উভয় পক্ষের ১৫ ব্যক্তি আহত হন। খবর পেয়ে পুলিশ নিয়ে থানার ওসি মো. জাহাঙ্গীর হোসেন সরদার ও স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান নছিব আলী পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করেন।

সুজানগর ইউপি চেয়ারম্যান নছিব আলী জানান, সুজানগর গ্রামের দু’টি পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের খবর পেয়ে তিনি ও থানার ওসি ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করেন। সংঘর্ষে উভয় পক্ষের কয়েকজন আহত হয়েছেন। আহতদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পাঠানো হয়। বর্তমানে পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে।

বড়লেখা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরী বিভাগের চিকিৎসক ডা. অমিত আচার্য জানান, সংঘর্ষের ঘটনায় ৪ জন প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছেন। ১২ জনের অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় সন্ধ্যার পর তাদেরকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।

মসজিদের নামকরণ নিয়ে সংঘর্ষ, নারীসহ আহত ১৬

 বড়লেখা (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধি 
২৪ জুলাই ২০২১, ১১:০১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

মৌলভীবাজারের বড়লেখায় মসজিদের নামকরণ নিয়ে বিরোধের জের ধরে দু’পক্ষের সংঘর্ষে নারীসহ উভয়পক্ষের ১৬ জন আহত হয়েছেন। 

শনিবার আছরের নামাজের পর সংঘর্ষের ঘটনাটি ঘটে উপজেলার সুজানগর ইউনিয়নের সুজানগর গ্রামে। 

থানা পুলিশ ও স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করেছেন। আহতদের ১২ জনের অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় তাদেরকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করেছে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরী বিভাগ।

আহতরা হলেন- সুজানগর গ্রামের বাসিন্দা সুকরাম বিন আলা বক্স, বকুল বক্স, সাজ্জাদ হোসেন, আবিদ আহমদ, এমাদ হোসেন, আলিম উদ্দিন, মেহেরুন বেগম, শিপা বেগম, মহসিন আলী, আজিজুর রহমান, জাবের আহমদ ও আজাদ আহমদ।

এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, সুজানগর গ্রামের মসজিদের নামকরণ নিয়ে গ্রামবাসীর দু’টি পক্ষের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে দ্বন্দ্ব চলছিল। একপক্ষ চাচ্ছিল গ্রামের জামে মসজিদের নাম হবে ‘সুজানগর জামে মসজিদ’ অপর পক্ষ চাচ্ছিল বক্সবাড়ি জামে মসজিদ। এর জের ধরে শনিবার আছরের নামাজের পর দু’পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বাধে। এতে উভয় পক্ষের ১৫ ব্যক্তি আহত হন। খবর পেয়ে পুলিশ নিয়ে থানার ওসি মো. জাহাঙ্গীর হোসেন সরদার ও স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান নছিব আলী পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করেন।     
 
সুজানগর ইউপি চেয়ারম্যান নছিব আলী জানান, সুজানগর গ্রামের দু’টি পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের খবর পেয়ে তিনি ও থানার ওসি ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করেন। সংঘর্ষে উভয় পক্ষের কয়েকজন আহত হয়েছেন। আহতদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পাঠানো হয়। বর্তমানে পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে।

বড়লেখা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরী বিভাগের চিকিৎসক ডা. অমিত আচার্য জানান, সংঘর্ষের ঘটনায় ৪ জন প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছেন। ১২ জনের অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় সন্ধ্যার পর তাদেরকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।  

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন